ভাঙ্গুড়ায় দু’গ্রুপের সংঘর্ষে বাবা-ছেলে নিহত
jugantor
ভাঙ্গুড়ায় দু’গ্রুপের সংঘর্ষে বাবা-ছেলে নিহত

  পাবনা প্রতিনিধি  

১৬ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভাঙ্গুড়া উপজেলার প্রত্যন্ত দাসবেলাই গ্রামে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে বাবা-ছেলে নিহত হয়েছে। সংঘর্ষে নারী-পুরুষসহ কমপক্ষে ১৭ জন আহত হয়েছে। একটি জলাশয় দখল নিয়ে পূর্ব বিরোধ এবং প্রতিপক্ষের এক গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দেয়ার জের ধরে বুধবার এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহতরা হল- তোরাব আলী (৭৫) ও তার ছেলে ফজলুর রহমান (৩৫)। তারা বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহী মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

এ ঘটনার জের ধরে সেখানে উত্তেজনা বিরাজ করছে। সংঘর্ষের ঘটনায় বুধবার রাতে ৪ ও বৃহস্পতিবার বাবা-ছেলের মৃত্যুর পর একজনকে গ্রেফতার করা হয়। প্রত্যক্ষদর্শী ও থানা সূত্র জানায়, ভাঙ্গুড়া উপজেলার খানমরিচ ইউনিয়নের দাসবেলাই গ্রামের মসজিদের পুকুর লিজ নেয়াকে কেন্দ্র করে আবদুল গফুর ও আবু জল গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে গত সপ্তাহে আবু জলের ছেলে মফিদুল ইসলাম আবদুল গফুরের পরিবারের এক গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দেয়। এ নিয়ে দু’গ্রুপের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে বুধবার দু’পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। আবদুল গফুর পরিবারের দাবি, এক গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দেয়ার প্রতিবাদ করায় আবু জল ও তার ছেলে তাদের ওপর হামলা চালালে সংঘর্ষ শুরু হয়।

ওই গৃহবধূ বুধবার ভাঙ্গুড়া থানায় মামলা করেন। অপরপক্ষ আবু জলের ছেলে মফিজুল জানায়, আগে ওরা হামলা করায় সংঘর্ষ বাধে। গৃহবধূকে উত্ত্যক্তের অভিযোগ ষড়যন্ত্রমূলক ও বানোয়াট। ভাঙ্গুড়া থানার ওসি আনোয়ার হোসেন গৃহবধূর করা মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে, পরিস্থিতি এখন শান্ত।

ভাঙ্গুড়ায় দু’গ্রুপের সংঘর্ষে বাবা-ছেলে নিহত

 পাবনা প্রতিনিধি 
১৬ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভাঙ্গুড়া উপজেলার প্রত্যন্ত দাসবেলাই গ্রামে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে বাবা-ছেলে নিহত হয়েছে। সংঘর্ষে নারী-পুরুষসহ কমপক্ষে ১৭ জন আহত হয়েছে। একটি জলাশয় দখল নিয়ে পূর্ব বিরোধ এবং প্রতিপক্ষের এক গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দেয়ার জের ধরে বুধবার এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহতরা হল- তোরাব আলী (৭৫) ও তার ছেলে ফজলুর রহমান (৩৫)। তারা বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহী মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

এ ঘটনার জের ধরে সেখানে উত্তেজনা বিরাজ করছে। সংঘর্ষের ঘটনায় বুধবার রাতে ৪ ও বৃহস্পতিবার বাবা-ছেলের মৃত্যুর পর একজনকে গ্রেফতার করা হয়। প্রত্যক্ষদর্শী ও থানা সূত্র জানায়, ভাঙ্গুড়া উপজেলার খানমরিচ ইউনিয়নের দাসবেলাই গ্রামের মসজিদের পুকুর লিজ নেয়াকে কেন্দ্র করে আবদুল গফুর ও আবু জল গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে গত সপ্তাহে আবু জলের ছেলে মফিদুল ইসলাম আবদুল গফুরের পরিবারের এক গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দেয়। এ নিয়ে দু’গ্রুপের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে বুধবার দু’পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। আবদুল গফুর পরিবারের দাবি, এক গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দেয়ার প্রতিবাদ করায় আবু জল ও তার ছেলে তাদের ওপর হামলা চালালে সংঘর্ষ শুরু হয়।

ওই গৃহবধূ বুধবার ভাঙ্গুড়া থানায় মামলা করেন। অপরপক্ষ আবু জলের ছেলে মফিজুল জানায়, আগে ওরা হামলা করায় সংঘর্ষ বাধে। গৃহবধূকে উত্ত্যক্তের অভিযোগ ষড়যন্ত্রমূলক ও বানোয়াট। ভাঙ্গুড়া থানার ওসি আনোয়ার হোসেন গৃহবধূর করা মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে, পরিস্থিতি এখন শান্ত।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন