ভেড়ামারায় নববধূকে প্রকাশ্যে হত্যার অভিযোগ
jugantor
ভেড়ামারায় নববধূকে প্রকাশ্যে হত্যার অভিযোগ

  ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি  

২৮ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভেড়ামারায় নববধূকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে শাশুড়ির বিরুদ্ধে। জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শাশুড়ি ঝরনা খাতুনকে আটক করেছে ভেড়ামারা থানা পুলিশ। সোমবার কুষ্টিয়া ভেড়ামারা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের ঠাকুরদৌলতপুরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ভাবনা খাতুন (২৩) ওই গ্রামের মহিবুল ইসলামের ছেলে সোহেলের স্ত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ১৫ দিন আগে সোহেল-ভাবনার বিয়ে হয়। এরই মধ্যে পারিবারিক কলহের জেরে দুপুরে বউ-শাশুড়ির মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এ সময় ঝরনা খাতুন পুত্রবধূ ভাবনার গলা টিপে ধরেন। লোকজন ঠেকাতে গেলেও পাত্তা দেননি শাশুড়ি ঝরনা। একপর্যায়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান ভাবনা। ঝরনার পরিবার ঘটনা ধামাচাপা দিতে ভাবনার গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করেছে বলেও অভিযোগ প্রতিবেশীদের।

উপজেলার বাহাদুরপুর পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। নিহতের শ্বশুরবাড়ির লোকজন নিজেদের নির্দোষ দাবি করেছেন বলেও জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

ভেড়ামারায় নববধূকে প্রকাশ্যে হত্যার অভিযোগ

 ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি 
২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভেড়ামারায় নববধূকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে শাশুড়ির বিরুদ্ধে। জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শাশুড়ি ঝরনা খাতুনকে আটক করেছে ভেড়ামারা থানা পুলিশ। সোমবার কুষ্টিয়া ভেড়ামারা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের ঠাকুরদৌলতপুরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ভাবনা খাতুন (২৩) ওই গ্রামের মহিবুল ইসলামের ছেলে সোহেলের স্ত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ১৫ দিন আগে সোহেল-ভাবনার বিয়ে হয়। এরই মধ্যে পারিবারিক কলহের জেরে দুপুরে বউ-শাশুড়ির মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এ সময় ঝরনা খাতুন পুত্রবধূ ভাবনার গলা টিপে ধরেন। লোকজন ঠেকাতে গেলেও পাত্তা দেননি শাশুড়ি ঝরনা। একপর্যায়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান ভাবনা। ঝরনার পরিবার ঘটনা ধামাচাপা দিতে ভাবনার গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করেছে বলেও অভিযোগ প্রতিবেশীদের।

উপজেলার বাহাদুরপুর পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। নিহতের শ্বশুরবাড়ির লোকজন নিজেদের নির্দোষ দাবি করেছেন বলেও জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।