মেট্রোরেল কোচের দ্বিতীয় চালান ভিড়ল মোংলা বন্দরে
jugantor
মেট্রোরেল কোচের দ্বিতীয় চালান ভিড়ল মোংলা বন্দরে

  মোংলা (বাগেহাট) প্রতিনিধি  

১০ মে ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

জাপান থেকে ঢাকা মেট্রোরেল কোচের দ্বিতীয় চালান নিয়ে মোংলা বন্দরে ভিড়েছে আরও একটি বিদেশি বাণিজ্যিক জাহাজ। বেলিজ পতকাবাহী জাহাজ ‘এমভি ওশান গ্রেস’ রোববার দুপুরে বন্দরের ৭ নম্বর জেটিতে ভেড়ে। পরে বিকালে শুরু হয় খালাস কাজ। আজ দুপুর নাগাদ রেলকোচ নামানোর কাজ সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে। শিপিং এজেন্ট ও বন্দর সূত্র জানায়, জাপানের কোবে বন্দর থেকে আসা বিদেশি এ জাহাজটিতে ছয়টি কোচ রয়েছে। এর আগের প্রথম দফায় ৩১ মার্চ মেট্রোরেলের দুটি ইঞ্জিন ও চারটি কোচ আসে মোংলা বন্দরে। রেলকোচবাহী বিদেশি জাহাজের স্থানীয় শিপিং এজেন্ট এনশিয়েন্ট স্টিমশিপ কোম্পানি লিমিটেডের খুলনার জেনারেল ম্যানেজার মো. ওহিদুজ্জামান জানান, চুক্তি অনুযায়ী ২০১৯ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকে জাপানের কাওয়াসাকি হ্যাভি ইন্ডাট্রিজ কোম্পানি লিমিটেড রেলওয়ের কার নির্মাণ কাজ শুরু করে।

তিনি জানান, জাহাজ থেকে দ্রুত রেলকোচ খালাস কাজের জন্য ইতোমধ্যে শ্রমিক নিয়োগকারী স্টিভিডর্স প্রতিষ্ঠান ‘মেসার্স খুলনা ট্রেডার্স’কে নিযুক্ত করা হয়েছে। এ প্রতিষ্ঠানটির স্বত্বাধিকারী সৈয়দ জাহিদ হোসেন জানান, কারবাহী জাহাজটি মোংলা বন্দরের জেটিতে ভেড়ার পর খালাস প্রক্রিয়া শুরু হয়। আর খালাস প্রক্রিয়া নির্বিঘ্ন করতে জাপান ও মালয়েশিয়াসহ দেশীয় টেকনিশিয়ানদের একটি দল উপস্থিত থেকে তদারকি করছেন। তবে ভারী ও ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় রাতে খালাস প্রক্রিয়া বন্ধ রাখা হবে। আজ দুপুর নাগাদ ৬টি কোচই বার্জে নামানো সম্ভব হবে। পরে কাস্টমস ক্লিয়ারিং ও ফরোয়াডিংয়ের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ প্রাথমিক কাজ শেষ হলে নৌপথে ঢাকায় উত্তরার দিয়াবাড়ী পৌঁছাবে বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ থেকে জানা গেছে।

এ ক্ষেত্রে ১০ থেকে ১২ দিন সময় লাগতে পারে। ২০২২ সালের মধ্যে ২৪টি জাহাজে করে মেট্রোরেলের আরও ১৪৪টি বগি মোংলা বন্দর দিয়ে খালাস হবে। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা বলেন, জাহাজের খালাস কাজে সার্বিক সহায়তা করছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

মেট্রোরেল কোচের দ্বিতীয় চালান ভিড়ল মোংলা বন্দরে

 মোংলা (বাগেহাট) প্রতিনিধি 
১০ মে ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

জাপান থেকে ঢাকা মেট্রোরেল কোচের দ্বিতীয় চালান নিয়ে মোংলা বন্দরে ভিড়েছে আরও একটি বিদেশি বাণিজ্যিক জাহাজ। বেলিজ পতকাবাহী জাহাজ ‘এমভি ওশান গ্রেস’ রোববার দুপুরে বন্দরের ৭ নম্বর জেটিতে ভেড়ে। পরে বিকালে শুরু হয় খালাস কাজ। আজ দুপুর নাগাদ রেলকোচ নামানোর কাজ সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে। শিপিং এজেন্ট ও বন্দর সূত্র জানায়, জাপানের কোবে বন্দর থেকে আসা বিদেশি এ জাহাজটিতে ছয়টি কোচ রয়েছে। এর আগের প্রথম দফায় ৩১ মার্চ মেট্রোরেলের দুটি ইঞ্জিন ও চারটি কোচ আসে মোংলা বন্দরে। রেলকোচবাহী বিদেশি জাহাজের স্থানীয় শিপিং এজেন্ট এনশিয়েন্ট স্টিমশিপ কোম্পানি লিমিটেডের খুলনার জেনারেল ম্যানেজার মো. ওহিদুজ্জামান জানান, চুক্তি অনুযায়ী ২০১৯ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকে জাপানের কাওয়াসাকি হ্যাভি ইন্ডাট্রিজ কোম্পানি লিমিটেড রেলওয়ের কার নির্মাণ কাজ শুরু করে।

তিনি জানান, জাহাজ থেকে দ্রুত রেলকোচ খালাস কাজের জন্য ইতোমধ্যে শ্রমিক নিয়োগকারী স্টিভিডর্স প্রতিষ্ঠান ‘মেসার্স খুলনা ট্রেডার্স’কে নিযুক্ত করা হয়েছে। এ প্রতিষ্ঠানটির স্বত্বাধিকারী সৈয়দ জাহিদ হোসেন জানান, কারবাহী জাহাজটি মোংলা বন্দরের জেটিতে ভেড়ার পর খালাস প্রক্রিয়া শুরু হয়। আর খালাস প্রক্রিয়া নির্বিঘ্ন করতে জাপান ও মালয়েশিয়াসহ দেশীয় টেকনিশিয়ানদের একটি দল উপস্থিত থেকে তদারকি করছেন। তবে ভারী ও ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় রাতে খালাস প্রক্রিয়া বন্ধ রাখা হবে। আজ দুপুর নাগাদ ৬টি কোচই বার্জে নামানো সম্ভব হবে। পরে কাস্টমস ক্লিয়ারিং ও ফরোয়াডিংয়ের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ প্রাথমিক কাজ শেষ হলে নৌপথে ঢাকায় উত্তরার দিয়াবাড়ী পৌঁছাবে বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ থেকে জানা গেছে।

এ ক্ষেত্রে ১০ থেকে ১২ দিন সময় লাগতে পারে। ২০২২ সালের মধ্যে ২৪টি জাহাজে করে মেট্রোরেলের আরও ১৪৪টি বগি মোংলা বন্দর দিয়ে খালাস হবে। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা বলেন, জাহাজের খালাস কাজে সার্বিক সহায়তা করছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন