দুমকিতে শিশুকে গাড়িচাপা প্রকৌশলী গ্রেফতার
jugantor
দুমকিতে শিশুকে গাড়িচাপা প্রকৌশলী গ্রেফতার

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৭ নভেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পটুয়াখালীর দুমকিতে মায়ের সঙ্গে পথচারী ৫ বছরের এক শিশুকে চাপা দিয়ে পালানোর সময় গাড়িসহ সওজর প্রকৌশলীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে দাদি-নাতি, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় তিনজন, কুড়িগ্রামের উলিপুরে বিএনপি নেতা, বগুড়ার শেরপুরে ট্রাকচালক ও হেলপার, নোয়াখালীর কবিরহাটে নারী সড়কে নিহত হয়েছেন। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

দুমকি (পটুয়াখালী) : দুমকিতে গুরুতর আহত শিশুটি রাজাখালী গ্রামের ছালাম শরীফের ছেলে সায়েম। তাকে অচেতন অবস্থায় পটুয়াখালী নূর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার রাজাখালীর ফার্মগেট সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। রাতে শিশুটির মা সালমা বেগম দুমকি থানায় একটি মামলা করেছেন। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শিশু সায়েম তার মায়ের সঙ্গে সড়ক দিয়ে নানাবাড়ি যাচ্ছিল। এ সময় বাউফল থেকে আসা দ্রুতগামী একটি গাড়ি সায়েমকে চাপা দিয়ে সটকে পড়ে। স্থানীয়রা দুমকি থানা পুলিশকে খবর দিলে এসআই সঞ্জীব কুমার ধাওয়া করে পটুয়াখালী টোলঘর এলাকায় গাড়িটি আটক করেন। গাড়ির চালক নিজেকে পটুয়াখালী সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী মো. জাহিদুল ইসলাম মুন্না বলে পরিচয় দেন। পরে পুলিশ গাড়িসহ ওই উপসহকারী প্রকৌশলীকে থানায় নিয়ে আসে।

এদিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশু সায়েমের ২০ ঘণ্টায়ও জ্ঞান ফেরেনি। তার বাঁ পায়ের হাড় পুরোপুরি ভেঙে গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

দুমকি থানার ওসি মেহেদি হাসান জানান, উপসহকারী প্রকৌশলী মুন্নাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) : শ্রীনগরে দাদি-নাতি বেড়াতে এসে রাস্তা পার হওয়ার সময় প্রাইভেট কার চাপায় নিহত হয়েছে। দাদির নাম মিনু মল্লিক (৭০) ও তার নাতি অচিন মল্লিক (৮)। শুক্রবার সকালে ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ের হাঁসাড়া স্কুল গেটে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী এক ঘণ্টা রাস্তা অবরোধ করলে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে।

কসবা (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) : কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের কসবা উপজেলার খাড়েরা ইউনিয়নের মনকাশাইরে শুক্রবার দুপুরে ট্রাক, প্রাইভেট কার ও অটোরিকশার ত্রিমুখী সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন চারজন। আহত প্রত্যেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তারা ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

তিনজনের লাশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। হতাহতদের কারোরই পরিচয় পাওয়া যায়নি।

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) : উলিপুরে নিহত বিএনপি নেতার নাম আবদুল হামিদ (৪০)। তিনি উপজেলার ধরণীবাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিণ মধুপুর গ্রামের রসুল মাহমুদের ছেলে ও ওই ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক। বৃহস্পতিবার রাতে পৌরসভার বকুলতলায় দুর্ঘটনাটি ঘটে।

শেরপুর (বগুড়া) : শেরপুরের মির্জাপুর এলাকার আমতলায় শুক্রবার বিকালে বাসের ধাক্কায় থেমে থাকা ট্রাকের চাপায় চালক আবু বক্কর (৩৫) ও হেলপার আবু সাইদ (২৪) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। এ সময় জাবির হোসেন ও সৈকত নামের দুই শ্রমিক আহত হন।

নোয়াখালী : কবিরহাট উপজেলায় অটোরিকশা ও ট্রাক্টরের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক নারী নিহত ও তিনযাত্রী আহত হয়েছেন। নিহত শাহীন আক্তার (৪৫) কোম্পানীগঞ্জের চরকাঁকড়া ইউনিয়নের মো. বাবুলের স্ত্রী। শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার ধানশালিক ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের পাঠান বাড়ির মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহতদের নোয়াখালী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

দুমকিতে শিশুকে গাড়িচাপা প্রকৌশলী গ্রেফতার

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৭ নভেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পটুয়াখালীর দুমকিতে মায়ের সঙ্গে পথচারী ৫ বছরের এক শিশুকে চাপা দিয়ে পালানোর সময় গাড়িসহ সওজর প্রকৌশলীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে দাদি-নাতি, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় তিনজন, কুড়িগ্রামের উলিপুরে বিএনপি নেতা, বগুড়ার শেরপুরে ট্রাকচালক ও হেলপার, নোয়াখালীর কবিরহাটে নারী সড়কে নিহত হয়েছেন। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

দুমকি (পটুয়াখালী) : দুমকিতে গুরুতর আহত শিশুটি রাজাখালী গ্রামের ছালাম শরীফের ছেলে সায়েম। তাকে অচেতন অবস্থায় পটুয়াখালী নূর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার রাজাখালীর ফার্মগেট সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। রাতে শিশুটির মা সালমা বেগম দুমকি থানায় একটি মামলা করেছেন। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শিশু সায়েম তার মায়ের সঙ্গে সড়ক দিয়ে নানাবাড়ি যাচ্ছিল। এ সময় বাউফল থেকে আসা দ্রুতগামী একটি গাড়ি সায়েমকে চাপা দিয়ে সটকে পড়ে। স্থানীয়রা দুমকি থানা পুলিশকে খবর দিলে এসআই সঞ্জীব কুমার ধাওয়া করে পটুয়াখালী টোলঘর এলাকায় গাড়িটি আটক করেন। গাড়ির চালক নিজেকে পটুয়াখালী সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী মো. জাহিদুল ইসলাম মুন্না বলে পরিচয় দেন। পরে পুলিশ গাড়িসহ ওই উপসহকারী প্রকৌশলীকে থানায় নিয়ে আসে।

এদিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশু সায়েমের ২০ ঘণ্টায়ও জ্ঞান ফেরেনি। তার বাঁ পায়ের হাড় পুরোপুরি ভেঙে গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

দুমকি থানার ওসি মেহেদি হাসান জানান, উপসহকারী প্রকৌশলী মুন্নাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) : শ্রীনগরে দাদি-নাতি বেড়াতে এসে রাস্তা পার হওয়ার সময় প্রাইভেট কার চাপায় নিহত হয়েছে। দাদির নাম মিনু মল্লিক (৭০) ও তার নাতি অচিন মল্লিক (৮)। শুক্রবার সকালে ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ের হাঁসাড়া স্কুল গেটে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী এক ঘণ্টা রাস্তা অবরোধ করলে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে।

কসবা (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) : কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের কসবা উপজেলার খাড়েরা ইউনিয়নের মনকাশাইরে শুক্রবার দুপুরে ট্রাক, প্রাইভেট কার ও অটোরিকশার ত্রিমুখী সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন চারজন। আহত প্রত্যেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তারা ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

তিনজনের লাশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। হতাহতদের কারোরই পরিচয় পাওয়া যায়নি।

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) : উলিপুরে নিহত বিএনপি নেতার নাম আবদুল হামিদ (৪০)। তিনি উপজেলার ধরণীবাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিণ মধুপুর গ্রামের রসুল মাহমুদের ছেলে ও ওই ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক। বৃহস্পতিবার রাতে পৌরসভার বকুলতলায় দুর্ঘটনাটি ঘটে।

শেরপুর (বগুড়া) : শেরপুরের মির্জাপুর এলাকার আমতলায় শুক্রবার বিকালে বাসের ধাক্কায় থেমে থাকা ট্রাকের চাপায় চালক আবু বক্কর (৩৫) ও হেলপার আবু সাইদ (২৪) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। এ সময় জাবির হোসেন ও সৈকত নামের দুই শ্রমিক আহত হন।

নোয়াখালী : কবিরহাট উপজেলায় অটোরিকশা ও ট্রাক্টরের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক নারী নিহত ও তিনযাত্রী আহত হয়েছেন। নিহত শাহীন আক্তার (৪৫) কোম্পানীগঞ্জের চরকাঁকড়া ইউনিয়নের মো. বাবুলের স্ত্রী। শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার ধানশালিক ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের পাঠান বাড়ির মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহতদের নোয়াখালী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।