দেওয়ানগঞ্জে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ বিক্রির ২ হোতা গ্রেফতার
jugantor
যুগান্তরে খবর প্রকাশ
দেওয়ানগঞ্জে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ বিক্রির ২ হোতা গ্রেফতার

  দেওয়ানগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি  

২৬ নভেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেওয়ানগঞ্জ সীমান্ত এলাকায় ভুয়া সহযোগী মুক্তিযোদ্ধা সনদ বিক্রি চক্রের দুই হোতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

তারা হলেন-উত্তর মোয়ামারী গ্রামের আবুল কাশেম (৬৫) ও হারুয়াবাড়ী মধ্যপাড়া গ্রামের মোজাম্মেল হক আকন্দ ওরফে গড্ডু মাতাব্বর (৬৫)। প্রতারকদের কাছ থেকে ১২টি ভুয়া সহযোগী মুক্তিযোদ্ধা সনদ ও ৩টি জাল আইডি কার্ড উদ্ধার করা হয়।

বুধবার যুগান্তরের ‘দেওয়ানগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা ভাতার প্রলোভন দিয়ে সার্টিফিকেট বিক্রি’ শিরোনামে খবর প্রকাশের পর ভুক্তভোগী থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ বৃহস্পতিবার তাদেরকে গ্রেফতার করে। উপজেলার ডাংধরা চর আমখাওয়া সানন্দবাড়ীসহ আশপাশ এলাকার দিনমজুর, ভ্যানচালক, ঢাকায় বসবাসকারী কাজের মহিলা, গরিব অসহায় বয়স্ক নারী-পুরুষদের কাছে মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে সাড়ে তিন হাজার টাকার বিনিময়ে সহযোগী মুক্তিযোদ্ধার ভুয়া সনদ, আইডি কার্ড, গেঞ্জি ও ক্যাপ দেওয়া হয়। এ সময় তাদের প্রতি মাসে ১০ হাজার করে টাকা এবং মুক্তিযোদ্ধাদের সব সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যাবে বলে মিথ্যা আশ্বাস দেওয়া হয়।

প্রতারণার শিকার হারুয়াবাড়ী গুচ্ছগ্রামের ইয়াদ আলী বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন। তিনি বলেন, প্রতারক আবুল কাশেম দীর্ঘদিন ধরে দেশের বিভিন্ন স্থানে ভুয়া সনদ বিক্রির ব্যবসা করে আসছিল। স্থানীয়ভাবে গড্ডু মাতাব্বর এসব সনদ বিক্রি করত।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহব্বত কবীর জানান, বৃহস্পতিবার দুই প্রতারককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলাও হয়েছে।

যুগান্তরে খবর প্রকাশ

দেওয়ানগঞ্জে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ বিক্রির ২ হোতা গ্রেফতার

 দেওয়ানগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি 
২৬ নভেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেওয়ানগঞ্জ সীমান্ত এলাকায় ভুয়া সহযোগী মুক্তিযোদ্ধা সনদ বিক্রি চক্রের দুই হোতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

তারা হলেন-উত্তর মোয়ামারী গ্রামের আবুল কাশেম (৬৫) ও হারুয়াবাড়ী মধ্যপাড়া গ্রামের মোজাম্মেল হক আকন্দ ওরফে গড্ডু মাতাব্বর (৬৫)। প্রতারকদের কাছ থেকে ১২টি ভুয়া সহযোগী মুক্তিযোদ্ধা সনদ ও ৩টি জাল আইডি কার্ড উদ্ধার করা হয়।

বুধবার যুগান্তরের ‘দেওয়ানগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা ভাতার প্রলোভন দিয়ে সার্টিফিকেট বিক্রি’ শিরোনামে খবর প্রকাশের পর ভুক্তভোগী থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ বৃহস্পতিবার তাদেরকে গ্রেফতার করে। উপজেলার ডাংধরা চর আমখাওয়া সানন্দবাড়ীসহ আশপাশ এলাকার দিনমজুর, ভ্যানচালক, ঢাকায় বসবাসকারী কাজের মহিলা, গরিব অসহায় বয়স্ক নারী-পুরুষদের কাছে মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে সাড়ে তিন হাজার টাকার বিনিময়ে সহযোগী মুক্তিযোদ্ধার ভুয়া সনদ, আইডি কার্ড, গেঞ্জি ও ক্যাপ দেওয়া হয়। এ সময় তাদের প্রতি মাসে ১০ হাজার করে টাকা এবং মুক্তিযোদ্ধাদের সব সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যাবে বলে মিথ্যা আশ্বাস দেওয়া হয়।

প্রতারণার শিকার হারুয়াবাড়ী গুচ্ছগ্রামের ইয়াদ আলী বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন। তিনি বলেন, প্রতারক আবুল কাশেম দীর্ঘদিন ধরে দেশের বিভিন্ন স্থানে ভুয়া সনদ বিক্রির ব্যবসা করে আসছিল। স্থানীয়ভাবে গড্ডু মাতাব্বর এসব সনদ বিক্রি করত।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহব্বত কবীর জানান, বৃহস্পতিবার দুই প্রতারককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলাও হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন