শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু
jugantor
শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু

  লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ফের ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। নাব্য সংকটের কারণে টানা ৮ দিন বন্ধ থাকার পর শুক্রবার বিকাল পৌনে ৫টায় দু’ঘণ্টার জন্য ফেরি চলাচল করলেও তা আবার বন্ধ হয়ে যায়।

এরপর রোববার রাত সাড়ে ৯টায় ঘোষণা দিয়েই বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্টকালের জন্য এ নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয়। ফেরি বন্ধের দু’দিনের মাথায় মঙ্গলবার নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দিন চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব অনল চন্দ্র রায় ও বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান গোলাম সাদেক ও টিসির চেয়ারম্যান খাজা গিয়াস, ড্রেজিং বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী আবদুল মতিনসহ সংশ্লিষ্টরা প্রায় দুই ঘণ্টা এ নৌরুটের ড্রেজিং কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আপাতত ২৮ কিলোমিটার পথ পালের চরের চ্যানেল দিয়ে ফেরি চলাচল করবে।

তবে আমরা চেষ্টা করছি, লৌহজং দিয়ে ফেরি চালানো যায় কি না। তবে আশা করছি, আগামীকাল (আজ) থেকে এ চ্যানেলটি দিয়ে ফেরি চলাচল শুরু করতে পারব। এ ছাড়া বিকল্প পথ হাজরা চ্যানেল চালু করারও পরিকল্পনা আছে, তবে এটি অনেক সময় লাগবে।’ তবে জরুরি পরিষেবার গাড়িগুলো পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুট ব্যবহার করার জন্য তিনি অনুরোধ করেন। নৌ সচিবের ঘোষণার এক ঘণ্টা পরেই শিমুলিয়া ঘাট থেকে ক্যামিলিয়া নামের একটি কে-টাইপ ফেরি পালের চরের চ্যানেল দিয়ে কাঁঠালবাড়ীর উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু

 লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ফের ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। নাব্য সংকটের কারণে টানা ৮ দিন বন্ধ থাকার পর শুক্রবার বিকাল পৌনে ৫টায় দু’ঘণ্টার জন্য ফেরি চলাচল করলেও তা আবার বন্ধ হয়ে যায়।

এরপর রোববার রাত সাড়ে ৯টায় ঘোষণা দিয়েই বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্টকালের জন্য এ নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয়। ফেরি বন্ধের দু’দিনের মাথায় মঙ্গলবার নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দিন চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব অনল চন্দ্র রায় ও বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান গোলাম সাদেক ও টিসির চেয়ারম্যান খাজা গিয়াস, ড্রেজিং বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী আবদুল মতিনসহ সংশ্লিষ্টরা প্রায় দুই ঘণ্টা এ নৌরুটের ড্রেজিং কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আপাতত ২৮ কিলোমিটার পথ পালের চরের চ্যানেল দিয়ে ফেরি চলাচল করবে।

তবে আমরা চেষ্টা করছি, লৌহজং দিয়ে ফেরি চালানো যায় কি না। তবে আশা করছি, আগামীকাল (আজ) থেকে এ চ্যানেলটি দিয়ে ফেরি চলাচল শুরু করতে পারব। এ ছাড়া বিকল্প পথ হাজরা চ্যানেল চালু করারও পরিকল্পনা আছে, তবে এটি অনেক সময় লাগবে।’ তবে জরুরি পরিষেবার গাড়িগুলো পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুট ব্যবহার করার জন্য তিনি অনুরোধ করেন। নৌ সচিবের ঘোষণার এক ঘণ্টা পরেই শিমুলিয়া ঘাট থেকে ক্যামিলিয়া নামের একটি কে-টাইপ ফেরি পালের চরের চ্যানেল দিয়ে কাঁঠালবাড়ীর উদ্দেশে ছেড়ে যায়।