শাজাহানপুরে চাকু ধরে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ

৩৬ দিন পর মামলা

প্রকাশ : ১৫ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  বগুড়া ব্যুরো

শাজাহানপুর উপজেলায় শিশু শ্রেণির এক ছাত্রীকে (৬) চাকু ধরে হত্যার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। মেয়ের খেলার সঙ্গীকে ধর্ষণ করায় শাজাহানপুর থানায় দুলাল মিয়া (৪০) নামে ভ্যান চালকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

নির্যাতিত শিশুর মা ৩৬ দিন পর রোববার এ মামলা করেছেন। এদিন বিকালে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট খালিদ হাসান খান ২২ ধারায় ওই শিশুর জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

এজাহার সূত্র জানায়, ভ্যান চালক দুলাল মিয়া উপজেলার বিহিগ্রাম পূর্বপাড়ার মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে। ৮ জুন বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে শিশুটি প্রতিবেশী দুলাল মিয়ার মেয়ের সঙ্গে খেলার জন্য তাদের বাড়িতে যায়। এ সময় দুলালের স্ত্রী ও মেয়ে বাড়িতে ছিল না। ওই শিশু বাড়িতে ফিরে যেতে চাইলে দুলাল তাকে ধরে ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে।

ব্যথায় শিশু কান্নাকাটি করলে গলায় চাকু ধরে ও কাউকে জানালে হত্যা করার ভয় দেখায়। পরে শিশুটি বাড়ি ফিরে পেট ব্যথা করছে বলে কান্নাকাটি করতে থাকে। এরপর তাকে বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেয়া হয়। এর কয়েকদিন পর সে তার চাচিকে ধর্ষণের কথা জানায়।

৩৬ দিন পর মামলা কেন এমন প্রশ্নের উত্তরে শিশুর স্বজনরা জানান, তারা সম্মানের ভয়ে এতদিন নীরব ছিলেন। মামলা না করলে অপরাধী রেহাই পাবে ও সে আবারও অপরাধ করবে। তাই এতদিন পর আইনের আশ্রয় নিলেন।

শাজাহানপুর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ জানান, ধর্ষণের মামলা নেয়া হয়েছে। আসামি গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। ডাক্তারি

পরীক্ষার জন্য শিশুটিকে আজ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠনো হবে।