বজ্রপাতে আটজনের প্রাণহানি

ঝড়ে বসতঘর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ব্যাপক ক্ষতি

  যুগান্তর ডেস্ক ২৯ মে ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিভিন্ন স্থানে বজ্রপাতে আটজনের মৃত্যু হয়েছে। গত মঙ্গল ও বুধবার শিবগঞ্জ, ধামইরহাট, মীরসরাই, নালিতাবাড়ী, মাধবপুর, মুলাদী ও সুন্দরগঞ্জে কালবৈশাখী ঝড়ের সময় বজ্রপাতে এসব প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। এদিকে ঝড়ে বসতঘর, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মসজিদ, বিদ্যুতের পিলার ও গাছপালা বিধ্বস্ত হয়। যুগান্তর প্রতিনিধিরা জানান-

শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) : শিবগঞ্জের পারকৃঞ্চগোবিন্দপুর বিন্দুপাড়া গ্রামে বজ্রপাতে রুমালী খাতুন নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া সন্ধ্যায় রানিনগর হঠাৎপাড়ায় বজ্রপাতে মারা যান মামুন।

নওগাঁ : ধামইরহাটের অমরপুর গ্রামে বোনের বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে বজ্রপাতে আবু ইছা নামে যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় তার বোন মহিষা বেগম আহত হয়েছেন।

মীরসরাই (চট্টগ্রাম) : মীরসরাইয়ে বজ্রপাতে মোমেনা খাতুন নামে এক বৃদ্ধা নারীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি উপজেলার শেখেরতালুক গ্রামের শফিউল আলমের স্ত্রী।

শেরপুর : নালিতাবাড়ীর কিল্লাপাড়া গ্রামে তোফায়েল আলম নামে হাঁস খামারি বজ্রপাতে মারা গেছেন। তিনি ওই গ্রামের নজি ফকিরের ছেলে।

মাধবপুর (হবিগঞ্জ) : মাধবপুরে বজ্রপাতে অভিমান্ন সাঁওতাল নামে এক চা-শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় তার স্ত্রী অনিতা সাঁওতাল আহত হয়েছেন।

মুলাদী (বরিশাল) : মুলাদীর পশ্চিম চরভেদুরিয়া গ্রামে বজ্রপাতে আবদুল মন্নান হাওলাদার নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। মন্নান মৃত আছমত আলী হাওলাদারের ছেলে।

গাইবান্ধা : সুন্দরগঞ্জের চণ্ডিপুর ইউনিয়নে তিস্তা নদীর চরে বজ্রপাতে আবদুল মমিন মিয়া নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। এদিকে চররাঘব গ্রামে বজ্রপাতে ৬টি গরু মারা যায়।

লালমোহন (ভোলা) : লালমোহনে ঝড়ে ২ শতাধিক ঘরবাড়ি লণ্ডভণ্ড হয়েছে। আহত হয়েছেন পাঁচজন। ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য বৃহস্পতিবার ত্রাণ নিয়ে ছুটে যান এমপি নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন।

ভোলা ও চরফ্যাশন : লালমোহন ও চরফ্যাশনে দেড় শতাধিক ঘর ঝড়ে বিধ্বস্ত হয়েছে।

কচুয়া (চাঁদপুর) : কচুয়ায় ঝড়ে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে ঘরবাড়ি ও গাছপালা।

নিয়ামতপুর (নওগাঁ) : ঈদের দিন নিয়ামতপুরে ঝড়োবৃষ্টিতে বিধ্বস্ত হয়েছে শত শত ঘরবাড়ি।

আমতলী (বরগুনা) : ঝড়ে আমতলীতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ অর্ধশতাধিক ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) : হাতিয়ার সোনাদিয়া ইউনিয়নে ঝড়ে চারটি গ্রামের শতাধিক কাচা বসতবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। এ সময় বজ্রপাতে শিশুসহ চারজন আহত হয়েছে।

কাউখালী (পিরোজপুর) : কাউখালীতে ঝড়ে শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে।

ক্ষেতলাল (জয়পুরহাট) : ক্ষেতলালে টর্নেডোর আঘাতে তিন অটোরাইস মিল ও পোলট্র্রি অ্যান্ড হ্যাচারি লণ্ডভণ্ড হয়েছে। একই মালিকের পাঁচটি মুরগির শেড ভেঙে প্রায় ৪৩ হাজার ডিমের মুরগি মারা গেছে।

মনপুরা (ভোলা) : মনপুরায় ঝড়ে ৪ ইউনিয়নের শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে।

ঝালকাঠি : ঝালকাঠিতে ঝড়ে বিদ্যালয় ও মসজিদসহ শতাধিক বসতঘর বিধ্বস্ত হয়েছে।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত