ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হাত-পা বেঁধে কিশোর নির্যাতন
jugantor
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হাত-পা বেঁধে কিশোর নির্যাতন
নোয়াখালীতে ৫ কিশোর নির্যাতন মামলায় ৫ ও কুমিল্লায় গ্রেফতার ১

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৮ মে ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চুরির অপবাদে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে কিশোর ইয়াকুবকে হাত-পা বেঁধে নির্মম নির্যাতন করা হয়েছে। এ ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ছাড়া নোয়াখালীর হাতিয়ায় পাঁচ কিশোর ও কুমিল্লার মুরাদনগরে সোহাগ মিয়াকে নির্যাতনের মামলায় ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নোয়াখালী ও মুরাদনগর (কুমিল্লা) প্রতিনিধির পাঠানো খবর-

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : বিজয়নগরে মোবাইল চুরির অপবাদে কিশোর ইয়াকুবকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন মামলায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন : বাবুল মিয়া (৪৫), মান্নান (২৩) ও শাহীন ওরফে মান্না (২১)। তাদের বাড়ি উপজেলার সিঙ্গারবিল ইউনিয়নের পশ্চিম মেরাসানী গ্রামে। নির্যাতিত ইয়াকুব মেরাসানী গ্রামের মৃত মজলু ভূঁইয়ার ছেলে। এ ঘটনায় রোববার রাতে সাতজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন ইয়াকুবের নানি আরিজা বেগম।

ফেসবুকে রোববার ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন যুবক ইয়াকুবকে নির্যাতন করছে। এ সময় সে আর্তচিৎকার করলেও নির্যাতন থেমে থাকেনি।

নোয়াখালী : হাতিয়ায় বিন্দি জাল চুরির অভিযোগে পাঁ কিশোর-মহাদেব (১৫), কিরণ (১৫), শিশুপদ (১৬), অমূল্য (১৫), রতনকে (১৬) নির্যাতনের নির্দেশদাতা পাঁচ মাতবরকে আটক করে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। তারা হলেন : শুলুকিয়া গ্রামের জেলেপাড়ার মাতবর শ্রীহরি জলদাস, নেপাল চন্দ জলদাস, বিধান চন্দ জলদাস, রায় মোহন জলদাস ও প্রিয়লাল জলদাস। হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের সোমবার এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, রোববার রাতে নির্যাতনের শিকার শিশুপদর বাবা হরিপদ জলদাস ছয়জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। উল্লেখ্য, রোববার সকালে দক্ষিণ শুলুকিয়া জেলেপাড়ার সালিশে ওই পাঁচ কিশোর জেলেকে রশিতে বেঁধে লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটানো হয়। এ ছাড়া মাতবররা তাদের ১০ বেত করে মারার আদেশ দেন ও প্রত্যেকের দুই হাজার টাকা জরিমানা করেন।

কুমিল্লা : মোবাইল চুরির অপবাদে মুরাদনগর উপজেলার দক্ষিণ নোয়াগাঁওয়ের আল আমীনের ছেলে সোহাগকে (১৭) গাছের খুঁটির সঙ্গে হাত-পা বেঁধে নির্যাতনের মামলায় একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মুরাদনগর থানার ওসি সাদেকুর রহমান জানান, রোববার সন্ধ্যায় সোহাগের মা পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। অভিযুক্তরা হলো : একই গ্রামের মোকবল হোসেনের ছেলে আশিক, মতিন মোল্লার ছেলে রুবেল ও আছমত আলীর ছেলে কামাল।

জানা গেছে, গত বুধবার রাতে কামারচর মোড় এলাকায় হোসেনের ছেলে সজিবের দোকান থেকে একটি মোবাইল ও নগদ কিছু টাকা চুরি হয়। চুরির সন্দেহে বৃহস্পতিবার সকালে অভিযুক্তরা সোহাগকে বাড়ি থেকে ধরে এনে মোকবল হোসেনের বাড়িতে নির্যাতন চালায়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হাত-পা বেঁধে কিশোর নির্যাতন

নোয়াখালীতে ৫ কিশোর নির্যাতন মামলায় ৫ ও কুমিল্লায় গ্রেফতার ১
 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৮ মে ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চুরির অপবাদে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে কিশোর ইয়াকুবকে হাত-পা বেঁধে নির্মম নির্যাতন করা হয়েছে। এ ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ছাড়া নোয়াখালীর হাতিয়ায় পাঁচ কিশোর ও কুমিল্লার মুরাদনগরে সোহাগ মিয়াকে নির্যাতনের মামলায় ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নোয়াখালী ও মুরাদনগর (কুমিল্লা) প্রতিনিধির পাঠানো খবর-

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : বিজয়নগরে মোবাইল চুরির অপবাদে কিশোর ইয়াকুবকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন মামলায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন : বাবুল মিয়া (৪৫), মান্নান (২৩) ও শাহীন ওরফে মান্না (২১)। তাদের বাড়ি উপজেলার সিঙ্গারবিল ইউনিয়নের পশ্চিম মেরাসানী গ্রামে। নির্যাতিত ইয়াকুব মেরাসানী গ্রামের মৃত মজলু ভূঁইয়ার ছেলে। এ ঘটনায় রোববার রাতে সাতজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন ইয়াকুবের নানি আরিজা বেগম।

ফেসবুকে রোববার ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন যুবক ইয়াকুবকে নির্যাতন করছে। এ সময় সে আর্তচিৎকার করলেও নির্যাতন থেমে থাকেনি।

নোয়াখালী : হাতিয়ায় বিন্দি জাল চুরির অভিযোগে পাঁ কিশোর-মহাদেব (১৫), কিরণ (১৫), শিশুপদ (১৬), অমূল্য (১৫), রতনকে (১৬) নির্যাতনের নির্দেশদাতা পাঁচ মাতবরকে আটক করে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। তারা হলেন : শুলুকিয়া গ্রামের জেলেপাড়ার মাতবর শ্রীহরি জলদাস, নেপাল চন্দ জলদাস, বিধান চন্দ জলদাস, রায় মোহন জলদাস ও প্রিয়লাল জলদাস। হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের সোমবার এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, রোববার রাতে নির্যাতনের শিকার শিশুপদর বাবা হরিপদ জলদাস ছয়জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। উল্লেখ্য, রোববার সকালে দক্ষিণ শুলুকিয়া জেলেপাড়ার সালিশে ওই পাঁচ কিশোর জেলেকে রশিতে বেঁধে লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটানো হয়। এ ছাড়া মাতবররা তাদের ১০ বেত করে মারার আদেশ দেন ও প্রত্যেকের দুই হাজার টাকা জরিমানা করেন।

কুমিল্লা : মোবাইল চুরির অপবাদে মুরাদনগর উপজেলার দক্ষিণ নোয়াগাঁওয়ের আল আমীনের ছেলে সোহাগকে (১৭) গাছের খুঁটির সঙ্গে হাত-পা বেঁধে নির্যাতনের মামলায় একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মুরাদনগর থানার ওসি সাদেকুর রহমান জানান, রোববার সন্ধ্যায় সোহাগের মা পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। অভিযুক্তরা হলো : একই গ্রামের মোকবল হোসেনের ছেলে আশিক, মতিন মোল্লার ছেলে রুবেল ও আছমত আলীর ছেলে কামাল।

জানা গেছে, গত বুধবার রাতে কামারচর মোড় এলাকায় হোসেনের ছেলে সজিবের দোকান থেকে একটি মোবাইল ও নগদ কিছু টাকা চুরি হয়। চুরির সন্দেহে বৃহস্পতিবার সকালে অভিযুক্তরা সোহাগকে বাড়ি থেকে ধরে এনে মোকবল হোসেনের বাড়িতে নির্যাতন চালায়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন