ঈদের এক সপ্তাহ পরও ক্রেতাশূন্য শপিংমল

  যুগান্তর রিপোর্ট ০২ জুন ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ঈদের এক সপ্তাহ পর সীমিত আকারে রাজধানীর শপিংমল ও বিপণি বিতান খোলা থাকলেও তা জমেনি। সব শপিংমলই ছিল প্রায় ক্রেতাশূন্য। ঈদের আগে কিছুটা বেচাবিক্রি হলেও ঈদের পর থেকে দোকান কর্মচারীরা অলস সময় পার করছেন। ক্রেতা না থাকায় মালিক ও কর্মচারীরা দুপুরের দিকে দোকান বন্ধ করে বাসায় ফিরে যাচ্ছেন। অনেককে আবার দোকান ধোয়ামোছা করে প্রস্তুতি নিতে দেখা যায়। সোমবার সরেজমিন রাজধানীর এলিফেন্ট রোড, নিউমার্কেট, সদরঘাট ও পাটুয়াটুলী ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে।

দুপুর দেড়টার দিকে রাজধানীর সদরঘাটের প্রায় প্রত্যেকটি শপিংমল এবং ছোট-বড় পোশাকের পাইকারি ও খুচরা দোকান খোলা দেখা গেলেও ক্রেতার উপস্থিতি ছিল কম। তবে লঞ্চে আসা কিছু যাত্রীকে চলতি পথে শপিং করতে দেখা গেল। এ সময় কথা হয় সদরঘাট হকার্স মার্কেটের জননী প্যান্ট হাউজের মালিক মো. মামুনের সঙ্গে। তিনি যুগান্তরকে বলেন, গত দুই মাসে ব্যবসার অনেক ক্ষতি হয়ে গেছে। তাই নিজের ও ক্রেতার সুরক্ষাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের পর প্রায় সব দোকান ও শপিংমল খোলা থাকলেও ক্রেতা নেই। তাই দোকানের মালপত্র সাজানো ও ধোয়ামোছার কাজই করছি। তবে ক্রেতা যা আসছেন তার বেশির ভাগ লঞ্চ যাত্রী। রাজধানীর পাটুয়াটুলীতে দোকানিদের নিজ উদ্যোগে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকান খুলতে দেখা যায়। সেখানকার ভাই ভাই ওয়াচ কোংয়ের মালিক ও ঘড়ি আমদানিকারক এবং পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতা ইব্রাহিম যুগান্তরকে বলেন, এখানকার প্রায় সব দোকানদার স্বাস্থ্যবিধি মেনে বেচাবিক্রির প্রস্তুতি নিয়েছেন। যারা দোকান খুলেছেন সেখানে ক্রেতা নেই। রাজধানীর নিউমার্কেট গিয়ে দেখা গেল মার্কেটটি প্রায় ক্রেতাশূন্য। তবে মার্কেটে ঢোকার পথে তাপমাত্রা মাপা ও জীবাণুনাশক স্প্রে হাতে নিরাপত্তাকর্মীদের সতর্ক অবস্থায় দেখা গেল। কেনাকাটা করতে আসা মকবুল হোসেন যুগান্তরকে বলেন, দেড় বছরের একটি ছেলে আছে। ছেলেটা বড় হওয়ায় আগের জামাগুলো ছোট হয়ে গেছে। ফলে নতুন পোশাক জরুরি হয়ে পড়েছে। পার্শ্ববর্তী চাঁদনিচক মার্কেট খুললেও প্রধান সড়ক ঘেঁষা বেশিরভাগ দোকানই বন্ধ দেখা যায়।

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত