ধুনটে গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা স্বামী-শ্বশুর গ্রেফতার
jugantor
যৌতুক দাবি
ধুনটে গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা স্বামী-শ্বশুর গ্রেফতার

  বগুড়া ব্যুরো  

২০ নভেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ধুনটে যৌতুক না পেয়ে সাথী খাতুন (২১) নামে গৃহবধূকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। পুলিশ বুধবার রাতে বাড়ি থেকে গৃহবধূর স্বামী সাজু মিয়া ও শ্বশুর রফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে। আদালতের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ধুনট উপজেলার ছোট চিকাশী গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

এজাহার সূত্র জানায়, সাজু মিয়া দু’বছর আগে একই উপজেলার জোড়াখালি গ্রামের শাহজাহান আলীর মেয়ে সাথী খাতুনকে বিয়ে করেন। বিয়ের সময় সাজু মিয়াকে যৌতুক হিসেবে নগদ ৭০ হাজার টাকা দেয়া হয়। বিয়ের এক বছর পর থেকে সাজু আরও তিন লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। সামর্থ্য না থাকায় সাথীর বাবা-মা যৌতুক দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এতে সাজু ক্ষিপ্ত হয়ে সাথীর ওপর নির্যাতন শুরু করে।

২৩ আগস্ট বিকালে সাজু, তার বাবা রফিকুল এবং মা ও বোন সাথীকে নির্যাতনের পর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন। এতে শরীরের বিভিন্ন অংশ পুড়ে পেলে তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ব্যাপারে সাথীর চাচা আলম শেখ ধুনট থানায় সাজু, তার বাবা, মা ও বোনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা জানান, অন্য আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

যৌতুক দাবি

ধুনটে গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা স্বামী-শ্বশুর গ্রেফতার

 বগুড়া ব্যুরো 
২০ নভেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ধুনটে যৌতুক না পেয়ে সাথী খাতুন (২১) নামে গৃহবধূকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। পুলিশ বুধবার রাতে বাড়ি থেকে গৃহবধূর স্বামী সাজু মিয়া ও শ্বশুর রফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে। আদালতের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ধুনট উপজেলার ছোট চিকাশী গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

এজাহার সূত্র জানায়, সাজু মিয়া দু’বছর আগে একই উপজেলার জোড়াখালি গ্রামের শাহজাহান আলীর মেয়ে সাথী খাতুনকে বিয়ে করেন। বিয়ের সময় সাজু মিয়াকে যৌতুক হিসেবে নগদ ৭০ হাজার টাকা দেয়া হয়। বিয়ের এক বছর পর থেকে সাজু আরও তিন লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। সামর্থ্য না থাকায় সাথীর বাবা-মা যৌতুক দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এতে সাজু ক্ষিপ্ত হয়ে সাথীর ওপর নির্যাতন শুরু করে।

২৩ আগস্ট বিকালে সাজু, তার বাবা রফিকুল এবং মা ও বোন সাথীকে নির্যাতনের পর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন। এতে শরীরের বিভিন্ন অংশ পুড়ে পেলে তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ব্যাপারে সাথীর চাচা আলম শেখ ধুনট থানায় সাজু, তার বাবা, মা ও বোনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা জানান, অন্য আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।