উজিরপুরে স্কুলছাত্রী ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ধর্ষক গ্রেফতার
jugantor
উজিরপুরে স্কুলছাত্রী ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ধর্ষক গ্রেফতার

  বরিশাল ব্যুরো ও উজিরপুর প্রতিনিধি  

১৬ মে ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বরিশালের উজিরপুরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণের ঘটনায় অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বুধবার ওই নাবালিকা ছাত্রীর মা বাদী হয়ে ধর্ষককে আসামি করে উজিরপুর মডেল থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন। অভিযুক্ত ধর্ষক আগুন বালীকে (২১) বুধবার বিকালে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির করলে তাকে বরিশাল জেলহাজতে পাঠান আদালত। আগুন বালী উপজেলার শোলক ইউনিয়নের কচুয়া গ্রামের ইদ্রিছ বালীর ছেলে। উজিরপুর মডেল থানার ওসি জিয়াউল আহসান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মামলার বরাত দিয়ে ওসি জানান, অভিযুক্ত আগুন বালী কচুয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া ছাত্রীকে বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে অশ্লীল ভিডিও পাঠায় ও কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে ছাত্রী রাজি না হওয়ায় আগুন বালী তাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেয়। ৭ মাস আগে ছাত্রীর বাবা-মা বাড়িতে না থাকার সুযোগে তাদের ঘরে ঢুকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এরপর ছাত্রী তাকে বিয়ের কথা বললেই আগুন টালবাহানা শুরু করে এবং ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য ছাত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। দিনে দিনে ছাত্রীর শরীরের অবস্থার অবনতি দেখে মা আকলিমা বিষয়টি জানার চেষ্টা করলে ছাত্রী ওই লম্পটের সব অপকর্ম মায়ের কাছে স্বীকার করে। বিষয়টি জানার পর ছাত্রীর পরিবার অসহায় হয়ে পড়ে। উপায়ন্তর না পেয়ে অসহায় ছাত্রীর মা আকলিমা বেগম বাদী হয়ে বুধবার উজিরপুর মডেল থানায় মামলা করেন। উজিরপুর মডেল থানার এসআই মাহাবুব হোসেন বিকালে অভিযুক্ত ধর্ষক আগুন বালীকে গ্রেফতার করে এবং ভিকটিমকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জিয়াউল আহসান জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ইতোমধ্যে ধর্ষককে গ্রেফতার করে বরিশাল জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ওই ছাত্রীকে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির জন্য আদালতে পাঠানো হলে বিচারক তার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শেবাচিম হাসপাতালে পাঠান।

উজিরপুরে স্কুলছাত্রী ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ধর্ষক গ্রেফতার

 বরিশাল ব্যুরো ও উজিরপুর প্রতিনিধি 
১৬ মে ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বরিশালের উজিরপুরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণের ঘটনায় অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বুধবার ওই নাবালিকা ছাত্রীর মা বাদী হয়ে ধর্ষককে আসামি করে উজিরপুর মডেল থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন। অভিযুক্ত ধর্ষক আগুন বালীকে (২১) বুধবার বিকালে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির করলে তাকে বরিশাল জেলহাজতে পাঠান আদালত। আগুন বালী উপজেলার শোলক ইউনিয়নের কচুয়া গ্রামের ইদ্রিছ বালীর ছেলে। উজিরপুর মডেল থানার ওসি জিয়াউল আহসান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মামলার বরাত দিয়ে ওসি জানান, অভিযুক্ত আগুন বালী কচুয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া ছাত্রীকে বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে অশ্লীল ভিডিও পাঠায় ও কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে ছাত্রী রাজি না হওয়ায় আগুন বালী তাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেয়। ৭ মাস আগে ছাত্রীর বাবা-মা বাড়িতে না থাকার সুযোগে তাদের ঘরে ঢুকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এরপর ছাত্রী তাকে বিয়ের কথা বললেই আগুন টালবাহানা শুরু করে এবং ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য ছাত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। দিনে দিনে ছাত্রীর শরীরের অবস্থার অবনতি দেখে মা আকলিমা বিষয়টি জানার চেষ্টা করলে ছাত্রী ওই লম্পটের সব অপকর্ম মায়ের কাছে স্বীকার করে। বিষয়টি জানার পর ছাত্রীর পরিবার অসহায় হয়ে পড়ে। উপায়ন্তর না পেয়ে অসহায় ছাত্রীর মা আকলিমা বেগম বাদী হয়ে বুধবার উজিরপুর মডেল থানায় মামলা করেন। উজিরপুর মডেল থানার এসআই মাহাবুব হোসেন বিকালে অভিযুক্ত ধর্ষক আগুন বালীকে গ্রেফতার করে এবং ভিকটিমকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জিয়াউল আহসান জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ইতোমধ্যে ধর্ষককে গ্রেফতার করে বরিশাল জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ওই ছাত্রীকে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির জন্য আদালতে পাঠানো হলে বিচারক তার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শেবাচিম হাসপাতালে পাঠান।