করোনার অর্থনৈতিক ক্ষতি মোকাবেলা

বিশ্বব্যাংকের ১৬ হাজার কোটি ডলারের তহবিল

আগামী দেড় বছরে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোকে এ সহায়তা দেবে সংস্থাটি * গত সপ্তাহে ১,৪০০ কোটি ডলারের জরুরি সহায়তা অনুমোদন দিয়েছে বিশ্বব্যাংক

  যুগান্তর ডেস্ক ৩০ মার্চ ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

করোনাভাইরাস মহামারীতে সৃষ্ট বিশ্ব অর্থনীতির ক্ষতি প্রশমনে ১৬০ বিলিয়ন বা ১৬ হাজার কোটি ডলারের সহায়তা তহবিল চূড়ান্ত করেছে বিশ্বব্যাংক। আগামী দেড় বছরের মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোকে এ সহায়তা দেবে সংস্থাটি। গত সপ্তাহে এ তহবিল চূড়ান্ত করেছে বিশ্বব্যাংক।

এক বিবৃতিতে বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ডেভিড ম্যালপাস জানান, বিস্তৃত অর্থনৈতিক প্রভাব ঠেকাতে আমরা বাড়তি একটি ত্রাণ তহবিল চূড়ান্তের দিকে এগোচ্ছি। করোনাভাইরাসের নেতিবাচক প্রভাবের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এ পদক্ষেপগুলো গ্রহণ করছে ব্যাংকটি।

তিনি জানান, বিশ্বব্যাংক পরিচালনা পর্ষদে একটি প্যাকেজ প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়েছে, যেখানে আগামী ১৫ মাসে ১৬ হাজার কোটি ডলারের আর্থিক সহায়তা দেয়ার কথা বলা হয়েছে। গত সপ্তাহে ১ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের জরুরি সহায়তা ঘোষণা করা হয়েছে, যা করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশু স্বাস্থ্য ও সামাজিক প্রভাব মোকাবেলায় ব্যয় করা হবে।

সংস্থাটি জানিয়েছে, এ সহায়তা তহবিল আক্রান্ত দেশগুলোর ক্ষয়ক্ষতির মাত্রা অনুযায়ী দেয়া হবে। এছাড়া নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোর দারিদ্র্যবিমোচন, সামাজিক সুরক্ষা এবং কাঠামোগত সংস্কারগুলোকে সমর্থন করার নীতিভিত্তিক পরিকল্পনা এ অর্থায়নে বিবেচনা করা হবে। এক্ষেত্রে দ্রুত ক্ষতি থেকে পুনরুদ্ধার এবং টেকসই প্রবৃদ্ধির বিষয় বিবেচনায় নেয়া হবে।

বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জোর দিয়ে বলেন, ভারতের মতো দরিদ্র, গণবসতিপূর্ণ দেশগুলো নিয়ে আমি বিশেষভাবে উদ্বিগ্ন, যাদের স্বাস্থ্যসেবা খাত খুবই দুর্বল এবং যেখানে মানবসম্পদ, সরবরাহ ও অবকাঠামো খাতে বিশালাকার বিনিয়োগ আবশ্যক।

বিশ্বের ৫৬টি দেশে যে কোভিড সংক্রান্ত প্রকল্পগুলো এগোচ্ছে, সেদিকে ইঙ্গিত করে বহুজাতিক উন্নয়ন ব্যাংকগুলো যাতে বিশ্বব্যাংককে সহযোগিতায় এগিয়ে আসে, সে আহ্বান করেন ম্যালপাস। ২৪টি দেশে চলমান প্রকল্পগুলো জরুরি স্বাস্থ্যসেবা খাতে পুনর্গঠনের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। চলমান সংকট মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক সহযোগিতা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন ম্যালপাস।

এদিকে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের প্রভাবে বিপর্যস্ত নিম্ন ও মধ্য আয়ের দেশগুলোর অর্থনৈতিক ক্ষতি পুষিয়ে নিতে জরুরি ভিত্তিতে ১ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের সহায়তা তহবিল সম্প্রতি অনুমোদন দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। সংস্থাটির প্রেসিডেন্ট ডেভিড ম্যালপাস এক বিবৃতিতে বলেন, এ তহবিল করোনা মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী ও তাদের কর্মীদের অর্থনৈতিক সংকট কাটাতে সাহায্য করবে। এ সংকট মোকাবেলায় সদস্য উন্নয়নশীল দেশগুলোর চাহিদার আলোকে দ্রুত এবং নমনীয় প্রক্রিয়ায় সহায়তা করতে কাজ করে যাচ্ছি। জরুরি আর্থিক সহায়তার পাশাপাশি নীতি সহায়তা, কারিগরি সহায়তা ছাড়াও সম্ভাব্য অন্যান্য সহায়তা করা হবে। বিশ্বব্যাংক জানিয়েছে, জরুরি এই সহায়তা ঋণ ও অনুদান আকারে নিম্ন ও মধ্য আয়ের দেশগুলোকে দেয়া হবে। সদস্য দেশগুলোর এই ক্ষতিরোধে সম্ভাব্য কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এই জরুরি সহায়তা দেয়া হবে। প্রথম ধাপে ৮০০ কোটি ডলার দ্রুত বিতরণ করা হবে। সদস্য দেশগুলোর স্বাস্থ্য ব্যবস্থা শক্তিশালী করা, মহামারী প্রতিরোধ ব্যবস্থা, জনস্বাস্থ্যের উন্নতিসহ অর্থনীতির ক্ষতিরোধে বেসরকারি খাতের সঙ্গেও কাজ করবে বিশ্বব্যাংক। এর মধ্যে করোনা মোকাবেলায় সক্ষমতা বাড়াতে বিশ্বব্যাংকের কাছে ১০ কোটি ডলারের সহায়তা চেয়েছে বাংলাদেশ সরকার, যা স্থানীয় মুদ্রায় ৮৫০ কোটি টাকা। গত সপ্তাহে সহায়তার সেই প্রস্তাব বিশ্বব্যাংকের কাছে পাঠিয়েছে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি)।

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত