১৪ দিনের আইসোলেশনে লোহাগড়া পৌরবাসী
jugantor
সংসদ সদস্য মাশরাফির নির্দেশনা
১৪ দিনের আইসোলেশনে লোহাগড়া পৌরবাসী

  লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি  

০৯ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রেড জোনের আওতাভুক্ত নড়াইলের লোহাগড়া পৌরবাসীকে ১৪ দিনের আইসোলেশনে থাকার নির্দেশনা বুধবার বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে।

জানা যায়, লোহাগড়া পৌরসভা এলাকায় দুই দফায় লকডাউন ঘোষণা করা হলেও তা জনসাধারণ পালন না করায় করোনা আক্রান্তের হার বৃদ্ধি পায়। ফলে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি মর্তুজার নির্দেশনায় উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামী লীগ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উদ্যোগে বুধবার পৌরবাসীকে ১৪ দিনের আইসোলেশনে থাকার কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

সরেজমিন দেখা যায়, পৌরসভা এলাকায় প্রবেশের ১৪টি পয়েন্টে নড়াইল জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি পুলিশ), লোহাগড়া থানা পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবক সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন। তারা শহরে আগত মানুষজনকে বাড়িতে থাকার জন্য অনুরোধ করছেন। লোহাগড়া বাজার ও লক্ষ্মীপাশা বাজার কমিটির নেতার অনুরোধে সকালেই বাজারের ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দিয়েছেন। শহরের তিন চাকার যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউই ঘর থেকে বের হচ্ছেন না। স্থানীয়রা পৌর এলাকায় বেশ কয়েকটি প্রবেশ পয়েন্টে বাঁশের ব্যারিকেড দিয়ে এলাকা সুরক্ষার চেষ্টা চালাচ্ছেন। করোনা প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মুন্সী আলাউদ্দিন বলেন, করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য গঠিত কমিটির সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন।

সংসদ সদস্য মাশরাফির নির্দেশনা

১৪ দিনের আইসোলেশনে লোহাগড়া পৌরবাসী

 লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি 
০৯ জুলাই ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রেড জোনের আওতাভুক্ত নড়াইলের লোহাগড়া পৌরবাসীকে ১৪ দিনের আইসোলেশনে থাকার নির্দেশনা বুধবার বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে।

জানা যায়, লোহাগড়া পৌরসভা এলাকায় দুই দফায় লকডাউন ঘোষণা করা হলেও তা জনসাধারণ পালন না করায় করোনা আক্রান্তের হার বৃদ্ধি পায়। ফলে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি মর্তুজার নির্দেশনায় উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামী লীগ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উদ্যোগে বুধবার পৌরবাসীকে ১৪ দিনের আইসোলেশনে থাকার কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

সরেজমিন দেখা যায়, পৌরসভা এলাকায় প্রবেশের ১৪টি পয়েন্টে নড়াইল জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি পুলিশ), লোহাগড়া থানা পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবক সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন। তারা শহরে আগত মানুষজনকে বাড়িতে থাকার জন্য অনুরোধ করছেন। লোহাগড়া বাজার ও লক্ষ্মীপাশা বাজার কমিটির নেতার অনুরোধে সকালেই বাজারের ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দিয়েছেন। শহরের তিন চাকার যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউই ঘর থেকে বের হচ্ছেন না। স্থানীয়রা পৌর এলাকায় বেশ কয়েকটি প্রবেশ পয়েন্টে বাঁশের ব্যারিকেড দিয়ে এলাকা সুরক্ষার চেষ্টা চালাচ্ছেন। করোনা প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মুন্সী আলাউদ্দিন বলেন, করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য গঠিত কমিটির সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন।