শিগগিরই মেঘালয়ের কয়লা বাংলাদেশে রফতানি শুরু হবে
jugantor
ময়মনসিংহে মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী
শিগগিরই মেঘালয়ের কয়লা বাংলাদেশে রফতানি শুরু হবে

  ময়মনসিংহ ব্যুরো  

০৯ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সৌহার্দ্য বৃদ্ধি ও ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে উভয় দেশ কাজ করছে বলে জানিয়েছেন ভারতের মেঘালয় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমা। তিনি বলেছেন, ২০০৪ সাল থেকে আইনি জটিলতায় মেঘালয় থেকে বাংলাদেশে কয়লা রফতানি বন্ধ। যা খুব শিগগিরই চালু করা হবে। তিনি ভাতৃপ্রতিম দু’দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক জোরদারে মিলেমিশে কাজ করার আহ্বান জানান।

শুক্রবার বিকেলে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন ও দুর্গাবাড়ি মন্দির পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপে মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমা এ কথা বলেন। এ সময় মেঘালয় রাজ্যের শিল্প ও বাণিজ্য সচিব মেবানশাই আর সিনরেম, পরিকল্পনা সচিব ড. বিজয় কুমার ডি, ভৌগোলিক ও খনিজসম্পদ সচিব ড. মানজুয়ান্তাসহ ভারতীয় হাইকমিশনের কর্মকর্তারা, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী আনোয়ার হোসেন, নির্বাহী প্রকৌশলী রফিকুল ইসলামসহ জনপ্রতিনিধি ও সুশীল সমাজের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। পরে সিটি কর্পোরেশনের শাহাব উদ্দিন মিলনায়তনে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় যোগ দেন। দুপুরে ঢাকা থেকে সড়কপথে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনে পৌঁছলে তাকে ফুলেল সংবর্ধনা ও সিটি কর্পোরেশেনের পক্ষ থেকে মেঘালয় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে সোনার নৌকা উপহার দেয়া হয়। পরে সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটুর সঙ্গে দ্বি-পাক্ষিক বৈঠক ছাড়াও দুর্গাবাড়ি মন্দির পরিদর্শন এবং সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

ময়মনসিংহে মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী

শিগগিরই মেঘালয়ের কয়লা বাংলাদেশে রফতানি শুরু হবে

 ময়মনসিংহ ব্যুরো 
০৯ নভেম্বর ২০১৯, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সৌহার্দ্য বৃদ্ধি ও ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে উভয় দেশ কাজ করছে বলে জানিয়েছেন ভারতের মেঘালয় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমা। তিনি বলেছেন, ২০০৪ সাল থেকে আইনি জটিলতায় মেঘালয় থেকে বাংলাদেশে কয়লা রফতানি বন্ধ। যা খুব শিগগিরই চালু করা হবে। তিনি ভাতৃপ্রতিম দু’দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক জোরদারে মিলেমিশে কাজ করার আহ্বান জানান।

শুক্রবার বিকেলে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন ও দুর্গাবাড়ি মন্দির পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপে মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমা এ কথা বলেন। এ সময় মেঘালয় রাজ্যের শিল্প ও বাণিজ্য সচিব মেবানশাই আর সিনরেম, পরিকল্পনা সচিব ড. বিজয় কুমার ডি, ভৌগোলিক ও খনিজসম্পদ সচিব ড. মানজুয়ান্তাসহ ভারতীয় হাইকমিশনের কর্মকর্তারা, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী আনোয়ার হোসেন, নির্বাহী প্রকৌশলী রফিকুল ইসলামসহ জনপ্রতিনিধি ও সুশীল সমাজের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। পরে সিটি কর্পোরেশনের শাহাব উদ্দিন মিলনায়তনে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় যোগ দেন। দুপুরে ঢাকা থেকে সড়কপথে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনে পৌঁছলে তাকে ফুলেল সংবর্ধনা ও সিটি কর্পোরেশেনের পক্ষ থেকে মেঘালয় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে সোনার নৌকা উপহার দেয়া হয়। পরে সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটুর সঙ্গে দ্বি-পাক্ষিক বৈঠক ছাড়াও দুর্গাবাড়ি মন্দির পরিদর্শন এবং সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।