বরগুনায় স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন
jugantor
বরগুনায় স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

  যুগান্তর রিপোর্ট, বরগুনা  

১৪ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে খুনের ভয় দেখিয়ে গণধর্ষণ মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন ও দু’জন নাবালককে ১০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানার আদেশ দিয়েছেন। জরিমানার টাকা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা থাকবে। বৃহস্পতিবার বরগুনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হল বরগুনা জেলার তালতলী উপজেলা শহরের বারেক ডাক্তারের ছেলে আল আমীন, জাহাঙ্গীর খলিফার ছেলে নাবালক মেহেদী ও মংমংরীর ছেলে নাবালক উছেন। উছেন পলাতক রয়েছে।

অন্য আসামিরা রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিল। ২০১৭ সালে ২২ ফেব্রুয়ারি রাতে আসামিরা ওই ছাত্রীকে গণধর্ষণ করে।

এরপর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। তালতলী থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা গাজী ফজলুল হক তদন্ত শেষে তিন আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আসামি আল আমিন ও মেহেদী প্রায় দুই বছর জেলে আছে। উছেন পলাতক রয়েছে।

বরগুনায় স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

 যুগান্তর রিপোর্ট, বরগুনা 
১৪ আগস্ট ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে খুনের ভয় দেখিয়ে গণধর্ষণ মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন ও দু’জন নাবালককে ১০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানার আদেশ দিয়েছেন। জরিমানার টাকা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা থাকবে। বৃহস্পতিবার বরগুনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হল বরগুনা জেলার তালতলী উপজেলা শহরের বারেক ডাক্তারের ছেলে আল আমীন, জাহাঙ্গীর খলিফার ছেলে নাবালক মেহেদী ও মংমংরীর ছেলে নাবালক উছেন। উছেন পলাতক রয়েছে।

অন্য আসামিরা রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিল। ২০১৭ সালে ২২ ফেব্রুয়ারি রাতে আসামিরা ওই ছাত্রীকে গণধর্ষণ করে।

এরপর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। তালতলী থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা গাজী ফজলুল হক তদন্ত শেষে তিন আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আসামি আল আমিন ও মেহেদী প্রায় দুই বছর জেলে আছে। উছেন পলাতক রয়েছে।