এখনই ব্যবস্থা নেয়ার তাগিদ: সৌদি থেকে নিঃস্ব হয়ে ফিরলেন ১৭৫ কর্মী

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নিঃস্ব

সৌদি আরবের ধরপাকড়ের শিকার হয়ে দেশে ফিরেছেন ১৭৫ প্রবাসী কর্মী। তাদের অভিযোগ, বৈধ কাগজপত্র থাকার পরও সৌদি প্রশাসন তাদের গ্রেফতার করে দেশে ফেরত পাঠিয়েছে।

রোববার রাত ১১টা ৭ মিনিটে সৌদি এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসেন তারা। খালি হাতে ফেরা এসব কর্মীর কারও ছিল খালি পা, কেউ আবার কর্মস্থলের পোশাক পরেই বিমানে উঠেছেন। সঙ্গে কিছুই আনতে পারেননি। ভুক্তভোগীরা বলেন, বাংলাদেশ সরকার এখনই ব্যবস্থা না নিলে ভবিষ্যতে এ সমস্যা বড় আকার ধারণ করবে।

এদিকে বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাকের মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের হেড শরীফুল হাসান জানান, ফেরত আসা শ্রমিকদের ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের সহযোগিতায় ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম থেকে বিমানবন্দরে খাবার সরবরাহসহ নিরাপদে বাড়ি পৌঁছানোর জন্য জরুরি সহায়তা দেয়া হচ্ছে। ফিরে আসা কর্মীরা জানান, সৌদি প্রশাসন প্রতিদিন শত শত বিদেশি কর্মী গ্রেফতার করছে। রিয়াদ ডিপোর্টেশন ক্যাম্পে এখনও এক হাজার কর্র্মী রয়েছেন। যাদের গ্রেফতার করা হচ্ছে তাদের অনেকেরই বৈধ কাগজপত্র রয়েছে। তারপরও সৌদি প্রশাসন তাদের দেশে ফেরত পাঠাচ্ছে।

ফেরত আসা চাঁদপুরের বাবুল হোসেন বলেন, সৌদিতে ৬ মাসের বৈধ আকামা (কাজের অনুমতিপত্র) থাকার পরও কর্মস্থল থেকে তাকে ধরে নিয়ে যায় প্রশাসন। পরে তাকে দেশে পাঠিয়ে দেয়া হয়। তার কোনো কথাই শোনেনি সে দেশের প্রশাসন। শুধু বাবুল নন, টাঙ্গাইলেল আলিম ও মনির হোসেন, নরসিংদীর মো. জোবাইর, লক্ষ্মীপুরের ফরিদ, মুন্সীগঞ্জের শরিফ হোসেন ও মেহেরপুরের সেলিম রেজাসহ অনেকের অভিযোগ, তাদেরও বৈধ আকামা ছিল।

তবুও গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়। সেখান থেকে দেশ পাঠিয়ে দেয়া হয়। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, অনেক ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে, মালিকপক্ষ আকামা নবায়ন করেনি বা তা বাতিল করে কর্মীদের দেশে পাঠিয়ে দিচ্ছে। এক্ষেত্রে সৌদি আরবে বাংলাদেশ দূতাবাস তাদের সহযোগিতা করেনি।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×