এক পরিবারে সংঘর্ষ

ঈশ্বরগঞ্জে বাবা-ছেলে ও ভাতিজা খুন

  ময়মনসিংহ ব্যুরো ও ঈশ্বরগঞ্জ প্রতিনিধি ১৫ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ঈশ্বরগঞ্জে একই পরিবারের দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে বাবা-ছেলে ও ভাতিজা খুন হয়েছেন। পোলট্রি খামারের দুর্গন্ধ নিয়ে বুধবার সকালে উপজেলার কাঠাল ডাংরী গ্রামে এ সংঘর্ষ হয়। নিহতরা হলেন- উপজেলার কাঠাল ডাংরী গ্রামের কৃষক হাসিম উদ্দিন (৭০), তার ছেলে জহিরুল ইসলাম (২৫) ও হাসিম উদ্দিনের ভাই আবদুর রশিদের ছেলে আজিবুল (৩৫)। হাসিম উদ্দিনের দুই ছেলে মাজাহারুল ইসলাম (২০) ও খায়রুল ইসলামকে (২৩) প্রথমে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে, পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সংঘর্ষে এক পরিবারের তিনজনের মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। নিহতদের পরিবারে চলছে শোকের মাতম। খবর পেয়ে ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি, জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান, পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএ নেওয়াজী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় নিহতদের পরিবারের সদস্যরা হামলায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি আহমেদ কবীর হোসেন ও স্থানীয়রা জানান, দুই সহোদর হাসিম উদ্দিন ও আবদুর রশিদের মধ্যে পারিবারিক দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। বাড়ির পাশে স্থাপিত হাসিম উদ্দিনের পোলট্রি ফার্মের দুর্গন্ধ ছড়ানো নিয়ে বড় ভাই আবদুর রশিদ ও তার ছেলেদের সঙ্গে গত ২ মাস আগে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে দুই পরিবারের সদস্যদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর আগে স্থানীয় মসজিদের টিনের চালে আবদুর রশিদের নাতি ওঠাকে কেন্দ্র করে দুই পরিবারে বাকবিতণ্ডা হয়। এ দ্বন্দ্ব মামলা পর্যন্ত গড়ায়। এসব কোন্দল মেটাতে বুধবার সকালে দুই পরিবারের সদস্যদের মধ্যে সালিশ বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আবদুর রশিদের ছেলে আজিবুলের সঙ্গে হাসিম উদ্দিনের ছেলে জহিরুলের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে আজিবুল ও তার ৭-৮ সহযোগী রাম দা, কোবা ও লাঠিসোটা নিয়ে হাসিম উদ্দিন ও তার তিন ছেলের ওপর হামলা চালায়। এতে ঘটনাস্থলেই হাসিম উদ্দিনের ছেলে জহিরুল ইসলাম নিহত হন। গুরুতর আহত হাসিম উদ্দিনকে হাসপাতালে নিলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে রক্তাক্ত অবস্থায় ঈশ্বরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে আবদুর রশিদের ছেলে আজিবুল মারা যান। ময়নাতদন্তের জন্য লাশগুলো ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন জানান, হামলার ঘটনাস্থল থেকে আবদুর রশিদের মেয়ের স্বামী রুবেলকে আটক করা হয়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় তদন্ত চলছে। জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করা হবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×