শাবি ছাত্রলীগের দুই নেতাকর্মীকে অপহরণ পরে উদ্ধার
jugantor
শাবি ছাত্রলীগের দুই নেতাকর্মীকে অপহরণ পরে উদ্ধার

  শাবি প্রতিনিধি  

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের উপ-দফতর সম্পাদক সজিবুর রহমান ও কর্মী তারেক হালিমকে অপহরণ নিয়ে ধূম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। তাদের উদ্ধারের পাশাপাশি সন্দেহভাজন একজনকে আটক করেছে জালালবাদ থানা পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন জালালাবাদ থানার ওসি অকিল উদ্দিন আহম্মদ। সজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান খানের অনুসারী ও তারেক হালিম ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিনের অনুসারী।

ওসি বলেন, সোমবার মধ্যরাতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের উপত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ইমরান আহমেদ উপ-দফতর সম্পাদক সজিবুর রহমান ও ছাত্রলীগ কর্মী তারেক হালিম নিখোঁজের ঘটনায় জালালাবাদ থানায় জিডি করেন। এ বিষয়ে ইমরান আহমেদ বলেন, ‘সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক থেকে সজিব ও তারেক বাসায় যায়। তার কিছুক্ষণ পর বাসায় ঢুকে পিস্তল দেখিয়ে তাদের সিএনজিতে করে তুলে নিয়ে যায় অপহরণকারীরা। পরে সিলেট ছাড়ার হুমকি দিয়ে সজিবকে ছেড়ে দেয় তারা। খবর পেয়ে রাতেই তারেক হালিমকে উদ্ধার করে পুলিশ। সন্দেহভাজন আটক ব্যক্তির নাম অভ্র কুমার দাশ। এছাড়া মুন্না কোরায়েশী নামে আরেকজনকে পুলিশ খুঁজছে।

শাবি ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিন বলেন, আমরা ঘটনাটি জানার পর প্রশাসনের শরণাপন্ন হয়েছি।

শাবি ছাত্রলীগের দুই নেতাকর্মীকে অপহরণ পরে উদ্ধার

 শাবি প্রতিনিধি 
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের উপ-দফতর সম্পাদক সজিবুর রহমান ও কর্মী তারেক হালিমকে অপহরণ নিয়ে ধূম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। তাদের উদ্ধারের পাশাপাশি সন্দেহভাজন একজনকে আটক করেছে জালালবাদ থানা পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন জালালাবাদ থানার ওসি অকিল উদ্দিন আহম্মদ। সজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান খানের অনুসারী ও তারেক হালিম ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিনের অনুসারী।

ওসি বলেন, সোমবার মধ্যরাতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের উপত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ইমরান আহমেদ উপ-দফতর সম্পাদক সজিবুর রহমান ও ছাত্রলীগ কর্মী তারেক হালিম নিখোঁজের ঘটনায় জালালাবাদ থানায় জিডি করেন। এ বিষয়ে ইমরান আহমেদ বলেন, ‘সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক থেকে সজিব ও তারেক বাসায় যায়। তার কিছুক্ষণ পর বাসায় ঢুকে পিস্তল দেখিয়ে তাদের সিএনজিতে করে তুলে নিয়ে যায় অপহরণকারীরা। পরে সিলেট ছাড়ার হুমকি দিয়ে সজিবকে ছেড়ে দেয় তারা। খবর পেয়ে রাতেই তারেক হালিমকে উদ্ধার করে পুলিশ। সন্দেহভাজন আটক ব্যক্তির নাম অভ্র কুমার দাশ। এছাড়া মুন্না কোরায়েশী নামে আরেকজনকে পুলিশ খুঁজছে।

শাবি ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিন বলেন, আমরা ঘটনাটি জানার পর প্রশাসনের শরণাপন্ন হয়েছি।