অপসারিত চেয়ারম্যান সচিবের গ্রেফতার দাবিতে আলটিমেটাম
jugantor
যশোর শিক্ষা বোর্ডে ৭ কোটি টাকার চেক জালিয়াতি
অপসারিত চেয়ারম্যান সচিবের গ্রেফতার দাবিতে আলটিমেটাম

  যশোর ব্যুরো  

০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

যশোর শিক্ষা বোর্ডের ৩৬টি চেক জালিয়াতির মাধ্যমে সাত কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনায় বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোল্লা আমীর হোসেন ও সচিব এএইচ আলী আর রেজাসহ দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে সাত দিনের আলটিমেটাম দিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। যশোরে ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) কার্যালয়ে মঙ্গলবার দুপুরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে এ আলটিমেটাম দেওয়া হয়। ৭ দিনের মধ্যে দাবি আদায় না হলে ৭ ডিসেম্বর নবনিযুক্ত বোর্ড চেয়ারম্যানের কাছে স্মারকলিপি প্রদান ও ১৩ ডিসেম্বর শিক্ষা বোর্ডের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারসহ ৬ দফা দাবি তুলে ধরেন বাম জোটের সমন্বয়ক তসলিম উর রহমান। সংবাদ সম্মেলনে জোটের নেতারা বলেন, এই দুর্নীতির সঙ্গে আরও অনেকেই জড়িত বলে ইতোমধ্যে প্রকাশ পেয়েছে। অনেকে দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের রক্ষার জন্য স্বাক্ষর সংগ্রহ করেছে। এই দুর্নীতির টাকা ঠিকাদারসহ অনেকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ঢুকেছে। সারা দেশে এই লুটপাট ও দুর্নীতির খতিয়ান ইতোমধ্যে প্রকাশ পেয়েছে। যশোর শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তা, কর্মচারী, ঠিকাদার, ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ যারাই জড়িত হোক না কেন-তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের চিহ্নিত করে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) জেলা সভাপতি নাজিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবির জাহিদ, কমিউনিস্ট পার্টির জেলা সভাপতি আবুল হোসেন, বাসদ (মার্কসবাদী) জেলা সমন্বয়ক হাচিনুর রহমান, ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) জেলা সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান ভিটু, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সদস্য কামাল হাসান পলাশ প্রমুখ।

যশোর শিক্ষা বোর্ডে ৭ কোটি টাকার চেক জালিয়াতি

অপসারিত চেয়ারম্যান সচিবের গ্রেফতার দাবিতে আলটিমেটাম

 যশোর ব্যুরো 
০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

যশোর শিক্ষা বোর্ডের ৩৬টি চেক জালিয়াতির মাধ্যমে সাত কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনায় বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোল্লা আমীর হোসেন ও সচিব এএইচ আলী আর রেজাসহ দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে সাত দিনের আলটিমেটাম দিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। যশোরে ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) কার্যালয়ে মঙ্গলবার দুপুরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে এ আলটিমেটাম দেওয়া হয়। ৭ দিনের মধ্যে দাবি আদায় না হলে ৭ ডিসেম্বর নবনিযুক্ত বোর্ড চেয়ারম্যানের কাছে স্মারকলিপি প্রদান ও ১৩ ডিসেম্বর শিক্ষা বোর্ডের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারসহ ৬ দফা দাবি তুলে ধরেন বাম জোটের সমন্বয়ক তসলিম উর রহমান। সংবাদ সম্মেলনে জোটের নেতারা বলেন, এই দুর্নীতির সঙ্গে আরও অনেকেই জড়িত বলে ইতোমধ্যে প্রকাশ পেয়েছে। অনেকে দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের রক্ষার জন্য স্বাক্ষর সংগ্রহ করেছে। এই দুর্নীতির টাকা ঠিকাদারসহ অনেকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ঢুকেছে। সারা দেশে এই লুটপাট ও দুর্নীতির খতিয়ান ইতোমধ্যে প্রকাশ পেয়েছে। যশোর শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তা, কর্মচারী, ঠিকাদার, ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ যারাই জড়িত হোক না কেন-তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের চিহ্নিত করে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) জেলা সভাপতি নাজিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবির জাহিদ, কমিউনিস্ট পার্টির জেলা সভাপতি আবুল হোসেন, বাসদ (মার্কসবাদী) জেলা সমন্বয়ক হাচিনুর রহমান, ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) জেলা সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান ভিটু, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সদস্য কামাল হাসান পলাশ প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন