রোগীর স্বজন ও নিরাপত্তা কর্মীদের সংঘর্ষে আহত ১০
jugantor
রাগীব-রাবেয়া হাসপাতালে নারীর মৃত্যু
রোগীর স্বজন ও নিরাপত্তা কর্মীদের সংঘর্ষে আহত ১০

  সিলেট ব্যুরো  

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সিলেটের জালালাবাদের রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বুধবার দুপুরে চিকিৎসাধীন নারীর মৃত্যুর ঘটনায় তার স্বজনদের সঙ্গে হাসপাতালের নিরাপত্তা কর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। হামলার প্রতিবাদে মৃত রোগীর স্বজনসহ পরিবহণ শ্রমিকরা পাঠানটুলা এলাকায় সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে রাখে। ওই রোগীর নাম ফুলজান বিবি (৭৩)।

স্বজনদের অভিযোগ, ভুল চিকিৎসায় তার মৃত্যু হয়েছে। ফুলজান সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার ইসলামাবাদ এলাকার বাসিন্দা। তার স্বামী ও ছেলেদের অভিযোগ, ফুলজান বিবি তিন দিন আগেই ভুল চিকিৎসায় মারা যান। মৃত্যুর পর তার লাশ আইসিইউতে রেখে দেন মেডিকেল কর্তৃপক্ষ। সংঘর্ষের ঘটনার খবর পেয়ে সিলেট মহানগর পুলিশের (এসএমপি) উপকমিশনার (উত্তর) মো. আজবাহার আলী শেখ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

রাগীব-রাবেয়া মেডিকেলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনার জেরে নগরীর পাঠানটুলা পয়েন্টে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে রাখেন ফুলজানের স্বজন ও পরিবহণ শ্রমিকরা। এ সময় রাস্তার দুপাশে গাড়ির দীর্ঘ লাইন ও তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। ফুলজানের ছেলে সিলেট জেলা ট্রাক-কাভার্ডভ্যান-পিকআপ শ্রমিক সংগঠনের একজন সদস্য। তাকে হাসপাতালের নিরাপত্তা কর্মীরা মারধর করায় শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করেন। এ সময় তারা সড়কের দুই পাশে ট্রাক দিয়ে যান চলাচল বন্ধ করেন দেন। এতে নগরীর আম্বরখানা থেকে সুনামগঞ্জ রোডে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এসএমপির ডিসি মো. আজবাহার আলী শেখ শ্রমিকদের দাবির বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেন।

এ বিষয়ে হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. তারেক আজাদকে একাধিকবার ফোন দেওয়া হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

মো. আজবাহার আলী শেখ বলেন, এক করোনা আক্রান্ত নারী রোগীর মৃত্যু নিয়ে স্বজন ও নিরাপত্তা কর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয় এবং কিছু ভাঙচুর হয়।

রাগীব-রাবেয়া হাসপাতালে নারীর মৃত্যু

রোগীর স্বজন ও নিরাপত্তা কর্মীদের সংঘর্ষে আহত ১০

 সিলেট ব্যুরো 
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সিলেটের জালালাবাদের রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বুধবার দুপুরে চিকিৎসাধীন নারীর মৃত্যুর ঘটনায় তার স্বজনদের সঙ্গে হাসপাতালের নিরাপত্তা কর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। হামলার প্রতিবাদে মৃত রোগীর স্বজনসহ পরিবহণ শ্রমিকরা পাঠানটুলা এলাকায় সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে রাখে। ওই রোগীর নাম ফুলজান বিবি (৭৩)।

স্বজনদের অভিযোগ, ভুল চিকিৎসায় তার মৃত্যু হয়েছে। ফুলজান সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার ইসলামাবাদ এলাকার বাসিন্দা। তার স্বামী ও ছেলেদের অভিযোগ, ফুলজান বিবি তিন দিন আগেই ভুল চিকিৎসায় মারা যান। মৃত্যুর পর তার লাশ আইসিইউতে রেখে দেন মেডিকেল কর্তৃপক্ষ। সংঘর্ষের ঘটনার খবর পেয়ে সিলেট মহানগর পুলিশের (এসএমপি) উপকমিশনার (উত্তর) মো. আজবাহার আলী শেখ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

রাগীব-রাবেয়া মেডিকেলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনার জেরে নগরীর পাঠানটুলা পয়েন্টে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে রাখেন ফুলজানের স্বজন ও পরিবহণ শ্রমিকরা। এ সময় রাস্তার দুপাশে গাড়ির দীর্ঘ লাইন ও তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। ফুলজানের ছেলে সিলেট জেলা ট্রাক-কাভার্ডভ্যান-পিকআপ শ্রমিক সংগঠনের একজন সদস্য। তাকে হাসপাতালের নিরাপত্তা কর্মীরা মারধর করায় শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করেন। এ সময় তারা সড়কের দুই পাশে ট্রাক দিয়ে যান চলাচল বন্ধ করেন দেন। এতে নগরীর আম্বরখানা থেকে সুনামগঞ্জ রোডে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এসএমপির ডিসি মো. আজবাহার আলী শেখ শ্রমিকদের দাবির বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেন।

এ বিষয়ে হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. তারেক আজাদকে একাধিকবার ফোন দেওয়া হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

মো. আজবাহার আলী শেখ বলেন, এক করোনা আক্রান্ত নারী রোগীর মৃত্যু নিয়ে স্বজন ও নিরাপত্তা কর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয় এবং কিছু ভাঙচুর হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন