সাংবাদিক শোয়েব খান আর নেই
jugantor
সাংবাদিক শোয়েব খান আর নেই

   

২৬ নভেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দৈনিক পূর্বকোণের সাবেক সিনিয়র সহ-সম্পাদক এসএম শোয়েব খান আর নেই। বুধবার সকালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় নগরের সিএসসিআর হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি ... রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৫৮ বছর।

বুধবার বাদ জোহর মরহুমের প্রথম জানাজা চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলামের সঞ্চালনায় সংক্ষিপ্ত আলোচনায় অংশ নেন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি আলী আব্বাস, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোহাম্মদ আলী, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী এবং চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী।

জানাজা শেষে তার লাশ গ্রামের বাড়ি ফটিকছড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। বিকেলে ফটিকছড়ির নাজিরহাট বাবুনগর গ্রামের বাড়িতে বাদ আসর দ্বিতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়। গত দুই সপ্তাহ ধরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৬তম ব্যাচের লোকপ্রশাসন বিভাগের ছাত্র ছিলেন এসএম শোয়েব খান। ১৯৯০ সাল থেকে সাংবাদিকতায় যুক্ত হন। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। চট্টগ্রাম ব্যুরো।

সাংবাদিক শোয়েব খান আর নেই

  
২৬ নভেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দৈনিক পূর্বকোণের সাবেক সিনিয়র সহ-সম্পাদক এসএম শোয়েব খান আর নেই। বুধবার সকালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় নগরের সিএসসিআর হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি ... রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৫৮ বছর।

বুধবার বাদ জোহর মরহুমের প্রথম জানাজা চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলামের সঞ্চালনায় সংক্ষিপ্ত আলোচনায় অংশ নেন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি আলী আব্বাস, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোহাম্মদ আলী, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী এবং চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী।

জানাজা শেষে তার লাশ গ্রামের বাড়ি ফটিকছড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। বিকেলে ফটিকছড়ির নাজিরহাট বাবুনগর গ্রামের বাড়িতে বাদ আসর দ্বিতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়। গত দুই সপ্তাহ ধরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৬তম ব্যাচের লোকপ্রশাসন বিভাগের ছাত্র ছিলেন এসএম শোয়েব খান। ১৯৯০ সাল থেকে সাংবাদিকতায় যুক্ত হন। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। চট্টগ্রাম ব্যুরো।