চট্টগ্রামের অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদে বাধা কাটল
jugantor
চট্টগ্রামের অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদে বাধা কাটল

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৯ এপ্রিল ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রামের কয়েকটি ইটভাটাকে ৪৫ দিনের মধ্যে উচ্ছেদ না করার হাইকোর্টের নির্দেশনা স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত। এর ফলে এসব ইটভাটা উচ্ছেদে বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা। আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর আদালত বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। পরে অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ বলেন, বিচারপতি মো. মজিবর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার আদালত গত বছরের ১৪ ডিসেম্বর চট্টগ্রামে অবৈধভাবে পরিচালিত সব ইটভাটা বন্ধ করার নির্দেশনা দেন। ওই আদেশের বিরুদ্ধে একাধিক আপিল করা হলেও শুনানি শেষে চেম্বার জজ আদালত কোনো স্থগিতাদেশ দেননি। পরে উচ্ছেদ আদেশ সম্পূর্ণভাবে পালিত না হওয়ায় চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের ওপর হাইকোর্ট আদালত অবমাননার রুল জারি করেন। এর মধ্যে চট্টগ্রামের কয়েকজন ইটভাটা মালিক তথ্য গোপন করে পুনরায় অপর একটি আদালতে একাধিক রিট দায়ের করে উচ্ছেদ অভিযান স্থগিতের আবেদন জানান। তাদের আবেদনের শুনানি শেষে ২২ মার্চ বিচারপতি মো. খসরুজ্জামান ও বিচারপতি মো. মাহমুদ হাসান তালুকদার হাইকোর্ট বেঞ্চ ৪৫ দিনের সময় মঞ্জুর করেন এবং এর মধ্যে উচ্ছেদ না করার নির্দেশ দেন।

হাইকোর্টের এ স্থগিতাদেশ চ্যালেঞ্জ করে পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের পক্ষে আবেদন করা হয়। বৃহস্পতিবার সেই আবেদনের শুনানি শেষে বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর চেম্বার আদালত হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেন। এ আদেশের ফলে ইটভাটাগুলো উচ্ছেদে আর কোনো বাধা নেই।

চট্টগ্রামের অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদে বাধা কাটল

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৯ এপ্রিল ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রামের কয়েকটি ইটভাটাকে ৪৫ দিনের মধ্যে উচ্ছেদ না করার হাইকোর্টের নির্দেশনা স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত। এর ফলে এসব ইটভাটা উচ্ছেদে বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা। আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর আদালত বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। পরে অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ বলেন, বিচারপতি মো. মজিবর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার আদালত গত বছরের ১৪ ডিসেম্বর চট্টগ্রামে অবৈধভাবে পরিচালিত সব ইটভাটা বন্ধ করার নির্দেশনা দেন। ওই আদেশের বিরুদ্ধে একাধিক আপিল করা হলেও শুনানি শেষে চেম্বার জজ আদালত কোনো স্থগিতাদেশ দেননি। পরে উচ্ছেদ আদেশ সম্পূর্ণভাবে পালিত না হওয়ায় চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের ওপর হাইকোর্ট আদালত অবমাননার রুল জারি করেন। এর মধ্যে চট্টগ্রামের কয়েকজন ইটভাটা মালিক তথ্য গোপন করে পুনরায় অপর একটি আদালতে একাধিক রিট দায়ের করে উচ্ছেদ অভিযান স্থগিতের আবেদন জানান। তাদের আবেদনের শুনানি শেষে ২২ মার্চ বিচারপতি মো. খসরুজ্জামান ও বিচারপতি মো. মাহমুদ হাসান তালুকদার হাইকোর্ট বেঞ্চ ৪৫ দিনের সময় মঞ্জুর করেন এবং এর মধ্যে উচ্ছেদ না করার নির্দেশ দেন।

হাইকোর্টের এ স্থগিতাদেশ চ্যালেঞ্জ করে পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের পক্ষে আবেদন করা হয়। বৃহস্পতিবার সেই আবেদনের শুনানি শেষে বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর চেম্বার আদালত হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেন। এ আদেশের ফলে ইটভাটাগুলো উচ্ছেদে আর কোনো বাধা নেই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন