ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি ট্রেজারারসহ পাঁচ পদ ফাঁকা

  তন্ময় তপু, বরিশাল ব্যুরো ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

দীর্ঘ পাঁচ মাস ধরে ভিসি না থাকায় অস্থিরতা বিরাজ করছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে। এতদিন ট্রেজারার ভিসির রুটিন দায়িত্ব পালন করলেও তার মেয়াদও শেষ হয়ে যাওয়ায় এখন এ পদটিও ফাঁকা রয়েছে। পাশাপাশি ট্রেজারারের পক্ষ-বিপক্ষ থাকায় পাঁচ মাস ধরে স্বয়ংসম্পূর্ণভাবে কার্যক্রম চলেনি বিশ্ববিদ্যালয়ের- এমনটাই দাবি অনেকের। যে কারণে বর্তমানে এ পদ শূন্য থাকায় বেশ দৈন্যদশার মধ্যে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী থেকে শুরু করে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। ইতিমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক ১ম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। কেন না, ভর্তি পরীক্ষা পরিচালনার জন্য অর্থ দরকার। কিন্তু যার হাতে আর্থিক ক্ষমতা থাকার কথা সেই পদই শূন্য রয়েছে। তাই যেদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থিক ক্ষমতাধর ব্যক্তি যোগ দেবেন সেদিনই নিশ্চিত হওয়া যাবে কবে নাগাদ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন ও ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) ভর্তি পরীক্ষা ২০১৯-২০ কোর কমিটির সদস্য অধ্যাপক ড. মুহসীন উদ্দীন জানান, আর্থিক ক্ষমতা না থাকায় ভর্তি পরীক্ষা সাময়িক স্থগিত করা হয়েছে। যেদিন আর্থিক ক্ষমতা পাওয়া যাবে সেদিন সিদ্ধান্ত নেয়া হবে কবে ভর্তি পরীক্ষা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি আরিফ হোসেন বলেন, ভিসি ও ট্রেজারার না থাকায় ১৮ অক্টোবর থেকে ভর্তি পরীক্ষা শুরু করা যাচ্ছে না।

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসিসহ পাঁচটি শূন্য পদ হল- প্রোভিসি, ট্রেজারার, রেজিস্ট্রার ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে পাঁচ মাস আগে সরে যেতে হয় তৎকালীন ভিসি এসএম ইমামুল হককে। পরে ওই পদে রুটিন দায়িত্ব দেয়া হয় ট্রেজারার একেএম মাহাবুবকে। ২০১৫ সালে যোগ দেয়া ট্রেজারারের মেয়াদও শেষ হয় ৭ অক্টোবর। ওইদিন তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এরপরেই পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ফজলুল হকের মেয়াদ শেষ হলে ট্রেজারারের সঙ্গে তিনিও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিদায় নেন।

রেজিস্ট্রার পদ শূন্য রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে। আর বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্মলগ্ন থেকেই প্রোভিসি পদ খালি রয়েছে।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর মিয়া বলেন, ভিসি না থাকায় ইতিমধ্যে ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। এটা আমাদের জন্য অসুবিধার। ভিসি, ট্রেজারার, রেজিস্ট্রার ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক না থাকায় একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রমে ব্যাঘাত ঘটছে। দ্রুত এসব পদ পূরণ না হলে বিশ্ববিদ্যালয়ে বড় সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×