ঈদে কারাবন্দিদের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না স্বজনরা
jugantor
ঈদে কারাবন্দিদের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না স্বজনরা

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৩ মে ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে দেশের কারাগারগুলোতে বন্দিদের সঙ্গে তাদের পরিবারের সদস্যদের সাক্ষাৎ কার্যক্রম সীমিত করা হয়েছিল। এবার পবিত্র ঈদুল ফিতরেও স্বজনদের সঙ্গে বন্দিদের সাক্ষাৎ বন্ধ থাকবে। করোনার প্রভাব কমার আগ পর্যন্ত সাক্ষাৎ কার্যক্রম আর চালু হচ্ছে না। বিষয়টি নিশ্চিত করে কারা অধিদফতরের এআইজি মঞ্জুর হোসেন যুগান্তরকে বলেন, একদিনে গণপরিবহন বন্ধ, অন্যদিকে করোনা ঝুঁকি। এ দুই কারণে ঈদে বন্দিদের সঙ্গে তাদের স্বজনদের দেখা-সাক্ষাৎ বন্ধ আছে। করোনার প্রকোপ কমা না পর্যন্ত দেখা-সাক্ষাৎ বন্ধ থাকবে। ঈদ উপলক্ষে কারাগারগুলোর পক্ষ থেকে বন্দিদের জন্য উন্নতমানের খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।কারা সূত্র জানায়, করোনার প্রকোপের শুরুতেই মার্চের শেষের দিকে দেশের ৬৮ কারাগারে বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ সীমিত করে মাসে ১ দিন করা হয়েছিল। তবে এপ্রিলের শুরুতে সাক্ষাৎ বন্ধ করে দেয় কারা কর্তৃপক্ষ। কারা অধিদফতর সূত্র জানায়, কারাগারে বন্দি ও কারারক্ষী মিলে এ পর্যন্ত ৪৬ জন করোনায় আক্রান্ত আছেন। বন্দি ও কারারক্ষী মিলে কোয়ারেন্টিনে আছেন ২৮০ জন। কারা সূত্র জানায়, করোনার সংক্রমণ এড়াতে কারাগারে সব বন্দির বারবার হাত ধোয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। শুক্রবার পর্যন্ত দেশের কারাগারগুলোতে ৭৬ হাজার ১৪ বন্দি অবস্থান করছিলেন বলে কারা অধিদফতরের সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়।

ঈদে কারাবন্দিদের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না স্বজনরা

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৩ মে ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে দেশের কারাগারগুলোতে বন্দিদের সঙ্গে তাদের পরিবারের সদস্যদের সাক্ষাৎ কার্যক্রম সীমিত করা হয়েছিল। এবার পবিত্র ঈদুল ফিতরেও স্বজনদের সঙ্গে বন্দিদের সাক্ষাৎ বন্ধ থাকবে। করোনার প্রভাব কমার আগ পর্যন্ত সাক্ষাৎ কার্যক্রম আর চালু হচ্ছে না। বিষয়টি নিশ্চিত করে কারা অধিদফতরের এআইজি মঞ্জুর হোসেন যুগান্তরকে বলেন, একদিনে গণপরিবহন বন্ধ, অন্যদিকে করোনা ঝুঁকি। এ দুই কারণে ঈদে বন্দিদের সঙ্গে তাদের স্বজনদের দেখা-সাক্ষাৎ বন্ধ আছে। করোনার প্রকোপ কমা না পর্যন্ত দেখা-সাক্ষাৎ বন্ধ থাকবে। ঈদ উপলক্ষে কারাগারগুলোর পক্ষ থেকে বন্দিদের জন্য উন্নতমানের খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।কারা সূত্র জানায়, করোনার প্রকোপের শুরুতেই মার্চের শেষের দিকে দেশের ৬৮ কারাগারে বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ সীমিত করে মাসে ১ দিন করা হয়েছিল। তবে এপ্রিলের শুরুতে সাক্ষাৎ বন্ধ করে দেয় কারা কর্তৃপক্ষ। কারা অধিদফতর সূত্র জানায়, কারাগারে বন্দি ও কারারক্ষী মিলে এ পর্যন্ত ৪৬ জন করোনায় আক্রান্ত আছেন। বন্দি ও কারারক্ষী মিলে কোয়ারেন্টিনে আছেন ২৮০ জন। কারা সূত্র জানায়, করোনার সংক্রমণ এড়াতে কারাগারে সব বন্দির বারবার হাত ধোয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। শুক্রবার পর্যন্ত দেশের কারাগারগুলোতে ৭৬ হাজার ১৪ বন্দি অবস্থান করছিলেন বলে কারা অধিদফতরের সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়।