যশোরে বধ্যভূমিতে শ্রদ্ধা নিবেদনে প্রশাসনের বাধার অভিযোগ

  যশোর ব্যুরো ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

শ্রদ্ধা নিবেদনের নির্ধারিত সময় সকাল ৯টা। তার আগেই অনেকে বধ্যভূমিতে সমাবেত হন। এ সময় তারা শ্রদ্ধা নিবেদন করতে গেলে বাধা দেয় পুলিশ প্রশাসনের সদস্যরা। বলা হয়, জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের শ্রদ্ধা নিবেদনের আগে কাউকে সুযোগ দেয়া হয়নি। পুলিশের এমন আচরণে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মুক্তিযোদ্ধা, চিকিৎসক, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ও বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতারা। শনিবার সকালে যশোর শহরের চাঁচড়া বধ্যভূমিতে এ ঘটনা ঘটেছে। মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড যশোর সদর উপজেলার সাবেক ডেপুটি কমান্ডার আফজাল হোসেন দোদুল বলেন, জেলা প্রশাসনের আগে কাউকে ফুল দেয়া যাবে না- এ রকম করা ঠিক হয়নি। যে যখন আসবে সে তখন ফুল দিয়ে যাবে। আর যখন প্রশাসন আসবে তখন তাদের অগ্রাধিকার দেয়া যেতে পারে। যশোর পুলিশের মুখপাত্র মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, জেলা প্রশাসনের সভায় সিদ্ধান্ত সকাল ৯টায় শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। জেলা প্রশাসনের কার্ডেও লেখা আছে। বধ্যভূমিতে দায়িত্বে থাকা পুলিশ সদস্যরা জেলা প্রশাসনের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করেছে। এখানে বাধা দেয়ার কথা নয়।

জেলা প্রশাসক শফিউল আরিফ সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘সকাল ৯টার আগে বধ্যভূমিতে কাউকে ফুল দিতে দেয়া হয়নি অথবা কেউ ফিরে গেছেন এটা জানা নেই। তবে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালনে জেলা প্রশাসক আয়োজিত প্রস্তুতি সভায় সম্মিলিত সিদ্ধান্ত ছিল সকাল ৯টায় বধ্যভূমিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হবে।’

যশোর সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক সানোয়ার আলম খান দুলু বলেন, সকাল ৯টার আগে বধ্যভূমিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানো যাবে না এমন কোনো নির্দেশনার কথা জানা ছিল না। আমরা সাড়ে ৮টার দিকে ফুল দিতে গেলে পুলিশ ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করে। সাংস্কৃতিককর্মীরা এটাকে ইতিবাচক দৃষ্টিতে দেখছে না। এ রকম একটি জাতীয় দিবসে প্রশাসনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা ঠিক নয়। বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন যশোর শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. আবুল বাশার বলেন, আমরা যশোর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ, যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কসহ ৫০-৬০ চিকিৎসক সকাল সাড়ে ৮টার মধ্যে বধ্যভূমিতে চলে যাই। কিন্তু পুলিশের বাধায় সময়মতো শ্রদ্ধা জানাতে ব্যর্থ হই।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

 
×