নোয়াখালীতে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আসামি গ্রেফতার ও চার্জশিট
jugantor
ছোট ভাইকে পিটিয়ে হত্যা
নোয়াখালীতে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আসামি গ্রেফতার ও চার্জশিট

  নোয়াখালী ও সোনাইমুড়ি প্রতিনিধি  

২২ জুন ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সোনাইমুড়ী উপজেলায় ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে হত্যা মামলার অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেছে পুলিশ। রোববার বিকালে নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। ছোটভাইকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় বড় দুই ভাইকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় এক ভাতিজাকেও গ্রেফতার করা হয়। শুক্রবার উপজেলার জয়াগ ইউনিয়নে পারিবারিক কলহ ও পাওনা টাকাকে কেন্দ্র করে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানায়, শুক্রবার দুপুর আড়াইটার দিকে জয়াগ ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ভাওরকোট গ্রামে ফকিরবাড়িতে ছোটভাই ইলিয়াছ হোসেনকে (৩০) তার বড় দুইভাই শাহ আলম (৪৫) ও গোলাম সরোয়ার (৪০) পিটিয়ে হত্যা করে। প্রথমে ইলিয়াছকে রড দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করা হয়।

এরপর সরোয়ার ধারালো ছোরা দিয়ে তার ডান ও বাম পায়ের ঊরুতে একাধিকবার আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলে ইলিয়াছের মৃত্যু হয়। এ হত্যাকাণ্ডে ভাতিজা নাছির আহম্মেদ শুভ ও সজীব আহম্মেদ জিদানও অংশ নেয়। খবর পেয়ে পুলিশ শাহ আলম, সরোয়ার ও শুভকে গ্রেফতার করে। ঘটনাস্থলের পাশ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত ছোরা ও লোহার রড উদ্ধার করা হয়।

শনিবার ইলিয়াছের সৎ-মা রৌশন আক্তার বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে সোনাইমুড়ী থানায় হত্যা মামলা করেন। হত্যাকাণ্ডের সাক্ষ্যপ্রমাণ সংগ্রহ করে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও সোনাইমুড়ী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আ ফ ম কামাল উদ্দিন। এদিকে দোষ স্বীকার করে সরোয়ার আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ছোট ভাইকে পিটিয়ে হত্যা

নোয়াখালীতে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আসামি গ্রেফতার ও চার্জশিট

 নোয়াখালী ও সোনাইমুড়ি প্রতিনিধি 
২২ জুন ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সোনাইমুড়ী উপজেলায় ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে হত্যা মামলার অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেছে পুলিশ। রোববার বিকালে নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। ছোটভাইকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় বড় দুই ভাইকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় এক ভাতিজাকেও গ্রেফতার করা হয়। শুক্রবার উপজেলার জয়াগ ইউনিয়নে পারিবারিক কলহ ও পাওনা টাকাকে কেন্দ্র করে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানায়, শুক্রবার দুপুর আড়াইটার দিকে জয়াগ ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ভাওরকোট গ্রামে ফকিরবাড়িতে ছোটভাই ইলিয়াছ হোসেনকে (৩০) তার বড় দুইভাই শাহ আলম (৪৫) ও গোলাম সরোয়ার (৪০) পিটিয়ে হত্যা করে। প্রথমে ইলিয়াছকে রড দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করা হয়।

এরপর সরোয়ার ধারালো ছোরা দিয়ে তার ডান ও বাম পায়ের ঊরুতে একাধিকবার আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলে ইলিয়াছের মৃত্যু হয়। এ হত্যাকাণ্ডে ভাতিজা নাছির আহম্মেদ শুভ ও সজীব আহম্মেদ জিদানও অংশ নেয়। খবর পেয়ে পুলিশ শাহ আলম, সরোয়ার ও শুভকে গ্রেফতার করে। ঘটনাস্থলের পাশ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত ছোরা ও লোহার রড উদ্ধার করা হয়।

শনিবার ইলিয়াছের সৎ-মা রৌশন আক্তার বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে সোনাইমুড়ী থানায় হত্যা মামলা করেন। হত্যাকাণ্ডের সাক্ষ্যপ্রমাণ সংগ্রহ করে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও সোনাইমুড়ী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আ ফ ম কামাল উদ্দিন। এদিকে দোষ স্বীকার করে সরোয়ার আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন