বাজিতপুরে দুগ্রামবাসীর সংঘর্ষে নিহত ১
jugantor
বাজিতপুরে দুগ্রামবাসীর সংঘর্ষে নিহত ১
আহত অর্ধশত

  কিশোরগঞ্জ ব্যুরো  

২০ নভেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরে দুদল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে শুক্রবার এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অর্ধশত। নিহত ব্যক্তির নাম শফি মিয়া (৫০)। তিনি কৈলাগ গ্রামের মৃত তারু মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, রাহেলা ও কৈলাগ গ্রামবাসীর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে পূর্বশত্রুতা ও আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে বিরোধ চলে আসছিল। বৃহস্পতিবার কৈলাগ গ্রামের ৪নং ওয়ার্ডের আলমগীর হোসেন তার শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার সময় সেখানে রাহেলা গ্রামের ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শরিয়ত আলী মিঠুর লোকজন আলমগীরকে আটক করে মারধর করে। এ ঘটনায় রাতে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

শুক্রবার সকালে আবারও দুপক্ষ সংঘটিত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় অন্তত ৫০/৫১ ব্যক্তি আহত হয়। এর মধ্যে বল্লমের আঘাতে গুরুতর আহত শফি মিয়াকে বাজিতপুরের জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বাজিতপুর থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বাজিতপুরে দুগ্রামবাসীর সংঘর্ষে নিহত ১

আহত অর্ধশত
 কিশোরগঞ্জ ব্যুরো 
২০ নভেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরে দুদল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে শুক্রবার এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অর্ধশত। নিহত ব্যক্তির নাম শফি মিয়া (৫০)। তিনি কৈলাগ গ্রামের মৃত তারু মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, রাহেলা ও কৈলাগ গ্রামবাসীর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে পূর্বশত্রুতা ও আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে বিরোধ চলে আসছিল। বৃহস্পতিবার কৈলাগ গ্রামের ৪নং ওয়ার্ডের আলমগীর হোসেন তার শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার সময় সেখানে রাহেলা গ্রামের ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শরিয়ত আলী মিঠুর লোকজন আলমগীরকে আটক করে মারধর করে। এ ঘটনায় রাতে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

শুক্রবার সকালে আবারও দুপক্ষ সংঘটিত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় অন্তত ৫০/৫১ ব্যক্তি আহত হয়। এর মধ্যে বল্লমের আঘাতে গুরুতর আহত শফি মিয়াকে বাজিতপুরের জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বাজিতপুর থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন