শেষ হল বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র বিমান বাহিনীর অনুশীলন
jugantor
শেষ হল বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র বিমান বাহিনীর অনুশীলন

   

০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ও যুক্তরাষ্ট্রের প্যাসিফিক এয়ার ফোর্সের অংশগ্রহণে যৌথ অনুশীলন বৃহস্পতিবার শেষ হয়েছে। বিমান বাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধুতে ছয় দিনব্যাপী এ অনুশীলন চলে। এতে সেনাবাহিনীর প্যারা কমান্ডো ব্রিগেডের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মুহসিন আলমের নেতৃত্বে ১৪৭ জন প্যারা কমান্ডো সদস্যও অংশ নেন। মূলত আপদকালীন এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলার পাশাপাশি বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর পরিবহন বিমানগুলোর সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করা এর উদ্দেশ্য। অনুশীলনে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর দুটি সি-১৩০ পরিবহন বিমান এবং প্যাসিফিক এয়ার ফোর্সের দুটি সি-১৩০ পরিবহন বিমান অংশ নেয়। উভয় বাহিনীর মধ্যে আন্তঃসক্ষমতা বাড়ানো, প্রশিক্ষণ বিনিময়, প্রশিক্ষণকালীন ব্যবহৃত বিভিন্ন যন্ত্রপাতির কার্য উপযোগিতা মূল্যায়ন এবং তার উন্নত ব্যবহারের পরামর্শ গ্রহণ করা হয়। ভবিষ্যতে এ কার্যক্রম বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর যে সব যন্ত্রপাতির প্রয়োজন হবে তা নির্ণয় এবং পরিবহন বিমানের উন্নত রক্ষণাবেক্ষণের বিষয়ে গুরুত্ব পেয়েছে। এ অনুশীলনে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর মোট ২০০ জন এবং মার্কিন বিমান বাহিনীর ৭০ জন সদস্য অংশ নেন। সমাপনী অনুষ্ঠানে সহকারী বিমান বাহিনী প্রধান (পরিচালন) এয়ার ভাইস মার্শাল মো. আবুল বাশার প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন। অনুষ্ঠানে বিমান সদরের এয়ার অপারেশন্স পরিচালক এয়ার কমান্ডার এটিএম হাবিবুর রহমান বক্তব্য রাখেন। তিনি সাংবাদিকদের যৌথ অনুশীলন সম্পর্কে ব্রিফ করেন। এছাড়াও অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই অঙ্গরাজ্যে অবস্থিত জয়েন্ট বেইজ পার্ল হারবার-হিক্যাম, সদর দফতরের ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডেভিড গ্লেন সুমেকার, যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস ও প্যাসিফিক এয়ার ফোর্সের জ্যেষ্ঠ সামরিক এবং বেসামরিক কর্মকর্তা ও মহড়ায় অংশগ্রহণকারী বিমান বাহিনীর কর্মকর্তা ছাড়াও তিন বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। আইএসপিআর।

শেষ হল বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র বিমান বাহিনীর অনুশীলন

  
০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ও যুক্তরাষ্ট্রের প্যাসিফিক এয়ার ফোর্সের অংশগ্রহণে যৌথ অনুশীলন বৃহস্পতিবার শেষ হয়েছে। বিমান বাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধুতে ছয় দিনব্যাপী এ অনুশীলন চলে। এতে সেনাবাহিনীর প্যারা কমান্ডো ব্রিগেডের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মুহসিন আলমের নেতৃত্বে ১৪৭ জন প্যারা কমান্ডো সদস্যও অংশ নেন। মূলত আপদকালীন এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলার পাশাপাশি বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর পরিবহন বিমানগুলোর সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করা এর উদ্দেশ্য। অনুশীলনে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর দুটি সি-১৩০ পরিবহন বিমান এবং প্যাসিফিক এয়ার ফোর্সের দুটি সি-১৩০ পরিবহন বিমান অংশ নেয়। উভয় বাহিনীর মধ্যে আন্তঃসক্ষমতা বাড়ানো, প্রশিক্ষণ বিনিময়, প্রশিক্ষণকালীন ব্যবহৃত বিভিন্ন যন্ত্রপাতির কার্য উপযোগিতা মূল্যায়ন এবং তার উন্নত ব্যবহারের পরামর্শ গ্রহণ করা হয়। ভবিষ্যতে এ কার্যক্রম বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর যে সব যন্ত্রপাতির প্রয়োজন হবে তা নির্ণয় এবং পরিবহন বিমানের উন্নত রক্ষণাবেক্ষণের বিষয়ে গুরুত্ব পেয়েছে। এ অনুশীলনে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর মোট ২০০ জন এবং মার্কিন বিমান বাহিনীর ৭০ জন সদস্য অংশ নেন। সমাপনী অনুষ্ঠানে সহকারী বিমান বাহিনী প্রধান (পরিচালন) এয়ার ভাইস মার্শাল মো. আবুল বাশার প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন। অনুষ্ঠানে বিমান সদরের এয়ার অপারেশন্স পরিচালক এয়ার কমান্ডার এটিএম হাবিবুর রহমান বক্তব্য রাখেন। তিনি সাংবাদিকদের যৌথ অনুশীলন সম্পর্কে ব্রিফ করেন। এছাড়াও অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই অঙ্গরাজ্যে অবস্থিত জয়েন্ট বেইজ পার্ল হারবার-হিক্যাম, সদর দফতরের ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডেভিড গ্লেন সুমেকার, যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস ও প্যাসিফিক এয়ার ফোর্সের জ্যেষ্ঠ সামরিক এবং বেসামরিক কর্মকর্তা ও মহড়ায় অংশগ্রহণকারী বিমান বাহিনীর কর্মকর্তা ছাড়াও তিন বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। আইএসপিআর।