গৃহবধূর নগ্ন ছবি নিয়ে ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগ
jugantor
গৃহবধূর নগ্ন ছবি নিয়ে ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগ
বগুড়ায় যুবক গ্রেফতার

  বগুড়া ব্যুরো  

২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বগুড়ায় বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক গৃহবধূর নগ্ন ভিডিও হাতিয়ে তাকে ব্ল্যাকমেইল করার অভিযোগে মাহমুদ মুন্না নামে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ডিবি পুলিশের একটি দল রোববার রাতে তাকে শেরপুর উপজেলার বাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করে। তার কাছে একটি মোবাইল ফোন, দুটি সিম কার্ড ও একটি মেমোরি কার্ড পাওয়া গেছে। সোমবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে ওই গৃহবধূ তার বিরুদ্ধে শেরপুর থানায় মামলা করেন। পুলিশ ও এজাহার সূত্রে জানা যায়, বখাটে যুবক মুন্না উপজেলার পুণ্যতলা শ্রীরামপুর গ্রামের জমশের আলীর ছেলে। ওই গৃহবধূকে একটি মোবাইল টেলিকমের দোকানে দেখলে তার পছন্দ হয়। এরপর ফেসবুক আইডি সংগ্রহ করে বন্ধুত্ব স্থাপন করে। এক পর্যায়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। কিছুদিন পর বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নগ্ন স্থির ও ভিডিওচিত্র দাবি করে। গৃহবধূ রাজি হয়ে অর্ধনগ্ন অবস্থায় ভিডিও কলে এলে বখাটে মুন্না সেই স্থির ও ভিডিওচিত্র রেকর্ড করে। তাদের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি হলে মুন্না ১৮ সেপ্টেম্বর ভিডিও ও স্থিরচিত্র ফেসবুক মেসেঞ্জারে পাঠিয়ে কুপ্রস্তাব দেয়। অন্যথায় তা ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। বাধ্য হয়ে গৃহবধূ বগুড়া ডিবি পুলিশের সাইবার টিমের কাছে অভিযোগ করেন। এছাড়া শেরপুর থানায় মুন্নার বিরুদ্ধে মামলা করেন। সাইবার পুলিশের একটি টিম রোববার রাতে গোপনে খবর পেয়ে শেরপুর বাজার এলাকা থেকে মুন্নাকে গ্রেফতার করে।

বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) ফয়সাল মাহমুদ জানান, গ্রেফতার মুন্নার মোবাইল ফোন বিশ্লেষণে একাধিক নারীর কাছ থেকে কৌশলে নগ্ন ছবি সংগ্রহের প্রমাণ পাওয়া গেছে।

গৃহবধূর নগ্ন ছবি নিয়ে ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগ

বগুড়ায় যুবক গ্রেফতার
 বগুড়া ব্যুরো 
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বগুড়ায় বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক গৃহবধূর নগ্ন ভিডিও হাতিয়ে তাকে ব্ল্যাকমেইল করার অভিযোগে মাহমুদ মুন্না নামে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ডিবি পুলিশের একটি দল রোববার রাতে তাকে শেরপুর উপজেলার বাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করে। তার কাছে একটি মোবাইল ফোন, দুটি সিম কার্ড ও একটি মেমোরি কার্ড পাওয়া গেছে। সোমবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে ওই গৃহবধূ তার বিরুদ্ধে শেরপুর থানায় মামলা করেন। পুলিশ ও এজাহার সূত্রে জানা যায়, বখাটে যুবক মুন্না উপজেলার পুণ্যতলা শ্রীরামপুর গ্রামের জমশের আলীর ছেলে। ওই গৃহবধূকে একটি মোবাইল টেলিকমের দোকানে দেখলে তার পছন্দ হয়। এরপর ফেসবুক আইডি সংগ্রহ করে বন্ধুত্ব স্থাপন করে। এক পর্যায়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। কিছুদিন পর বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নগ্ন স্থির ও ভিডিওচিত্র দাবি করে। গৃহবধূ রাজি হয়ে অর্ধনগ্ন অবস্থায় ভিডিও কলে এলে বখাটে মুন্না সেই স্থির ও ভিডিওচিত্র রেকর্ড করে। তাদের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি হলে মুন্না ১৮ সেপ্টেম্বর ভিডিও ও স্থিরচিত্র ফেসবুক মেসেঞ্জারে পাঠিয়ে কুপ্রস্তাব দেয়। অন্যথায় তা ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। বাধ্য হয়ে গৃহবধূ বগুড়া ডিবি পুলিশের সাইবার টিমের কাছে অভিযোগ করেন। এছাড়া শেরপুর থানায় মুন্নার বিরুদ্ধে মামলা করেন। সাইবার পুলিশের একটি টিম রোববার রাতে গোপনে খবর পেয়ে শেরপুর বাজার এলাকা থেকে মুন্নাকে গ্রেফতার করে।

 

বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) ফয়সাল মাহমুদ জানান, গ্রেফতার মুন্নার মোবাইল ফোন বিশ্লেষণে একাধিক নারীর কাছ থেকে কৌশলে নগ্ন ছবি সংগ্রহের প্রমাণ পাওয়া গেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন