কুমারখালীতে দশম শ্রেণির ছাত্র খুন
jugantor
পূর্বশত্রুতার জের
কুমারখালীতে দশম শ্রেণির ছাত্র খুন

  কুমারখালী (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি  

২৮ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পূর্বশত্রুতার জেরে দশম শ্রেণির ছাত্রকে খুন করেছে শিলাইদহের কোমরকান্দি গ্রামের দিলবরের দুই ছেলে কাঠ মিস্ত্রি বাবু ও মিজান। শিলাইদহ ইউনিয়নের খোরশেদপুর বাজারে বুধবার সন্ধ্যায় প্রকাশ্যে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত ছাত্র শিলাইদহ ইউনিয়নের কসবা গ্রামের হোসেন আলী প্রামাণিকের ছেলে দিদার হোসেন। সে খোরশেদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র।

প্রত্যক্ষদর্শী দিদারের মামাতো ভাই ফারুক হোসেন জানান, খোরশেদপুর বাজারে সে ও দিদার পৌঁছালে সেখানে কাঠমিস্ত্রি বাবু ও মিজানের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয়। এ সময় মিজান কাঠ কাটা বাটাল দিয়ে দিদারের বুকে আঘাত করলে সে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। তিনি আরও জানান, এক মাস পূর্বে দিদারের মামাতো ভাই মোস্তাফিজ চাকরি থেকে ছুটিতে কুমারখালী গ্রামের বাড়িতে এলে হত্যাকারী মিজান ও বাবুর সঙ্গে তার গণ্ডগোল হয়। এ ঘটনায় দুই ভাই মোস্তাফিজকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হামলা করলে সে মারাত্মক আহত অবস্থায় দীর্ঘদিন কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সে সময় মারপিটের ঘটনায় বাবু ও মিজানের বিরুদ্ধে মামলা হয়।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) আকিবুল ইসলাম বলেন, পূর্বশত্রুতার জেরে দশম শ্রেণির এক ছাত্রকে হত্যা করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে বৃহস্পতিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে।

পূর্বশত্রুতার জের

কুমারখালীতে দশম শ্রেণির ছাত্র খুন

 কুমারখালী (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি 
২৮ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পূর্বশত্রুতার জেরে দশম শ্রেণির ছাত্রকে খুন করেছে শিলাইদহের কোমরকান্দি গ্রামের দিলবরের দুই ছেলে কাঠ মিস্ত্রি বাবু ও মিজান। শিলাইদহ ইউনিয়নের খোরশেদপুর বাজারে বুধবার সন্ধ্যায় প্রকাশ্যে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত ছাত্র শিলাইদহ ইউনিয়নের কসবা গ্রামের হোসেন আলী প্রামাণিকের ছেলে দিদার হোসেন। সে খোরশেদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র।

প্রত্যক্ষদর্শী দিদারের মামাতো ভাই ফারুক হোসেন জানান, খোরশেদপুর বাজারে সে ও দিদার পৌঁছালে সেখানে কাঠমিস্ত্রি বাবু ও মিজানের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয়। এ সময় মিজান কাঠ কাটা বাটাল দিয়ে দিদারের বুকে আঘাত করলে সে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। তিনি আরও জানান, এক মাস পূর্বে দিদারের মামাতো ভাই মোস্তাফিজ চাকরি থেকে ছুটিতে কুমারখালী গ্রামের বাড়িতে এলে হত্যাকারী মিজান ও বাবুর সঙ্গে তার গণ্ডগোল হয়। এ ঘটনায় দুই ভাই মোস্তাফিজকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হামলা করলে সে মারাত্মক আহত অবস্থায় দীর্ঘদিন কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সে সময় মারপিটের ঘটনায় বাবু ও মিজানের বিরুদ্ধে মামলা হয়।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) আকিবুল ইসলাম বলেন, পূর্বশত্রুতার জেরে দশম শ্রেণির এক ছাত্রকে হত্যা করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে বৃহস্পতিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন