বানিয়াচংয়ে শিশুকে বর্বর নির্যাতন ইউপি চেয়ারম্যানের
jugantor
বানিয়াচংয়ে শিশুকে বর্বর নির্যাতন ইউপি চেয়ারম্যানের

  বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৬ আগস্ট ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে চোরের শাস্তির ভিডিও ধারণ করায় ২নং উত্তর-পশ্চিম ইউপি চেয়ারম্যান হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়া ১২ বছরের শিশু হৃদয়কে বর্বর নির্যাতন করেছেন। সে স্থানীয় দোকানটুলা গ্রামের সুন্দর আলীর ছেলে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে হবিগঞ্জ শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। যন্ত্রণায় শিশুটির ছটফট করা একটি ভিডিও ভাইরাল হলে নিন্দার ঝড় ওঠে।

সুন্দর আলী জানান, রোববার সন্ধ্যায় এক চোরকে ধরে এনে জুতাপেটা করেন ধন মিয়া চেয়ারম্যান। এ সময় আমার শিশু ছেলে হৃদয় কৌতূহলবশত এর ভিডিও করলে চেয়ারম্যান ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেন।

এরপর বেপোরোয়া কিল-ঘুসি ও লাথি মারেন। খবর পেয়ে অজ্ঞান অবস্থায় তাকে প্রথমে বানিয়াচং হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে হবিগঞ্জ শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করাই।

তিনি আরও বলেন, ছেলের চিকিৎসা শেষে মামলা করবেন। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান ধন মিয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি কোনো বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

বানিয়াচংয়ে শিশুকে বর্বর নির্যাতন ইউপি চেয়ারম্যানের

 বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৬ আগস্ট ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে চোরের শাস্তির ভিডিও ধারণ করায় ২নং উত্তর-পশ্চিম ইউপি চেয়ারম্যান হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়া ১২ বছরের শিশু হৃদয়কে বর্বর নির্যাতন করেছেন। সে স্থানীয় দোকানটুলা গ্রামের সুন্দর আলীর ছেলে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে হবিগঞ্জ শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। যন্ত্রণায় শিশুটির ছটফট করা একটি ভিডিও ভাইরাল হলে নিন্দার ঝড় ওঠে।

সুন্দর আলী জানান, রোববার সন্ধ্যায় এক চোরকে ধরে এনে জুতাপেটা করেন ধন মিয়া চেয়ারম্যান। এ সময় আমার শিশু ছেলে হৃদয় কৌতূহলবশত এর ভিডিও করলে চেয়ারম্যান ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেন।

এরপর বেপোরোয়া কিল-ঘুসি ও লাথি মারেন। খবর পেয়ে অজ্ঞান অবস্থায় তাকে প্রথমে বানিয়াচং হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে হবিগঞ্জ শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করাই।

তিনি আরও বলেন, ছেলের চিকিৎসা শেষে মামলা করবেন। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান ধন মিয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি কোনো বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন