চট্টগ্রামে ১০ আড়তকে ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা জরিমানা
jugantor
বেশি দামে আলু বিক্রি
চট্টগ্রামে ১০ আড়তকে ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা জরিমানা

  চট্টগ্রাম ব্যুরো  

২৮ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রামে বেশি দামে আলু বিক্রি করায় নগরীর রিয়াজুদ্দিন বাজারের ১০টি আড়তকে এক লাখ ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুকের নেতৃত্বে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়।

এর মধ্যে রিয়াজুদ্দিন বাজারের মেসার্স কুমিল্লা ট্রেডার্সকে ১০ হাজার, রফরফ বাণিজ্যালয়কে ২০ হাজার, মেসার্স মক্কা বাণিজ্যালয়কে ২০ হাজার, মেসার্স মামুন ট্রেডার্সকে ২০ হাজার, মেসার্স মা বিতানকে ২০ হাজার, মেসার্স কুসুমপুরা বাণিজ্যালয়কে ১০ হাজার, মেসার্স জননী ট্রেডার্সকে ১০ হাজার, মেসার্স দাউদকান্দি বাণিজ্যালয় ১০ হাজার, নিউ রাজমহল বাণিজ্যালয়কে ৫ হাজার ও মেসার্স আশীষ লালধর অ্যান্ড ব্রাদার্সকে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করা হয়। অভিযান পরিচালনাকারী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক বলেন, সরেজমিন দেখা যায় সরকার পাইকারি ক্ষেত্রে আলুর দাম সর্বোচ্চ ৩০ টাকা কেজি নির্ধারণ করে দিলেও আড়তদার ও পাইকারি ব্যবসায়ীরা ৪২ টাকার উপরে বিক্রয় করছিল।

বেশি দামে আলু বিক্রি

চট্টগ্রামে ১০ আড়তকে ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা জরিমানা

 চট্টগ্রাম ব্যুরো 
২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রামে বেশি দামে আলু বিক্রি করায় নগরীর রিয়াজুদ্দিন বাজারের ১০টি আড়তকে এক লাখ ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুকের নেতৃত্বে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়।

এর মধ্যে রিয়াজুদ্দিন বাজারের মেসার্স কুমিল্লা ট্রেডার্সকে ১০ হাজার, রফরফ বাণিজ্যালয়কে ২০ হাজার, মেসার্স মক্কা বাণিজ্যালয়কে ২০ হাজার, মেসার্স মামুন ট্রেডার্সকে ২০ হাজার, মেসার্স মা বিতানকে ২০ হাজার, মেসার্স কুসুমপুরা বাণিজ্যালয়কে ১০ হাজার, মেসার্স জননী ট্রেডার্সকে ১০ হাজার, মেসার্স দাউদকান্দি বাণিজ্যালয় ১০ হাজার, নিউ রাজমহল বাণিজ্যালয়কে ৫ হাজার ও মেসার্স আশীষ লালধর অ্যান্ড ব্রাদার্সকে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করা হয়। অভিযান পরিচালনাকারী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক বলেন, সরেজমিন দেখা যায় সরকার পাইকারি ক্ষেত্রে আলুর দাম সর্বোচ্চ ৩০ টাকা কেজি নির্ধারণ করে দিলেও আড়তদার ও পাইকারি ব্যবসায়ীরা ৪২ টাকার উপরে বিক্রয় করছিল।