মিরপুরে ‘অপুর দলের’ প্রধানসহ আটক ৩
jugantor
মিরপুরে ‘অপুর দলের’ প্রধানসহ আটক ৩

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৯ জুন ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

এবার মিরপুরে ‘অপুর দল’ নামে একটি কিশোর গ্যাংয়ের দলনেতাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। র‌্যাব বলছে, কিশোর বয়স থেকেই মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি, ছিনতাইসহ নানা অপকর্মে জড়িত দলনেতা অপুসহ এরা সবাই। শুক্রবার ভোরে মিরপুর মডেল থানার ৬০ ফিট এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এরা হলেন, মো. নাসির আহমেদ ওরফে অপু (২৩), মো. হৃদয় (২১), মো. আতিকুর রহমান (২৫)। এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি চাইনিজ কুড়াল, একটি ফোল্ডিং চাকু, একটি চাপাতি, ৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং নগদ ৫১০ টাকা উদ্ধার করা হয়। এর আগে গত বৃহস্কতিবার ভোরে পল্লবী এলাকা থেকে র‌্যাব-২ এর একটি দল গ্রেফতার করে অপর কিশোর গ্যাং ‘রুমান্টিক গ্রুপ’র ৮ সদস্যকে। এছাড়া গত সোমবার রাতে শনির আখড়া থেকে ‘রক কিং’ গ্যাংয়ের পাঁচ সদস্যকে আটক করে র‌্যাব-৩ এর একটি দল। র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক এডিশনাল ডিআইজি মোজাম্মেল হক যুগান্তরকে বলেন, শুক্রবার ভোরে মিরপুর ৬০ ফিট এলাকা থেকে আটক তরুণরা কিশোর বয়স থেকেই নানা ধরনের অপরাধে জড়িত। মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, মেয়েদের উত্ত্যক্ত করাসহ নানা অপকর্মের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা তারা র‌্যাবের কাছে স্বীকার করেছে। তারা রাস্তাঘাটে পরিকল্পিতভাবে দলবদ্ধ হয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করে আসছিল। তিনি বলেন, এলাকায় কোনো অপরিচিত লোক গেলে ভয়-ভীতি দেখিয়ে মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনিয়ে নিত এরা। এদের চলাফেরা বেপরোয়া এবং গতি খুব দ্রুত। এরা কারও কাছ থেকে ছিনতাইয়ের পর তা দ্রুত পেছনে থাকা তাদের দলের অন্য সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করে দেয়। ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহারের জন্য তারা সবসময় নিজেদের কাছে ধারালো দেশীয় অস্ত্র রাখে। এলাকায় ছিনতাই ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রায়ই তাদের মধ্যে মারামারির ঘটনাও ঘটাতো। এমনকি নিজেদের গ্রুপের আধিপত্য বজায় রাখার জন্য অন্য কিশোর গ্যাংয়ের সঙ্গে মারামারিসহ বিভিন্ন সশস্ত্র সংঘর্ষেও তারা জড়িয়ে পড়ত বলে জানান তিনি।

মিরপুরে ‘অপুর দলের’ প্রধানসহ আটক ৩

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৯ জুন ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

এবার মিরপুরে ‘অপুর দল’ নামে একটি কিশোর গ্যাংয়ের দলনেতাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। র‌্যাব বলছে, কিশোর বয়স থেকেই মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি, ছিনতাইসহ নানা অপকর্মে জড়িত দলনেতা অপুসহ এরা সবাই। শুক্রবার ভোরে মিরপুর মডেল থানার ৬০ ফিট এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এরা হলেন, মো. নাসির আহমেদ ওরফে অপু (২৩), মো. হৃদয় (২১), মো. আতিকুর রহমান (২৫)। এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি চাইনিজ কুড়াল, একটি ফোল্ডিং চাকু, একটি চাপাতি, ৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং নগদ ৫১০ টাকা উদ্ধার করা হয়। এর আগে গত বৃহস্কতিবার ভোরে পল্লবী এলাকা থেকে র‌্যাব-২ এর একটি দল গ্রেফতার করে অপর কিশোর গ্যাং ‘রুমান্টিক গ্রুপ’র ৮ সদস্যকে। এছাড়া গত সোমবার রাতে শনির আখড়া থেকে ‘রক কিং’ গ্যাংয়ের পাঁচ সদস্যকে আটক করে র‌্যাব-৩ এর একটি দল। র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক এডিশনাল ডিআইজি মোজাম্মেল হক যুগান্তরকে বলেন, শুক্রবার ভোরে মিরপুর ৬০ ফিট এলাকা থেকে আটক তরুণরা কিশোর বয়স থেকেই নানা ধরনের অপরাধে জড়িত। মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, মেয়েদের উত্ত্যক্ত করাসহ নানা অপকর্মের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা তারা র‌্যাবের কাছে স্বীকার করেছে। তারা রাস্তাঘাটে পরিকল্পিতভাবে দলবদ্ধ হয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করে আসছিল। তিনি বলেন, এলাকায় কোনো অপরিচিত লোক গেলে ভয়-ভীতি দেখিয়ে মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনিয়ে নিত এরা। এদের চলাফেরা বেপরোয়া এবং গতি খুব দ্রুত। এরা কারও কাছ থেকে ছিনতাইয়ের পর তা দ্রুত পেছনে থাকা তাদের দলের অন্য সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করে দেয়। ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহারের জন্য তারা সবসময় নিজেদের কাছে ধারালো দেশীয় অস্ত্র রাখে। এলাকায় ছিনতাই ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রায়ই তাদের মধ্যে মারামারির ঘটনাও ঘটাতো। এমনকি নিজেদের গ্রুপের আধিপত্য বজায় রাখার জন্য অন্য কিশোর গ্যাংয়ের সঙ্গে মারামারিসহ বিভিন্ন সশস্ত্র সংঘর্ষেও তারা জড়িয়ে পড়ত বলে জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন