কোম্পানীগঞ্জে কাদের মির্জার অনুসারী গ্রেফতার
jugantor
কোম্পানীগঞ্জে কাদের মির্জার অনুসারী গ্রেফতার
সিদ্ধান্তের আলোকে রাজপথে আমিও থাকব : কাদের মির্জা

  নোয়াখালী ও কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি  

২৩ এপ্রিল ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় বসুরহাট পৌরসভার মেয়র কাদের মির্জার অনুসারী মাঈন উদ্দিন প্রকাশ রাজু খানকে (২৯) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পৌরসভা ভবন এলাকা থেকে বৃহস্পতিবার বিকালে তাকে গ্রেফতার করা হয়। রাজু খান বসুরহাট পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের সাহাব উদ্দিনের ছেলে। সে মেয়র কাদের মির্জা ঘোষিত বসুরহাট পৌরসভা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক। বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বৃহস্পতিবার বিকালে রাজু খানকে গ্রেফতারের পরপর ফেসবুক লাইভে এসে ক্ষুব্ধ হয়ে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়ে বলেছেন, সিদ্ধান্তের আলোকে আমি রাজপথে থাকব।

রাজু খান উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান নুর নবী চৌধুরীর ওপর সন্ত্রাসী হামলা মামলার এজাহারভুক্ত ১০নং আসামি। এছাড়া তার বিরুদ্ধে কোম্পানীগঞ্জ থানায় বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। রাজু দীর্ঘদিন ধরে বসুরহাট পৌর ভবনে অবস্থান করে ফেসবুক লাইভে এসে নিজ আইডি থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে নানা কুৎসা রটনা ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দিয়ে আসছিল।

কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি রাজু খানের গ্রেফতারের বিষয় নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে কাদের মির্জা ফেসবুক লাইভে বলেছেন, আমি আমার কর্মীদের বলব, আমি শান্তির প্রস্তাব দিয়েছি। আমি আরও একদিন দেখব, আজকের দিন দেখার পর তোমাদের আগামী দিন (শুক্রবার) সিদ্ধান্ত দেব, সে সিদ্ধান্তের আলোকে রাজপথে আমিও থাকব, আমি দেখব পুলিশ প্রশাসন কি জিনিস, প্রয়োজনে জেলে যাব, জীবন উৎসর্গ করব, আমি আর ছেড়ে দেব না।

কাদের মির্জা আরও বলেন, আমি পরশু সেহরির সময় কোম্পানীগঞ্জে শান্তির জন্য ১১ দফায় একটি প্রস্তাব দিয়েছিলাম। করোনা থেকে কোম্পানীগঞ্জের মানুষকে রক্ষা করার জন্য একটি পদক্ষেপ আমি নিয়েছি, সেটিও আপনারা শুনেছেন। কিন্তু আজকে আমার সে প্রস্তাবে এখানকার প্রশাসন এবং সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, তার স্ত্রী (অ্যাড. ইসরাতুন্নেছা কাদের), এমপি একরাম-নিজামের লেলিয়ে দেওয়া বাহিনী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা, শামীম (এডিশনাল এসপি), ওসি রনি আমার প্রস্তাবে সাড়া না দিয়ে এখানে তাণ্ডব চালিয়ে যাচ্ছে। পুলিশ বাড়িতে গিয়ে আমার ছেলেদের গ্রেফতার করছে।

কাদের মির্জা বলেন, আমার ছেলেকে (অনুসারী রাজু) নিয়ে তাকে পুলিশ অমানুষিক নির্যাতন করেছে। গত তিন দিনে আমাদের প্রায় ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জে কাদের মির্জার অনুসারী গ্রেফতার

সিদ্ধান্তের আলোকে রাজপথে আমিও থাকব : কাদের মির্জা
 নোয়াখালী ও কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি 
২৩ এপ্রিল ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় বসুরহাট পৌরসভার মেয়র কাদের মির্জার অনুসারী মাঈন উদ্দিন প্রকাশ রাজু খানকে (২৯) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পৌরসভা ভবন এলাকা থেকে বৃহস্পতিবার বিকালে তাকে গ্রেফতার করা হয়। রাজু খান বসুরহাট পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের সাহাব উদ্দিনের ছেলে। সে মেয়র কাদের মির্জা ঘোষিত বসুরহাট পৌরসভা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক। বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বৃহস্পতিবার বিকালে রাজু খানকে গ্রেফতারের পরপর ফেসবুক লাইভে এসে ক্ষুব্ধ হয়ে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়ে বলেছেন, সিদ্ধান্তের আলোকে আমি রাজপথে থাকব।

রাজু খান উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান নুর নবী চৌধুরীর ওপর সন্ত্রাসী হামলা মামলার এজাহারভুক্ত ১০নং আসামি। এছাড়া তার বিরুদ্ধে কোম্পানীগঞ্জ থানায় বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। রাজু দীর্ঘদিন ধরে বসুরহাট পৌর ভবনে অবস্থান করে ফেসবুক লাইভে এসে নিজ আইডি থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে নানা কুৎসা রটনা ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দিয়ে আসছিল।

কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি রাজু খানের গ্রেফতারের বিষয় নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে কাদের মির্জা ফেসবুক লাইভে বলেছেন, আমি আমার কর্মীদের বলব, আমি শান্তির প্রস্তাব দিয়েছি। আমি আরও একদিন দেখব, আজকের দিন দেখার পর তোমাদের আগামী দিন (শুক্রবার) সিদ্ধান্ত দেব, সে সিদ্ধান্তের আলোকে রাজপথে আমিও থাকব, আমি দেখব পুলিশ প্রশাসন কি জিনিস, প্রয়োজনে জেলে যাব, জীবন উৎসর্গ করব, আমি আর ছেড়ে দেব না।

কাদের মির্জা আরও বলেন, আমি পরশু সেহরির সময় কোম্পানীগঞ্জে শান্তির জন্য ১১ দফায় একটি প্রস্তাব দিয়েছিলাম। করোনা থেকে কোম্পানীগঞ্জের মানুষকে রক্ষা করার জন্য একটি পদক্ষেপ আমি নিয়েছি, সেটিও আপনারা শুনেছেন। কিন্তু আজকে আমার সে প্রস্তাবে এখানকার প্রশাসন এবং সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, তার স্ত্রী (অ্যাড. ইসরাতুন্নেছা কাদের), এমপি একরাম-নিজামের লেলিয়ে দেওয়া বাহিনী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা, শামীম (এডিশনাল এসপি), ওসি রনি আমার প্রস্তাবে সাড়া না দিয়ে এখানে তাণ্ডব চালিয়ে যাচ্ছে। পুলিশ বাড়িতে গিয়ে আমার ছেলেদের গ্রেফতার করছে।

কাদের মির্জা বলেন, আমার ছেলেকে (অনুসারী রাজু) নিয়ে তাকে পুলিশ অমানুষিক নির্যাতন করেছে। গত তিন দিনে আমাদের প্রায় ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন