ভালুকায় ইটভাটায় শ্রমিকদের হামলায় নিহত ১
jugantor
ভালুকায় ইটভাটায় শ্রমিকদের হামলায় নিহত ১

  ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভালুকা উপজেলার ৫নং বিরুনীয়া ইউনিয়নের বাইরপাথারে সোমবার সকালে আফাজ ব্রিকস ফিল্ড নামে একটি ইটভাটায় শ্রমিকদের এক গ্র“পের হামলায় প্রতিপক্ষ গ্র“পের জাহাঙ্গীর আলম (১৮) নামে একজন নিহত হয়েছেন। হামলায় তিন শ্রমিক আহত হন। ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় রাতে নিহতের মামাতো ভাই কালা মিয়া ১১ শ্রমিককে আসামি করে ভালুকা মডেল থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ ১০ জনকে গ্রেফতার করেছে। জাহাঙ্গীর আলম নেত্রকোনার কমলাকান্দার মাইজপাড়ার মৃত শাহেদ মিয়ার ছেলে। এলাকাবাসী ও থানা সূত্রে জানা যায়, আফাজ ব্রিকস ফিল্ড নামে একটি ইটভাটায় নেত্রকোনা ও পঞ্চগড়ের দুটি শ্রমিক দল ইট তৈরির কাজ করত। পঞ্চগড়ের শ্রমিকদের ইট বানানোর বালু শেষ হয়ে গেলে সোমবার সকালে তারা নেত্রকোনার শ্রমিকদের কাছে বালু আনার জন্য যায়।

এ সময় নেত্রকোনার শ্রমিকরা বালু না দিলে দুপক্ষের মাঝে কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে পঞ্চগড়ের শ্রমিকরা বেলচা ও লাকড়ি দিয়ে নেত্রকোনার চার শ্রমিকের ওপর অতর্কিত হামলা করে। এতে নেত্রকোনার কমলাকান্দা উপজেলার বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম, কালা মিয়া, সবুজ মিয়া ও হাছান মিয়া আহত হন। আহতদের মাঝে জাহাঙ্গীর ও কালা মিয়াকে প্রথমে ভালুকা সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সোমবার বিকাল সোয়া ৩টায় জাহাঙ্গীর আলম মারা যান। জাহাঙ্গীর আলমের মাথায় বেশ কয়েকটি আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। খবর পেয়ে ভালুকা মডেল থানা পুলিশ ইটভাটায় অভিযান চালিয়ে পঞ্চগড়ের ১০ শ্রমিককে গ্রেফতার করে। গ্রেফতাররা হলেন আব্দুর রাজ্জাক, আব্দুল কুদ্দুস, আ. ছালাম, আসাদুজ্জামান, মিজানুর রহমান, ফরিদুল ইসলাম, শিপন ইসলাম, মমতাজুর রহমান মতি, জয়নাল ইসলাম ও স্বপন। তারা সবাই পঞ্চগড় জেলা বাসিন্দা।

ভালুকায় ইটভাটায় শ্রমিকদের হামলায় নিহত ১

 ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভালুকা উপজেলার ৫নং বিরুনীয়া ইউনিয়নের বাইরপাথারে সোমবার সকালে আফাজ ব্রিকস ফিল্ড নামে একটি ইটভাটায় শ্রমিকদের এক গ্র“পের হামলায় প্রতিপক্ষ গ্র“পের জাহাঙ্গীর আলম (১৮) নামে একজন নিহত হয়েছেন। হামলায় তিন শ্রমিক আহত হন। ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় রাতে নিহতের মামাতো ভাই কালা মিয়া ১১ শ্রমিককে আসামি করে ভালুকা মডেল থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ ১০ জনকে গ্রেফতার করেছে। জাহাঙ্গীর আলম নেত্রকোনার কমলাকান্দার মাইজপাড়ার মৃত শাহেদ মিয়ার ছেলে। এলাকাবাসী ও থানা সূত্রে জানা যায়, আফাজ ব্রিকস ফিল্ড নামে একটি ইটভাটায় নেত্রকোনা ও পঞ্চগড়ের দুটি শ্রমিক দল ইট তৈরির কাজ করত। পঞ্চগড়ের শ্রমিকদের ইট বানানোর বালু শেষ হয়ে গেলে সোমবার সকালে তারা নেত্রকোনার শ্রমিকদের কাছে বালু আনার জন্য যায়।

এ সময় নেত্রকোনার শ্রমিকরা বালু না দিলে দুপক্ষের মাঝে কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে পঞ্চগড়ের শ্রমিকরা বেলচা ও লাকড়ি দিয়ে নেত্রকোনার চার শ্রমিকের ওপর অতর্কিত হামলা করে। এতে নেত্রকোনার কমলাকান্দা উপজেলার বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম, কালা মিয়া, সবুজ মিয়া ও হাছান মিয়া আহত হন। আহতদের মাঝে জাহাঙ্গীর ও কালা মিয়াকে প্রথমে ভালুকা সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সোমবার বিকাল সোয়া ৩টায় জাহাঙ্গীর আলম মারা যান। জাহাঙ্গীর আলমের মাথায় বেশ কয়েকটি আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। খবর পেয়ে ভালুকা মডেল থানা পুলিশ ইটভাটায় অভিযান চালিয়ে পঞ্চগড়ের ১০ শ্রমিককে গ্রেফতার করে। গ্রেফতাররা হলেন আব্দুর রাজ্জাক, আব্দুল কুদ্দুস, আ. ছালাম, আসাদুজ্জামান, মিজানুর রহমান, ফরিদুল ইসলাম, শিপন ইসলাম, মমতাজুর রহমান মতি, জয়নাল ইসলাম ও স্বপন। তারা সবাই পঞ্চগড় জেলা বাসিন্দা।