যুবলীগের পালটাপালটি কমিটি নিয়ে উত্তেজনা
jugantor
যুবলীগের পালটাপালটি কমিটি নিয়ে উত্তেজনা

  যুগান্তর প্রতিবেদন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আশুগঞ্জ উপজেলায় এক ইউনিয়নে আওয়ামী যুবলীগের কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। রোববার রাতে উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের পালটাপালটি কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে এই উত্তেজনা বিরাজ করছে। তবে ঘোষিত কমিটিকে যথাযথ হয়নি বলে মন্তব্য করেন জেলা যুবলীগের নেতারা।

জানা গেছে, রোববার এক সভা শেষে রাতে উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের আওয়ামী যুবলীগের পালটাপালটি কমিটি ঘোষণা করেছেন আহ্বায়ক সাইফুর রহমান মনি ও ১নং যুগ্ম আহ্বায়ক আতাউর রহমান কবির। আহ্বায়ক সাইফুর রহমান মনি ঘোষিত ইউনিয়ন কমিটিতে শাহজাহান খানকে সভাপতি ও রেদোয়ান সিদ্দিক সুজাতকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। এই কমিটিতে আরও স্বাক্ষর করেন যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট মোশারফ হোসেন, শেখ মো. দাউদ (অপি) ও মতিউর রহমান সরকার। এতে উল্লেখ করা হয়, ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের ২য় অধিবেশনে ৩ বছরের জন্য এই কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

এই কমিটি ঘোষণার পর পরই আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের ১নং যুগ্ম আহ্বায়ক আতাউর রহমান কবির স্বাক্ষরিত দুর্গাপুর ইউনিয়নের আরও একটি কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এতে খালেদুর রহমান লিটনকে সভাপতি ও আহসানুল ইসলাম লিটনকে সাধারণ সম্পাদক করে এক বছরের জন্য কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়। ইউনিয়ন যুবলীগের পালটাপালটি কমিটি ঘোষণা নিয়ে স্থানীয় নেতাকর্মীদের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এ বিষয়ে আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক সাইফুর রহমান মনি বলেন, আমি আহ্বায়ক, অন্যান্য যুগ্ম আহ্বায়কদের নিয়ে এই ইউনিয়নের কমিটি সম্মেলনের মাধ্যমে গঠন করা হয়েছে। সে (আতাউর রহমান কবির) ঘরে বসে এককভাবে কমিটি দিয়েছে। আর আমরা সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি দিয়েছি। সম্মেলনের ব্যানারের ছবিও আছে। কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুযায়ী আমাদের কমিটি গঠন প্রক্রিয়া বন্ধ ছিল। সম্প্রতি করোনার প্রকোপ কমে যাওয়ায় আমরা উপজেলার যুবলীগের বিভিন্ন কমিটি গঠন শুরু করেছি।

আশুগঞ্জ যুবলীগের ১নং যুগ্ম আহ্বায়ক আতাউর রহমান কবির বলেন, কেন্দ্র ও জেলার কোনো নির্দেশনা নেই ইউনিয়ন কমিটি গঠন করার। আজকে ওই ইউনিয়নের একটি কর্মিসভা ছিল। সভা শুরুর মাত্র ৫ মিনিট আগে সম্মেলনের ব্যানার ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। অথচ ইউনিয়ন কমিটি গঠনের আগে ওয়ার্ড কমিটিগুলো গঠন করতে হয়। সারা দেশের মতো এ জেলাও যুবলীগের বর্ধিত সভার পর কমিটি গঠন প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার কথা। যখন দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করে কমিটি গঠন করার প্রক্রিয়া চলছে, তখন কিছু কুচক্রী মহল তাদের স্বার্থ হাসিল করতে অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আমি বিষয়টি কেন্দ্র ও জেলা কমিটিকে জানিয়েছি।

এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস বলেন, বিষয়টি ইতোমধ্যে আমরা অবগত হয়েছি। কমিটি গঠন সাংগঠনিক প্রক্রিয়ায় হয়নি। আমরা কেন্দ্রের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

যুবলীগের পালটাপালটি কমিটি নিয়ে উত্তেজনা

 যুগান্তর প্রতিবেদন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া 
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আশুগঞ্জ উপজেলায় এক ইউনিয়নে আওয়ামী যুবলীগের কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। রোববার রাতে উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের পালটাপালটি কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে এই উত্তেজনা বিরাজ করছে। তবে ঘোষিত কমিটিকে যথাযথ হয়নি বলে মন্তব্য করেন জেলা যুবলীগের নেতারা।

জানা গেছে, রোববার এক সভা শেষে রাতে উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের আওয়ামী যুবলীগের পালটাপালটি কমিটি ঘোষণা করেছেন আহ্বায়ক সাইফুর রহমান মনি ও ১নং যুগ্ম আহ্বায়ক আতাউর রহমান কবির। আহ্বায়ক সাইফুর রহমান মনি ঘোষিত ইউনিয়ন কমিটিতে শাহজাহান খানকে সভাপতি ও রেদোয়ান সিদ্দিক সুজাতকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। এই কমিটিতে আরও স্বাক্ষর করেন যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট মোশারফ হোসেন, শেখ মো. দাউদ (অপি) ও মতিউর রহমান সরকার। এতে উল্লেখ করা হয়, ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের ২য় অধিবেশনে ৩ বছরের জন্য এই কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

এই কমিটি ঘোষণার পর পরই আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের ১নং যুগ্ম আহ্বায়ক আতাউর রহমান কবির স্বাক্ষরিত দুর্গাপুর ইউনিয়নের আরও একটি কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এতে খালেদুর রহমান লিটনকে সভাপতি ও আহসানুল ইসলাম লিটনকে সাধারণ সম্পাদক করে এক বছরের জন্য কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়। ইউনিয়ন যুবলীগের পালটাপালটি কমিটি ঘোষণা নিয়ে স্থানীয় নেতাকর্মীদের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এ বিষয়ে আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক সাইফুর রহমান মনি বলেন, আমি আহ্বায়ক, অন্যান্য যুগ্ম আহ্বায়কদের নিয়ে এই ইউনিয়নের কমিটি সম্মেলনের মাধ্যমে গঠন করা হয়েছে। সে (আতাউর রহমান কবির) ঘরে বসে এককভাবে কমিটি দিয়েছে। আর আমরা সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি দিয়েছি। সম্মেলনের ব্যানারের ছবিও আছে। কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুযায়ী আমাদের কমিটি গঠন প্রক্রিয়া বন্ধ ছিল। সম্প্রতি করোনার প্রকোপ কমে যাওয়ায় আমরা উপজেলার যুবলীগের বিভিন্ন কমিটি গঠন শুরু করেছি।

আশুগঞ্জ যুবলীগের ১নং যুগ্ম আহ্বায়ক আতাউর রহমান কবির বলেন, কেন্দ্র ও জেলার কোনো নির্দেশনা নেই ইউনিয়ন কমিটি গঠন করার। আজকে ওই ইউনিয়নের একটি কর্মিসভা ছিল। সভা শুরুর মাত্র ৫ মিনিট আগে সম্মেলনের ব্যানার ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। অথচ ইউনিয়ন কমিটি গঠনের আগে ওয়ার্ড কমিটিগুলো গঠন করতে হয়। সারা দেশের মতো এ জেলাও যুবলীগের বর্ধিত সভার পর কমিটি গঠন প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার কথা। যখন দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করে কমিটি গঠন করার প্রক্রিয়া চলছে, তখন কিছু কুচক্রী মহল তাদের স্বার্থ হাসিল করতে অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আমি বিষয়টি কেন্দ্র ও জেলা কমিটিকে জানিয়েছি।

এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস বলেন, বিষয়টি ইতোমধ্যে আমরা অবগত হয়েছি। কমিটি গঠন সাংগঠনিক প্রক্রিয়ায় হয়নি। আমরা কেন্দ্রের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন