কর্মবিরতিতে অচল বিসিসি : বেড়েছে নাগরিক দুর্ভোগ

  বরিশাল ব্যুরো ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বকেয়া বেতন ও প্রভিডেন্ট ফান্ডের অর্থ বরাদ্দের দাবিতে অষ্টম দিনের মতো কর্মবিরতি ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। সোমবার আন্দোলনকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সকাল থেকে সিটি মেয়রের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন এবং থেমে থেমে বিক্ষোভ করেন। তারা বিসিসির বিভিন্ন দফতরে অবস্থান নেয়া কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বের করে দেন। দ্রুত বকেয়া বেতন পরিশোধ না হলে আগামী মাসে (মার্চ) কর্মবিরতির পাশাপাশি ধর্মঘটসহ কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারি দেন বিসিসি’র কর নির্ধারক ও আন্দোলনকারীদের অন্যতম নেতা কাজী মোয়াজ্জেম হোসেন।

এদিকে টানা ৮ দিন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সব দাফতরিক কাজকর্ম বন্ধ থাকায় পুরোপুরি অচল হয়ে পড়েছে নগর ভবন। সাধারণ মানুষ বিভিন্ন নাগরিক সেবা পেতে নগর ভবনে গিয়ে কাজ সম্পন্ন করতে না পেরে নিরাশ হয়ে ফিরে যাচ্ছেন। কর্মকর্তা-কর্মচারীরা জানান, বিসিসির স্থায়ী চাকরিজীবীরা সর্বশেষ জানুয়ারিতে গত বছরের আগস্টের বেতন পেয়েছেন। সে হিসাবে এখনই তাদের ৫ মাসের বেতন বকেয়া পড়ে। অপরদিকে দৈনন্দিন মজুরিভিত্তিক কর্মচারীদের ৪ মাসের বেতন বকেয়া হয়েছে। বেতন বকেয়া পড়ায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মানবেতর জীবনযাপন করতে হচ্ছে। বকেয়া বেতন এবং প্রভিডেন্ট ফান্ডের অর্থ বরাদ্দ না পাওয়া পর্যন্ত কাজে না ফেরার কথা জানিয়েছেন আন্দোলনকারীদের নেতারা। শনিবার মেয়রের সঙ্গে আন্দোলনকারীদের সমঝোতা বৈঠক নিষ্ফল হওয়ার পর বিসিসির সচিব মো. ইসরাইল হোসেন ফের সমঝোতা বৈঠকের উদ্যোগ নিয়েছেন। বরিশাল সিটি কর্পোরেশনে স্থায়ী ও অস্থায়ী মিলিয়ে প্রায় ২ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন।

pran
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

mans-world

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.