ওই ইউরোপীয় পার্লামেন্ট সদস্যের বাংলাদেশ সম্পর্কে জ্ঞান নেই
jugantor
যুগান্তরকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী
ওই ইউরোপীয় পার্লামেন্ট সদস্যের বাংলাদেশ সম্পর্কে জ্ঞান নেই

  কূটনৈতিক প্রতিবেদক  

২৭ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে বলে স্লোভাকিয়ার ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্য (এমপি) ইভান স্টেফানেকের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সম্পর্কে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের ওই সদস্যের কোনো জ্ঞান নেই। যুগান্তরের সঙ্গে বুধবার আলাপকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন বলেন, ইউরোপীয় পার্লামেন্টের ওই সদস্য বাংলাদেশ সম্পর্কে জেনেশুনে চিঠিতে সই করেননি। কেউ চিঠিটি লিখে দিয়েছেন আর তিনি এতে সই করেছেন। ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সাত শতাধিক এমপি আছেন। তাদের মধ্যে কেউ কেউ পয়সায় বিক্রি হন। জামায়াত-বিএনপির কেউ হয়তো তাকে চিঠিটি লিখে দিয়ে একটি ইনভেলাপ দিয়েছেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইউরোপীয় পার্লামেন্টের একজন এমপির কাছ থেকে আমরা আরও পরিপক্ব কিছু আশা করি। তার চিঠি পড়ে মনে হচ্ছে বাংলাদেশে কোনো আইন নেই। ভয়ঙ্কর কিছু ঘটছে। এসব কথা সেন্সেবল নয়। বাংলাদেশে আইন আছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওই সদস্যের বক্তব্যকে গুরুত্ব না দেওয়ার জন্য গণমাধ্যমের প্রতি আহ্বান জানান।

এদিকে, ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্য ফুলভিও মার্তুসিলো বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে তার বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে অবস্থিত ব্রাসেলস প্রেস ক্লাবে এই সংবাদ সম্মেলনের মডারেটর ছিলেন ইউরোপিয়ান অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য ডিফেন্স অব মাইনরিটিসের প্রেসিডেন্ট মানেল মিসালমি। ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্য ইভান স্টেফানেক চিঠি দিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) পররাষ্ট্র দপ্তরে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণের পর বিএনপি এ সংবাদ সম্মেলন করেছে। ইভান স্টেফানেকের চিঠির একটি কপি যুগান্তরের হাতে রয়েছে। চিঠিতে তিনি সম্প্রতি র‌্যাবের ওপর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা, মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও হিউম্যান রাইটস ওয়াচের বিবৃতি, আল-জাজিরার প্রতিবেদন প্রভৃতির উল্লেখ করে বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে বলে দাবি করেন।

যুগান্তরকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ওই ইউরোপীয় পার্লামেন্ট সদস্যের বাংলাদেশ সম্পর্কে জ্ঞান নেই

 কূটনৈতিক প্রতিবেদক 
২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে বলে স্লোভাকিয়ার ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্য (এমপি) ইভান স্টেফানেকের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সম্পর্কে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের ওই সদস্যের কোনো জ্ঞান নেই। যুগান্তরের সঙ্গে বুধবার আলাপকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন বলেন, ইউরোপীয় পার্লামেন্টের ওই সদস্য বাংলাদেশ সম্পর্কে জেনেশুনে চিঠিতে সই করেননি। কেউ চিঠিটি লিখে দিয়েছেন আর তিনি এতে সই করেছেন। ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সাত শতাধিক এমপি আছেন। তাদের মধ্যে কেউ কেউ পয়সায় বিক্রি হন। জামায়াত-বিএনপির কেউ হয়তো তাকে চিঠিটি লিখে দিয়ে একটি ইনভেলাপ দিয়েছেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইউরোপীয় পার্লামেন্টের একজন এমপির কাছ থেকে আমরা আরও পরিপক্ব কিছু আশা করি। তার চিঠি পড়ে মনে হচ্ছে বাংলাদেশে কোনো আইন নেই। ভয়ঙ্কর কিছু ঘটছে। এসব কথা সেন্সেবল নয়। বাংলাদেশে আইন আছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওই সদস্যের বক্তব্যকে গুরুত্ব না দেওয়ার জন্য গণমাধ্যমের প্রতি আহ্বান জানান।

এদিকে, ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্য ফুলভিও মার্তুসিলো বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে তার বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে অবস্থিত ব্রাসেলস প্রেস ক্লাবে এই সংবাদ সম্মেলনের মডারেটর ছিলেন ইউরোপিয়ান অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য ডিফেন্স অব মাইনরিটিসের প্রেসিডেন্ট মানেল মিসালমি। ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্য ইভান স্টেফানেক চিঠি দিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) পররাষ্ট্র দপ্তরে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণের পর বিএনপি এ সংবাদ সম্মেলন করেছে। ইভান স্টেফানেকের চিঠির একটি কপি যুগান্তরের হাতে রয়েছে। চিঠিতে তিনি সম্প্রতি র‌্যাবের ওপর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা, মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও হিউম্যান রাইটস ওয়াচের বিবৃতি, আল-জাজিরার প্রতিবেদন প্রভৃতির উল্লেখ করে বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে বলে দাবি করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন