রাজশাহীতে মাউশির দুই কর্মকর্তা ওএসডি
jugantor
রাজশাহীতে মাউশির দুই কর্মকর্তা ওএসডি

  রাজশাহী ব্যুরো  

০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) রাজশাহী আঞ্চলিক অফিসের পরিচালক ও সহকারী পরিচালকের প্রেষণ প্রত্যাহার করে তাদের ওএসডি করা হয়েছে। ৩০ নভেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ থেকে এক প্রজ্ঞাপনে এ আদেশ জারি করা হয়। ওএসডি দুই কর্মকর্তা হলেন : পরিচালক কামাল হোসেন ও সহকারী পরিচালক আবু রেজা আজাদ। দুজনই বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারের কর্মকর্তা। মাউশিতে প্রেষণে আসার আগে তাদের একজন কলেজের অধ্যাপক ও অপরজন সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। মাউশির এই দুই কর্মকর্তাকে ৬ ডিসেম্বর তাদের বর্তমান কর্মস্থল থেকে বিদায় নিতে বলা হয়েছে। পরবর্তী পদায়ন পর্যন্ত তারা মাউশিতে ওএসডি হিসাবে সংযুক্ত থাকবেন।

অভিযোগে জানা গেছে, পরিচালক কামাল হোসেন ও সহকারী পরিচালক আবু রেজা আজাদ একসঙ্গে বিভিন্ন খাতে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতিতে জড়ান। বিশেষ করে কলেজ শিক্ষকদের পদোন্নতি ও এমপিও ছাড়করণে মোটা টাকা নিতেন। এই দুই কর্মকর্তাকে প্রত্যাহারের দাবিতে এক বছর ধরে রাজশাহীতে কলেজ শিক্ষক সমিতিসহ সাধারণ শিক্ষকরা আন্দোলন করে আসছিলেন। চলতি বছরের এপ্রিলে দুই কর্মকর্তার দুর্নীতি ও অনিয়ম তদন্ত করেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি তদন্ত দল। তদন্তে তাদের দুর্নীতি ও অনিয়মের প্রমাণ পাওয়া যায়। তদন্ত দল কামাল হোসেন ও আবু রেজা আজাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণে মন্ত্রণালয়ের সচিবের কাছে সুপারিশ করে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তাদের ওএসডি করা হয়।

রাজশাহীতে মাউশির দুই কর্মকর্তা ওএসডি

 রাজশাহী ব্যুরো 
০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) রাজশাহী আঞ্চলিক অফিসের পরিচালক ও সহকারী পরিচালকের প্রেষণ প্রত্যাহার করে তাদের ওএসডি করা হয়েছে। ৩০ নভেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ থেকে এক প্রজ্ঞাপনে এ আদেশ জারি করা হয়। ওএসডি দুই কর্মকর্তা হলেন : পরিচালক কামাল হোসেন ও সহকারী পরিচালক আবু রেজা আজাদ। দুজনই বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারের কর্মকর্তা। মাউশিতে প্রেষণে আসার আগে তাদের একজন কলেজের অধ্যাপক ও অপরজন সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। মাউশির এই দুই কর্মকর্তাকে ৬ ডিসেম্বর তাদের বর্তমান কর্মস্থল থেকে বিদায় নিতে বলা হয়েছে। পরবর্তী পদায়ন পর্যন্ত তারা মাউশিতে ওএসডি হিসাবে সংযুক্ত থাকবেন।

অভিযোগে জানা গেছে, পরিচালক কামাল হোসেন ও সহকারী পরিচালক আবু রেজা আজাদ একসঙ্গে বিভিন্ন খাতে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতিতে জড়ান। বিশেষ করে কলেজ শিক্ষকদের পদোন্নতি ও এমপিও ছাড়করণে মোটা টাকা নিতেন। এই দুই কর্মকর্তাকে প্রত্যাহারের দাবিতে এক বছর ধরে রাজশাহীতে কলেজ শিক্ষক সমিতিসহ সাধারণ শিক্ষকরা আন্দোলন করে আসছিলেন। চলতি বছরের এপ্রিলে দুই কর্মকর্তার দুর্নীতি ও অনিয়ম তদন্ত করেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি তদন্ত দল। তদন্তে তাদের দুর্নীতি ও অনিয়মের প্রমাণ পাওয়া যায়। তদন্ত দল কামাল হোসেন ও আবু রেজা আজাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণে মন্ত্রণালয়ের সচিবের কাছে সুপারিশ করে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তাদের ওএসডি করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন