আলমডাঙ্গায় এক থাপ্পড়ে কানের পর্দা ফাটল শিক্ষকের

  চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি ১৮ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জাল সইয়ে বাধা দেয়ায় আলমডাঙ্গায় স্কুলে ঢুকে থাপ্পড় মেরে শিক্ষকের কানের পর্দা ফাটিয়ে দিয়েছে এক দুর্বৃত্ত। আলমডাঙ্গা উপজেলার ঘোলদাড়ী বাজার মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। হামলাকারীর নাম কুঠিপাইকপাড়া গ্রামের মতিয়ার রহমানের ছেলে মামুন হোসেন। সে স্কুলের এক ছাত্রীর মামা। শিক্ষক সিহাব শাহরীকে খুলনা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় স্কুলের প্রধান শিক্ষক থানায় অভিযোগ করেছেন। থানায় নালিশ দেয়ার কারণে সন্ত্রাসী মামুন তার সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে স্কুলে ঢুকে প্রধান শিক্ষককে হুমকি-ধমকি দিয়ে গেছে।

সূত্র জানায়, উপবৃত্তির টাকা দেয়ার জন্য ঘোলদাড়ী বাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে রোববার ছাত্রীদের অভিভাবকদের মোবাইলে বিকাশের অ্যাকাউন্ট খোলার কাজ চলছিল। মামুন স্কুলের এক ছাত্রীর মামা পরিচয়ে অভিভাবক হিসেবে দুপুরে স্কুলে আসে এবং ছাত্রীর পিতার সই নিজে করতে চাইলে স্কুলের সহকারী শিক্ষক (কৃষি) জাল সইয়ে বাধা দেন। তিনি বলেন, যিনি সই দেবেন তাকেই আসতে হবে। এর পরই ক্ষিপ্ত হয়ে শিক্ষক সিহাবের কান বরাবর চড় বসিয়ে দেন মামুন। এতে শিক্ষক মাটিতে পড়ে যান। জানতে চাইলে শিক্ষক সিহাব শাহরী জানান, ‘থাপ্পড়ের পর থেকে আমি কানে শুনতে পাচ্ছি না। মনে হচ্ছে কানের পর্দা ফেটে গেছে। তাই চিকিৎসা নিতে খুলনায় যাচ্ছি।’ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল হামিদ জানান, ‘ঘটনার পর ওই দিন সন্ধ্যায় আমরা আলমডাঙ্গা থানায় মামুনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছি। কিন্তু মামুন তার সাঙ্গপাঙ্গ দিয়ে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে এবং থানা থেকে অভিযোগ তুলে নিতে হুমকি দিচ্ছে।’ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি প্রফেসর শাহাবুল হক জানান, ‘মামুন হোসেন যে কাজ করেছে তা অত্যন্ত অন্যায়। প্রধান শিক্ষক থানায় অভিযোগ করেছেন। আমরা এর সুষ্ঠু বিচার চাই।’ আলমডাঙ্গা থানার ওসি মুন্সী আসাদুজ্জামান যুগান্তরকে জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর থেকে অভিযুক্ত মামুনকে পুলিশ খুঁজছে। সে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। তাকে পেলেই গ্রেফতার করা হবে।’

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×