মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটির সংবাদ সম্মেলন

অনুসারীদের ওপর তাণ্ডব বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৯ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রামের রাউজানে অনুসারীদের ওপর স্থানীয় একটি গোষ্ঠীর হামলা, বাড়িঘর ও ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান ভাংচুর বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটির নেতারা। তারা হাজার হাজার ঘরছাড়া মানুষের জান-মালের নিরাপত্তা চেয়েছেন। এসব ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দৃষ্টি দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে যুব তবলীগ কমিটির কেন্দ্রীয় পরিষদের নেতারা এসব দাবি জানান। এতে লিখিত বক্তব্য দেন কমিটির কেন্দ্রীয় পরিষদের সহ-সভাপতি ও বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ফেডারেশনের সহ-সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আবুল মনছুর।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনাকে ইস্যু করে গত এপ্রিল মাসে সারা রাউজানে শুরু হওয়া নারকীয় তাণ্ডবলীলায় পুরো এলাকা অশান্ত জনপদে পরিণত হয়েছে। মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটিকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতিপক্ষ হিসেবে দাঁড় করানোর চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। অথচ মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটির সঙ্গে সম্পৃক্ত অধিকাংশ লোকজন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী। কিছু দুষ্কৃতকারী বোল পাল্টে নিজস্ব স্বার্থসিদ্ধির জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্যের নিজস্ব বাহিনীর ছত্রছায়ায় এসব ভাংচুরসহ বিশৃঙ্খলা করে আসছে। রাউজান জুড়ে মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটির তরিকতের অনুসারীদের ওপর এমন নির্যাতন চালানো হচ্ছে। এসব হামলা ক্ষয়ক্ষতির পরিসংখ্যান তুলে ধরে তিনি বলেন, এ পর্যন্ত রাউজানজুড়ে ২৬টি তরিকতের খানকাহ্ (এবাদতখানা), ৪৬টির বেশি বাড়িঘর ও ১৮টির বেশি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা করে। এতে ভাংচুর, চাঁদাবাজি ও ক্ষয়-ক্ষতির আনুমানিক পরিমাণ ৬ কোটি ৩ লাখ টাকা। তিনি এসব হামলা বন্ধ এবং কাগতিয়া দরবার শরিফ ও কাগতিয়া এশাতুল উলুম কামিল এমএ মাদ্রাসার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি কামনা করেন। তিনি বলেন, রাউজানের ঘরছাড়া মানুষরা নিরাপদ জীবন ফিরে পেতে চান। এবাদ০তখানা, বাড়ি-ঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর, লুটপাট ও চাঁদাবাজির সুষ্ঠু তদন্ত চান। যারা ধর্মীয় কলহ সৃষ্টির মাধ্যমে সরকারের উজ্জ্বল ভাবমূর্তিকে ক্ষুণ্ণ করার জঘন্য ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয় তাদের এসব কার্যক্রম বন্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণে প্রধানমন্ত্রী ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ সরওয়ার কামাল, মুনিরীয়া যুব তবলীগের কেন্দ্রীয় পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক ছিবগাতুল্লাহ আরিফ, ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মুহাম্মদ শহিদুল আলম, ঢাকা জেলার এশায়াত সম্পাদক মাওলানা রাকিব উদ্দীন প্রমুখ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×