শ্রীনগরে বন্যায় ঢাকা দোহার সড়কের বেহাল অবস্থা
jugantor
শ্রীনগরে বন্যায় ঢাকা দোহার সড়কের বেহাল অবস্থা

  শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৮ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শ্রীনগরে বন্যার পানির তোড়ে বিভিন্ন স্থান ভেঙে গিয়ে ঢাকা-দোহার সড়ক বেহাল অবস্থায় উপনীত হয়েছে। বন্যার পানি কমার সঙ্গে সঙ্গে সড়কের ভাঙা অংশগুলো ভেসে উঠেছে। উপজেলার জুশুরগাঁও, মাশুরগাঁও, শ্যামসিদ্ধি, কয়কীর্ত্তন, রাঢ়ীখাল, ভাগ্যকুল ও বাঘড়া এলাকায় সড়কের প্রায় অর্ধেকটাই বিলীন হয়ে গেছে।

সরেজমিন দেখা গেছে, প্রশাসন থেকে সড়কে ভারি যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞার সাইবোর্ড বসানো হলেও অনেকে তা মানছেন না। সড়কের পাটাভোগ এলাকার জশুরগাঁও, মাশুরগাঁও, শ্যামসিদ্ধির কয়কীর্ত্তণ, রাঢ়ীখালের দামলা, তিন দোকান, ভাগ্যকুল ও বাঘড়া এলাকার মধ্যবর্তী আল-আমিন বাজারসংলগ্ন স্থানে আন্তঃসড়কটির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এ এলাকা পদ্মা নদীর তীরবর্তী হওয়ায় বন্যার পানি ফুলে ফেঁপে রাস্তার ওপর দিয়ে তীব্র স্রোত প্রবাহিত হওয়ায় সড়কের বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্ত ও খাদের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে এই রুটে চলাচলরত যাত্রীবাহী বাসগুলো ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে সংলগ্ন পুরাতন ফেরিঘাটের মাশুরগাঁও থেকে ঢাকায় যাচ্ছে। অপর দিকে এ সড়কে সরাসরি বাস চলাচল বন্ধ থাকায় দোহার, নবাগঞ্জসহ শ্রীনগর উপজেলার পশ্চিম অঞ্চল বাঘড়া, ভাগ্যকুল, রাঢ়ীখাল, শ্যামসিদ্ধি, পাটাভোগ ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে। কয়েকটি উপজেলার সাধারণ মানুষ দ্রুত সড়ক সংস্কারের দাবি জানিয়েছে। এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তারা ফোন রিসিভ করেনি।

শ্রীনগরে বন্যায় ঢাকা দোহার সড়কের বেহাল অবস্থা

 শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৮ আগস্ট ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শ্রীনগরে বন্যার পানির তোড়ে বিভিন্ন স্থান ভেঙে গিয়ে ঢাকা-দোহার সড়ক বেহাল অবস্থায় উপনীত হয়েছে। বন্যার পানি কমার সঙ্গে সঙ্গে সড়কের ভাঙা অংশগুলো ভেসে উঠেছে। উপজেলার জুশুরগাঁও, মাশুরগাঁও, শ্যামসিদ্ধি, কয়কীর্ত্তন, রাঢ়ীখাল, ভাগ্যকুল ও বাঘড়া এলাকায় সড়কের প্রায় অর্ধেকটাই বিলীন হয়ে গেছে।

সরেজমিন দেখা গেছে, প্রশাসন থেকে সড়কে ভারি যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞার সাইবোর্ড বসানো হলেও অনেকে তা মানছেন না। সড়কের পাটাভোগ এলাকার জশুরগাঁও, মাশুরগাঁও, শ্যামসিদ্ধির কয়কীর্ত্তণ, রাঢ়ীখালের দামলা, তিন দোকান, ভাগ্যকুল ও বাঘড়া এলাকার মধ্যবর্তী আল-আমিন বাজারসংলগ্ন স্থানে আন্তঃসড়কটির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এ এলাকা পদ্মা নদীর তীরবর্তী হওয়ায় বন্যার পানি ফুলে ফেঁপে রাস্তার ওপর দিয়ে তীব্র স্রোত প্রবাহিত হওয়ায় সড়কের বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্ত ও খাদের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে এই রুটে চলাচলরত যাত্রীবাহী বাসগুলো ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে সংলগ্ন পুরাতন ফেরিঘাটের মাশুরগাঁও থেকে ঢাকায় যাচ্ছে। অপর দিকে এ সড়কে সরাসরি বাস চলাচল বন্ধ থাকায় দোহার, নবাগঞ্জসহ শ্রীনগর উপজেলার পশ্চিম অঞ্চল বাঘড়া, ভাগ্যকুল, রাঢ়ীখাল, শ্যামসিদ্ধি, পাটাভোগ ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে। কয়েকটি উপজেলার সাধারণ মানুষ দ্রুত সড়ক সংস্কারের দাবি জানিয়েছে। এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তারা ফোন রিসিভ করেনি।