তদন্ত কমিটির কাছে চুল কাটার বর্ণনা দিলেন ১৪ শিক্ষার্থী
jugantor
রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়
তদন্ত কমিটির কাছে চুল কাটার বর্ণনা দিলেন ১৪ শিক্ষার্থী

  শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি  

২৮ অক্টোবর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে (রবি) ১৪ শিক্ষার্থীর মাথার চুল কেটে দেওয়ার ঘটনা তদন্তে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) গঠিত ৩ সদস্যের তদন্ত কাজ শুরু করেছে। কমিটির দুই সদস্য ইউজিসির পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট বিভাগের পরিচালক মো. জামিনুর রহমান ও সিনিয়র সহকারী পরিচালক ইউসুফ হীরা বুধবার সকালে রবির একাডেমিক ভবনে এসে তদন্তকাজ শুরু করেন। এ সময় কমিটির প্রধান বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য ড. দিল আফরোজ বেগম ঢাকা থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন। রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার সোহরাব আলী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন তদন্ত শুরু হয়েছে। এ বিষয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মুখপাত্র আবু জাফর বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের এ তদন্ত দল ভুক্তভোগী ১৪ শিক্ষার্থী, অভিযুক্ত শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন, প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থী, আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী চার শিক্ষার্থী, প্রত্যক্ষদর্শী তিন শিক্ষক ও পাঁচ কর্মকর্তা-কর্মচারীর সাক্ষ্যগ্রহণ করেন।

এছাড়া তদন্ত কমিটি বিভাগীয় চেয়ারম্যানসহ রবীন্দ্র অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারম্যান লায়লা ফেরদৌস হিমেলের নেতৃত্বে রবি গঠিত ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটির সঙ্গেও কথা বলেন। আবু জাফর আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের প্রত্যেককে আলাদা জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এছাড়া ৫৪টি প্রশ্নের উত্তর নির্ধারিত ফরমে লিখে নেন। মৌখিকভাবে চুল কেটে দেওয়ার বর্ণনা দেন ভুক্তভোগী ১৪ শিক্ষার্থী।

এ বিষয়ে মোবাইল ফোনে অভিযুক্ত শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন বলেন, ইউজিসির তদন্ত কমিটি আমাকে ডেকেছে। তাদের ডাকে সাড়া দিয়ে আমি এসেছি, যা বলার বলেছি। তারা আমার কথা গুরুত্বসহকারে শুনেছেন। তিনি আরও বলেন, এ তদন্ত কমিটির ওপর আমার শতভাগ আস্থা আছে বলেই আমি এসেছি।

এ বিষয়ে জানতে রাত পৌনে ৮টার দিকে রবির দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য ও ট্রেজারার আব্দুল লতিফ ও রেজিস্ট্রার সোহরাব আলীর মুঠোফোনে একাধিকবার কল করেও তাদের পাওয়া যায়নি।

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়

তদন্ত কমিটির কাছে চুল কাটার বর্ণনা দিলেন ১৪ শিক্ষার্থী

 শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২৮ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে (রবি) ১৪ শিক্ষার্থীর মাথার চুল কেটে দেওয়ার ঘটনা তদন্তে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) গঠিত ৩ সদস্যের তদন্ত কাজ শুরু করেছে। কমিটির দুই সদস্য ইউজিসির পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট বিভাগের পরিচালক মো. জামিনুর রহমান ও সিনিয়র সহকারী পরিচালক ইউসুফ হীরা বুধবার সকালে রবির একাডেমিক ভবনে এসে তদন্তকাজ শুরু করেন। এ সময় কমিটির প্রধান বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য ড. দিল আফরোজ বেগম ঢাকা থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন। রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার সোহরাব আলী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন তদন্ত শুরু হয়েছে। এ বিষয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মুখপাত্র আবু জাফর বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের এ তদন্ত দল ভুক্তভোগী ১৪ শিক্ষার্থী, অভিযুক্ত শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন, প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থী, আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী চার শিক্ষার্থী, প্রত্যক্ষদর্শী তিন শিক্ষক ও পাঁচ কর্মকর্তা-কর্মচারীর সাক্ষ্যগ্রহণ করেন।

এছাড়া তদন্ত কমিটি বিভাগীয় চেয়ারম্যানসহ রবীন্দ্র অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারম্যান লায়লা ফেরদৌস হিমেলের নেতৃত্বে রবি গঠিত ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটির সঙ্গেও কথা বলেন। আবু জাফর আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের প্রত্যেককে আলাদা জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এছাড়া ৫৪টি প্রশ্নের উত্তর নির্ধারিত ফরমে লিখে নেন। মৌখিকভাবে চুল কেটে দেওয়ার বর্ণনা দেন ভুক্তভোগী ১৪ শিক্ষার্থী।

এ বিষয়ে মোবাইল ফোনে অভিযুক্ত শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন বলেন, ইউজিসির তদন্ত কমিটি আমাকে ডেকেছে। তাদের ডাকে সাড়া দিয়ে আমি এসেছি, যা বলার বলেছি। তারা আমার কথা গুরুত্বসহকারে শুনেছেন। তিনি আরও বলেন, এ তদন্ত কমিটির ওপর আমার শতভাগ আস্থা আছে বলেই আমি এসেছি।

এ বিষয়ে জানতে রাত পৌনে ৮টার দিকে রবির দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য ও ট্রেজারার আব্দুল লতিফ ও রেজিস্ট্রার সোহরাব আলীর মুঠোফোনে একাধিকবার কল করেও তাদের পাওয়া যায়নি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন