ইবি ছাত্রলীগের কমিটিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা

ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ * টাকার বিনিময়ে গঠিত কমিটি বাতিলের দাবি

  ইবি প্রতিনিধি ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ছাত্রলীগ

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ এবং সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছেন পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। রোববার দেড় শতাধিক নেতাকর্মী বিক্ষোভ মিছিল করেন।

পরে দলীয় টেন্টে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন তারা। অনৈতিক অর্থ লেনদেনের মাধ্যমে কেন্দ্র থেকে নেতা হয়ে আসার অভিযোগে তাদেরকে ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ সকাল ১০টায় যশোর থেকে কুষ্টিয়া যাওয়ার পথে অভিনন্দন জানাতে প্রধান ফটকে অবস্থান নেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। মাহবুবউল আলম হানিফ বিশ্ববিদ্যালয় অতিক্রম করলে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করেন তারা। মিছিলে নেতৃত্ব দেন শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক তৌকির মাহফুজ মাসুদ, সাবেক সাংগঠনিক শিশির ইসলাম বাবু, সাবেক ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান লালন, সাবেক সহ-সম্পাদক ফয়সাল সিদ্দীকি আরাফাত, সাবেক উপবন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক জুবায়ের হোসেনসহ সাবেক নেতাকর্মী। এ সময় তারা ‘চল্লিশ লাখের কমিটি মানি না, মানব না, ‘প্রশাসনের পকেট কমিটি মানি না, মানব না, ‘টাকায় কেনা কমিটি মানি না, মানব নাসহ নানা স্লোগান দেয়। মিছিল শেষে দলীয় টেন্টে সমাবেশে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ এবং সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন বিদ্রোহীরা।

মিছিল-পরবর্তী বিক্ষোভ সমাবেশে পলাশ-রাকিবকে মোটা অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে নেতা হয়ে আসার অভিযোগ করেন নেতারা। এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে নেতারা বলেন, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কমিটি বিপুল পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে কিনে আনা হয়েছে। অর্থ বাণিজ্যের অডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এতে ইবি ছাত্রলীগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হচ্ছে।

বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় এ বিষয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। ছাত্রলীগের একটি গুরুত্বপূর্ণ শাখা ইবি। আমরা আশা করি কেন্দ্রীয় কমিটি অতিদ্রুত ইবির কমিটি বাতিল ঘোষণা করে ছাত্রলীগ কর্মীদের আস্থাভাজন নেতা নির্বাচন করবেন। এর আগে শনিবার রাত ১১টার দিকে ছাত্রলীগের সদ্য দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে অভিনন্দন জানিয়ে আনন্দ মিছিল করেন নেতাকর্মীরা।

দীর্ঘ আট মাস কার্যক্রম স্থগিত থাকার পর ১৪ জুলাই ইংরেজি বিভাগের রবিউল ইসলাম পলাশকে সভাপতি এবং ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের রাকিবুল ইসলামকে সাধারণ সম্পাদক করে নতুন কমিটি দেয় কেন্দ্র। কমিটির দু’মাস পার হতেই সাধারণ সম্পাদক রাকিবের বিরুদ্ধে মোটা অঙ্কের টাকা খরচ করে নেতা হওয়ার অভিযোগ ওঠে।

এ সংক্রান্ত একটি অডিও ক্লিপ যুগান্তরের হাতে আসে। কথোপকথনে উঠে কমিটিতে নেতা বানাতে রাব্বানীর নির্দেশে রাকিব আঞ্চলিক দায়িত্ব পালন করে থাকেন। একই সঙ্গে তার নেতা হওয়ার জন্য ৪০ লাখ টাকা খরচের বিষয়টিও প্রকাশ পায়। এরপর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হয় তুমুল সমালোচনা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×