আলোচিত দুই ধর্ষক এখনও অধরা
jugantor
কুমিল্লার দুই ধর্ষণ মামলা
আলোচিত দুই ধর্ষক এখনও অধরা

  কুমিল্লা ব্যুরো  

২০ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কুমিল্লায় আলোচিত দুই ধর্ষণ মামলার দুই আসামি এখনও গ্রেফতার হয়নি। ঘটনার প্রায় এক মাস হলেও জড়িতরা এখনও গ্রেফতার না হওয়ায় জনমনে ক্ষোভ বিরাজ করছে। নগরীর পদুয়ার বাজারে গণপরিবহনে এক তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত বাসের সুপারভাইজার আলমকে এখনও ধরতে পারেনি পুলিশ। সে কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার আটচাইল গ্রামের কবির মিয়ার ছেলে।

১৫ সেপ্টেম্বর পদুয়ার বাজার বাস স্ট্যান্ডে তিশা প্লাস পরিবহনের একটি বাসে ওই তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তরুণীর মা কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানায় মামলা করেন। এদিকে বরুড়ায় প্রতিবন্ধী এক তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত ইমাম হোসেন এখনও অধরা। এ ঘটনায় ধর্ষিতার বৃদ্ধ বাবার কাছ থেকে জোর করে স্বাক্ষর করানো খালি স্ট্যাম্পও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

উপজেলার লগ্নসার গ্রামের আবদুল কাদেরের ছেলে ইমাম হোসেন একই গ্রামের হতদরিদ্র মা-হারা ওই প্রতিবন্ধী তরুণীকে তার বাড়িতে ঢুকে বিভিন্ন সময়ে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ২৮ সেপ্টেম্বর ইমাম হোসেনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন তরুণীর বাবা। বরুড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইকবাল বাহার জানান, অভিযুক্ত ধর্ষককে গ্রেফতারে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তাকে গ্রেফতার করতে পারলেই খালি স্ট্যাম্পের ব্যাপারে বিস্তারিত জানা যাবে।

কুমিল্লার দুই ধর্ষণ মামলা

আলোচিত দুই ধর্ষক এখনও অধরা

 কুমিল্লা ব্যুরো 
২০ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কুমিল্লায় আলোচিত দুই ধর্ষণ মামলার দুই আসামি এখনও গ্রেফতার হয়নি। ঘটনার প্রায় এক মাস হলেও জড়িতরা এখনও গ্রেফতার না হওয়ায় জনমনে ক্ষোভ বিরাজ করছে। নগরীর পদুয়ার বাজারে গণপরিবহনে এক তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত বাসের সুপারভাইজার আলমকে এখনও ধরতে পারেনি পুলিশ। সে কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার আটচাইল গ্রামের কবির মিয়ার ছেলে।

১৫ সেপ্টেম্বর পদুয়ার বাজার বাস স্ট্যান্ডে তিশা প্লাস পরিবহনের একটি বাসে ওই তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তরুণীর মা কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানায় মামলা করেন। এদিকে বরুড়ায় প্রতিবন্ধী এক তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত ইমাম হোসেন এখনও অধরা। এ ঘটনায় ধর্ষিতার বৃদ্ধ বাবার কাছ থেকে জোর করে স্বাক্ষর করানো খালি স্ট্যাম্পও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

উপজেলার লগ্নসার গ্রামের আবদুল কাদেরের ছেলে ইমাম হোসেন একই গ্রামের হতদরিদ্র মা-হারা ওই প্রতিবন্ধী তরুণীকে তার বাড়িতে ঢুকে বিভিন্ন সময়ে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ২৮ সেপ্টেম্বর ইমাম হোসেনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন তরুণীর বাবা। বরুড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইকবাল বাহার জানান, অভিযুক্ত ধর্ষককে গ্রেফতারে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তাকে গ্রেফতার করতে পারলেই খালি স্ট্যাম্পের ব্যাপারে বিস্তারিত জানা যাবে।