উল্লাপাড়ায় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, কনস্টেবল আটক
jugantor
উল্লাপাড়ায় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, কনস্টেবল আটক
গোলাপগঞ্জে ৯৯৯-এ জানানোর পর ধর্ষক গ্রেফতার * দিনাজপুরের বোঁচাগঞ্জে স্কুলশিক্ষিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ * ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে কিশোরী ধর্ষণের শিকার

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৩ অক্টোবর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিয়ের প্রলোভনে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে মাজেদুল ইসলাম বাবু নামে এক পুলিশ কনস্টেবলকে শুক্রবার আটক করেছে উল্লাপাড়া থানা পুলিশ। সিলেটের গোলাপগঞ্জে মধ্যরাতে নিজ বাড়িতে এক গৃহবধূ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। দিনাজপুরের বোঁচাগঞ্জে স্কুলশিক্ষিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় দুই যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) : গৃহবধূকে ধর্ষণে অভিযুক্ত পুলিশ কনস্টেবল মাজেদুল ইসলাম উল্লাপাড়া উপজেলার ভদ্রকোল গ্রামের আলতাব হোসেনের ছেলে। বর্তমানে তিনি গুলশান-২ থানায় কর্মরত। উপজেলার মনিরপুর গ্রামের ভুক্তভোগী গৃহবধূ উল্লাপাড়া মডেল থানায় দেওয়া অভিযোগপত্রে জানান, প্রতিবেশী পুলিশ কনস্টেবল মাজেদুল তাকে বিয়ের প্রস্তাব ও নানা প্রলোভন দিতেন। একপর্যায়ে স্বামীকে তালাক দিয়ে বাবার বাড়ি চলে যান তিনি। এরপর মাজেদুল ছুটিতে বাড়িতে এসে তাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। তাকে কিছু দিন গাজীপুরে একটি ভাড়া বাসায়ও রাখেন। সর্বশেষ ২০ অক্টোবর রাতে মাজেদুল তাকে তার বাবার বাড়িতে ধর্ষণ করে। এ সময় বিয়ের জন্য চাপ দিলে মাজেদুল তাতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে তিনি চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এসে মাজেদুলকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করে। উল্লাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হুমায়ন কবির বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

গোলাপগঞ্জ (সিলেট) : সিলেটের গোলাপগঞ্জে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ বুধবার রাত ১২টার দিকে জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ কল করে ঘটনাটি জানিয়ে পুলিশের কাছে সহায়তা চান। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ছানু মিয়া (২৫) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে গোলাপগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন। পরে গৃহবধূকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়।

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) : ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ জানায়, উপজেলা রাজিবপুর ইউনিয়নের বৃ-দেবস্থান গ্রামের আবুল কাসেমের পুত্র শামীম মিয়া কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে। ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল কাদের মিয়া জানান, কিশোরী পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

দিনাজপুর : বোঁচাগঞ্জে শিক্ষিকাকে আখখেতে নিয়ে সোমবার সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ বোঁচাগঞ্জ উপজেলার সুলতানপুর আবাসনের নুর ইসলামের ছেলে মামুনুর রশিদ (২৬) ও একই উপজেলার সেনিহারী গ্রামের মো. সাহিজ উদ্দীনের ছেলে সুজন আলীকে (২৫) গ্রেফতার করেছে।

বিশ্বনাথ (সিলেট) : বিশ্বনাথে বিয়ের প্রলোভনে স্বামীর ঘর থেকে এক সন্তানের জননীকে পালিয়ে নিয়ে নয় মাস আটক রেখে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বুধবার রাতে ওই নারী বাদী হয়ে থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন। অভিযুক্ত উপজেলার পুরান সিরাজপুর গ্রামের আব্দুল খালিকের ছেলে রাসেল আহমদকে (২৮) বুধবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ

ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) : ভৈরবে বিয়ের প্রভোলন দেখিয়ে নারীকে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগে উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা সৈয়দ মো. রফিকুল ইসলাম নয়নকে আদালত কারাগারে পাঠিয়েছেন। ভুক্তভোগী নারী বৃহস্পতিবার যুগান্তরকে জানান, ধর্ষণের কারণে তিনি গর্ভবতী হলে ওষুধ খাওয়াইয়া নষ্ট করে রফিকুল। এখন বিয়ে না করে টাকা দিয়ে ঘটনা আপস করতে চাইছে। আদালতের কাছে ন্যায়বিচার চাই।

বানারীপাড়া (বরিশাল) ও উজিরপুর : বানারীপাড়ায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরীকে প্রায় এক মাস আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে পাঁচজনকে আসামি করে থানায় মামলা করা হয়েছে। বুধবার রাতে উজিরপুর থানায় ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে এ মামলা করেন। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে আদালতে জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে।

ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) : টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ৩৪ দিন আটকে রেখে এক কিশোরীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ওই কিশোরীকে ভারত পাচারের উদ্যোগ নেয় পাচারকারীরা। সেখান থেকে কৌশলে পালিয়ে আসে সে। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে আল আমিনকে প্রধান আসামি করে অজ্ঞাত আরও ৫-৬ জনের বিরুদ্ধে রোববার টাঙ্গাইল আদালতে মামলা করেন।

দশমিনা ও দক্ষিণ (পটুয়াখালী) : পটুয়াখালীর দশমিনায় শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে মো. মন্টু সিকদার (২৫) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে তাকে নিজ বাড়ির সামনে থেকে আটক করে পুলিশ। আটক মন্টু উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের চরহোসনাবাদ গ্রামের হানিফ সিকদারের ছেলে।

উল্লাপাড়ায় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, কনস্টেবল আটক

গোলাপগঞ্জে ৯৯৯-এ জানানোর পর ধর্ষক গ্রেফতার * দিনাজপুরের বোঁচাগঞ্জে স্কুলশিক্ষিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ * ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে কিশোরী ধর্ষণের শিকার
 যুগান্তর ডেস্ক 
২৩ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিয়ের প্রলোভনে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে মাজেদুল ইসলাম বাবু নামে এক পুলিশ কনস্টেবলকে শুক্রবার আটক করেছে উল্লাপাড়া থানা পুলিশ। সিলেটের গোলাপগঞ্জে মধ্যরাতে নিজ বাড়িতে এক গৃহবধূ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। দিনাজপুরের বোঁচাগঞ্জে স্কুলশিক্ষিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় দুই যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) : গৃহবধূকে ধর্ষণে অভিযুক্ত পুলিশ কনস্টেবল মাজেদুল ইসলাম উল্লাপাড়া উপজেলার ভদ্রকোল গ্রামের আলতাব হোসেনের ছেলে। বর্তমানে তিনি গুলশান-২ থানায় কর্মরত। উপজেলার মনিরপুর গ্রামের ভুক্তভোগী গৃহবধূ উল্লাপাড়া মডেল থানায় দেওয়া অভিযোগপত্রে জানান, প্রতিবেশী পুলিশ কনস্টেবল মাজেদুল তাকে বিয়ের প্রস্তাব ও নানা প্রলোভন দিতেন। একপর্যায়ে স্বামীকে তালাক দিয়ে বাবার বাড়ি চলে যান তিনি। এরপর মাজেদুল ছুটিতে বাড়িতে এসে তাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। তাকে কিছু দিন গাজীপুরে একটি ভাড়া বাসায়ও রাখেন। সর্বশেষ ২০ অক্টোবর রাতে মাজেদুল তাকে তার বাবার বাড়িতে ধর্ষণ করে। এ সময় বিয়ের জন্য চাপ দিলে মাজেদুল তাতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে তিনি চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এসে মাজেদুলকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করে। উল্লাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হুমায়ন কবির বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

গোলাপগঞ্জ (সিলেট) : সিলেটের গোলাপগঞ্জে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ বুধবার রাত ১২টার দিকে জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ কল করে ঘটনাটি জানিয়ে পুলিশের কাছে সহায়তা চান। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ছানু মিয়া (২৫) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে গোলাপগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন। পরে গৃহবধূকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়।

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) : ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ জানায়, উপজেলা রাজিবপুর ইউনিয়নের বৃ-দেবস্থান গ্রামের আবুল কাসেমের পুত্র শামীম মিয়া কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে। ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল কাদের মিয়া জানান, কিশোরী পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

দিনাজপুর : বোঁচাগঞ্জে শিক্ষিকাকে আখখেতে নিয়ে সোমবার সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ বোঁচাগঞ্জ উপজেলার সুলতানপুর আবাসনের নুর ইসলামের ছেলে মামুনুর রশিদ (২৬) ও একই উপজেলার সেনিহারী গ্রামের মো. সাহিজ উদ্দীনের ছেলে সুজন আলীকে (২৫) গ্রেফতার করেছে।

বিশ্বনাথ (সিলেট) : বিশ্বনাথে বিয়ের প্রলোভনে স্বামীর ঘর থেকে এক সন্তানের জননীকে পালিয়ে নিয়ে নয় মাস আটক রেখে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বুধবার রাতে ওই নারী বাদী হয়ে থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন। অভিযুক্ত উপজেলার পুরান সিরাজপুর গ্রামের আব্দুল খালিকের ছেলে রাসেল আহমদকে (২৮) বুধবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ

ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) : ভৈরবে বিয়ের প্রভোলন দেখিয়ে নারীকে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগে উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা সৈয়দ মো. রফিকুল ইসলাম নয়নকে আদালত কারাগারে পাঠিয়েছেন। ভুক্তভোগী নারী বৃহস্পতিবার যুগান্তরকে জানান, ধর্ষণের কারণে তিনি গর্ভবতী হলে ওষুধ খাওয়াইয়া নষ্ট করে রফিকুল। এখন বিয়ে না করে টাকা দিয়ে ঘটনা আপস করতে চাইছে। আদালতের কাছে ন্যায়বিচার চাই।

বানারীপাড়া (বরিশাল) ও উজিরপুর : বানারীপাড়ায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরীকে প্রায় এক মাস আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে পাঁচজনকে আসামি করে থানায় মামলা করা হয়েছে। বুধবার রাতে উজিরপুর থানায় ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে এ মামলা করেন। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে আদালতে জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে।

ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) : টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ৩৪ দিন আটকে রেখে এক কিশোরীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ওই কিশোরীকে ভারত পাচারের উদ্যোগ নেয় পাচারকারীরা। সেখান থেকে কৌশলে পালিয়ে আসে সে। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে আল আমিনকে প্রধান আসামি করে অজ্ঞাত আরও ৫-৬ জনের বিরুদ্ধে রোববার টাঙ্গাইল আদালতে মামলা করেন।

দশমিনা ও দক্ষিণ (পটুয়াখালী) : পটুয়াখালীর দশমিনায় শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে মো. মন্টু সিকদার (২৫) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে তাকে নিজ বাড়ির সামনে থেকে আটক করে পুলিশ। আটক মন্টু উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের চরহোসনাবাদ গ্রামের হানিফ সিকদারের ছেলে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন