খুলনার থানায় গণধর্ষণ

ওসি উছমানসহ পাঁচ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা

  খুলনা ব্যুরো ১১ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

খুলনার জিআরপি (রেলওয়ে) থানায় এক নারীকে গণধর্ষণের অভিযোগে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উছমান গণি পাঠানসহ পাঁচ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। নির্যাতনের শিকার নারী বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে জিআরপি থানায় মামলাটি করেন। শনিবার রেলওয়ে পুলিশের তদন্ত কমিটির প্রধান ও কুষ্টিয়া সার্কেলের এএসপি ফিরোজ আহমেদ এ তথ্য জানান।

এএসপি ফিরোজ বলেন, তদন্ত কমিটিকে ৭ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। তবে সময় আরও বাড়ানো হতে পারে। নির্যাতনের শিকার নারীকে বৃহস্পতিবার দুপুরে জিজ্ঞাসাবাদ করে তদন্ত কমিটি। জিজ্ঞাসাবাদের পরই আদালতের নির্দেশে ওসি উছমান গণিসহ পাঁচ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। ভুক্তভোগী নারী নিজেই মামলাটি করেছেন। গণধর্ষণের ঘটনায় ৬ আগস্ট তদন্ত শুরু করেন এএসপি ফিরোজের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি। কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন- পুলিশ পরিদর্শক শম কামাল হোসেইন ও মো. বাহারুল ইসলাম। তদন্তের স্বার্থে এবং দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে ওসি উছমান গণি পাঠান ও এসআই নাজমুল হককে থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তবে, এএসআই গৌতম কুমার মণ্ডলসহ অন্যরা বহাল তবিয়তে রয়েছেন।

২ আগস্ট যশোর থেকে ট্রেনে খুলনায় আসার পথে তিন সন্তানের জননী (৩০) নারীকে আটক করে খুলনা জিআরপি থানা পুলিশ। ওই নারীর অভিযোগ, মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগ দিয়ে তাকে আটক করা হয়। ওই দিন রাতে থানা হাজতে ওসিসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য তাকে মারধর ও ধর্ষণ করে। পরদিন তাকে পাঁচ বোতল ফেনসিডিলসহ গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। ৪ আগস্ট খুলনার অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইফুজ্জামানের আদালতে ওই নারী বলেন, থানা হেফাজতে তাকে মারধর ও গণধর্ষণ করা হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×