ভালুকায় বাস থেকে ফেলে যাত্রী হত্যা
jugantor
ভালুকায় বাস থেকে ফেলে যাত্রী হত্যা

  ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২৯ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ময়মনসিংহের ভালুকায় ভাড়া নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে বাস থেকে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে যাত্রী মনির হোসেনকে (২৮) হত্যার অভিযোগ উঠেছে। রোববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের জামিরদিয়া স্কয়ার মাস্টারবাড়ি এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। ঢাকা ভরাডোবা হাইওয়ে ফাঁড়ি পুলিশ বাসটি আটক করেছে। তবে চালক, কন্ডাক্টর ও হেলপার পলাতক।

নিহত মনির উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের জামিরদিয়া গ্রামের মো. আবুল বাসারের একমাত্র ছেলে। ঘটনার দিন মনির তার বন্ধু মাহবুলকে নিয়ে মাওনা থেকে গৌরীপুরগামী তাহসিন পরিবহনে উঠেন। পথিমধ্যে ভাড়া নিয়ে বাসের কন্ডাক্টরের সঙ্গে তার কথাকাটাকাটি হয়। জামিরদিয়া আইডিয়াল মোড়ে মনির বাস থেকে নামতে চাইলে কন্ডাক্টর ও হেলপার তাকে বাস থেকে নামতে দেয়নি। বাসটি স্কয়ার মাস্টারবাড়ি পৌঁছলে তাকে ধাক্কা দিয়ে বাস থেকে ফেলে দেয়া হয়। এ সময় সেখানে দাঁড়িয়ে থাকা অপর বাসের সঙ্গে ধাক্কা লেগে তিনি গুরুতর আহত হন। উদ্ধার করে প্রথমে তাকে মাওনা, পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।

এরপর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সোমবার দুপুর ২টার দিকে তিনি মারা যান। মাওনার গরগড়িয়া মাস্টারবাড়ি এলাকায় মনির ঠিকাদারি কাজ করতেন।

মঙ্গলবার বেলা ২টার দিকে ময়নাতদন্ত শেষে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মনিরের লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে। এদিকে, খবর পেয়ে ভরাডোবা হাইওয়ে ফাঁড়ি পুলিশ বাসটি সিডস্টোর এলাকা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় আটক করে। হাইওয়ে ফাঁড়র এসআই হাদিউল ইসলাম জানান, মনিরের পরিবারের পক্ষথকে এখনও কেউ মামলা করতে আসেনি।

ভালুকায় বাস থেকে ফেলে যাত্রী হত্যা

 ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২৯ জুলাই ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ময়মনসিংহের ভালুকায় ভাড়া নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে বাস থেকে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে যাত্রী মনির হোসেনকে (২৮) হত্যার অভিযোগ উঠেছে। রোববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের জামিরদিয়া স্কয়ার মাস্টারবাড়ি এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। ঢাকা ভরাডোবা হাইওয়ে ফাঁড়ি পুলিশ বাসটি আটক করেছে। তবে চালক, কন্ডাক্টর ও হেলপার পলাতক।

নিহত মনির উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের জামিরদিয়া গ্রামের মো. আবুল বাসারের একমাত্র ছেলে। ঘটনার দিন মনির তার বন্ধু মাহবুলকে নিয়ে মাওনা থেকে গৌরীপুরগামী তাহসিন পরিবহনে উঠেন। পথিমধ্যে ভাড়া নিয়ে বাসের কন্ডাক্টরের সঙ্গে তার কথাকাটাকাটি হয়। জামিরদিয়া আইডিয়াল মোড়ে মনির বাস থেকে নামতে চাইলে কন্ডাক্টর ও হেলপার তাকে বাস থেকে নামতে দেয়নি। বাসটি স্কয়ার মাস্টারবাড়ি পৌঁছলে তাকে ধাক্কা দিয়ে বাস থেকে ফেলে দেয়া হয়। এ সময় সেখানে দাঁড়িয়ে থাকা অপর বাসের সঙ্গে ধাক্কা লেগে তিনি গুরুতর আহত হন। উদ্ধার করে প্রথমে তাকে মাওনা, পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।

এরপর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সোমবার দুপুর ২টার দিকে তিনি মারা যান। মাওনার গরগড়িয়া মাস্টারবাড়ি এলাকায় মনির ঠিকাদারি কাজ করতেন।

মঙ্গলবার বেলা ২টার দিকে ময়নাতদন্ত শেষে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মনিরের লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে। এদিকে, খবর পেয়ে ভরাডোবা হাইওয়ে ফাঁড়ি পুলিশ বাসটি সিডস্টোর এলাকা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় আটক করে। হাইওয়ে ফাঁড়র এসআই হাদিউল ইসলাম জানান, মনিরের পরিবারের পক্ষথকে এখনও কেউ মামলা করতে আসেনি।