কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সম্মেলন আজ
jugantor
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সম্মেলন আজ
তৃণমূলের পছন্দ কাদের মির্জা ও বাদল

  কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  

০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রায় এক যুগ পর আজ কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন হতে যাচ্ছে। এ সম্মেলন সামনে রেখে নানা স্থানে প্রস্তুতিমূলক সভা হয়েছে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে দলের মধ্যে ঐক্য ধরে রাখতে একের পর সমঝোতা বৈঠক হয়েছে। যুদ্ধাংদেহী উভয়পক্ষ সমঝোতা করে ঘোষণা দিয়েছে-স্বাধীনতাবিরোধী বিএনপি-জামায়াত অপশক্তিকে রুখতে ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই।

সম্মেলন ঘিরে নানা হতাশা, উৎকণ্ঠা-উদ্বেগ পেরিয়ে উজ্জীবিত হয়ে উঠেছে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সব পর্যায়ের নেতাকর্মীরা। সম্মেলনের স্থল বসুরহাট এএইচসি সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ের মাঠকে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে। শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। আটটি ইউনিয়ন নানা পোস্টার ও ব্যানারে ছেঁয়ে গেছে। সম্মেলনে কাউন্সিলর ও ডেলিগেটরসহ ১০ হাজার নেতাকর্মী ও সমর্থকের আগমন ঘটবে বলে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি মনে করছে।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসাবে থাকবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বিশেষ অতিথি হিসাবে থাকবেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক বেগম ফরিদুন্নাহার লাইলী, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী। সম্মেলন উদ্বোধন করবেন নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ এএইচএম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিম। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করবেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান। এছাড়া জেলা-উপজেলার নেতারা অংশ নেবেন। আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন সম্পর্কে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান জানান, সম্মেলনকে সফল ও স্বার্থক করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

দলীয় বিভাজন, বিরোধ, হানাহানি, মামলা পালটা মামলার পর এ সম্মেলন হলেও সব বিভেদ ভুলে দলকে গুছিয়ে নেওয়ার অঙ্গীকার করা হয়েছে। তৃণমূল নেতাকর্মীদের প্রত্যাশা সভাপতি পদে বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা এবং সাধারণ সম্পাদক পদে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলকে বেছে নেওয়া হোক। বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা জানান, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের যে সিদ্ধান্ত দেবেন এবং যে কমিটি করে দেবেন তা মেনে নেব।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সম্মেলন আজ

তৃণমূলের পছন্দ কাদের মির্জা ও বাদল
 কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি 
০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রায় এক যুগ পর আজ কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন হতে যাচ্ছে। এ সম্মেলন সামনে রেখে নানা স্থানে প্রস্তুতিমূলক সভা হয়েছে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে দলের মধ্যে ঐক্য ধরে রাখতে একের পর সমঝোতা বৈঠক হয়েছে। যুদ্ধাংদেহী উভয়পক্ষ সমঝোতা করে ঘোষণা দিয়েছে-স্বাধীনতাবিরোধী বিএনপি-জামায়াত অপশক্তিকে রুখতে ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই।

সম্মেলন ঘিরে নানা হতাশা, উৎকণ্ঠা-উদ্বেগ পেরিয়ে উজ্জীবিত হয়ে উঠেছে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সব পর্যায়ের নেতাকর্মীরা। সম্মেলনের স্থল বসুরহাট এএইচসি সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ের মাঠকে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে। শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। আটটি ইউনিয়ন নানা পোস্টার ও ব্যানারে ছেঁয়ে গেছে। সম্মেলনে কাউন্সিলর ও ডেলিগেটরসহ ১০ হাজার নেতাকর্মী ও সমর্থকের আগমন ঘটবে বলে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি মনে করছে।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসাবে থাকবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বিশেষ অতিথি হিসাবে থাকবেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক বেগম ফরিদুন্নাহার লাইলী, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী। সম্মেলন উদ্বোধন করবেন নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ এএইচএম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিম। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করবেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান। এছাড়া জেলা-উপজেলার নেতারা অংশ নেবেন। আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন সম্পর্কে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান জানান, সম্মেলনকে সফল ও স্বার্থক করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

দলীয় বিভাজন, বিরোধ, হানাহানি, মামলা পালটা মামলার পর এ সম্মেলন হলেও সব বিভেদ ভুলে দলকে গুছিয়ে নেওয়ার অঙ্গীকার করা হয়েছে। তৃণমূল নেতাকর্মীদের প্রত্যাশা সভাপতি পদে বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা এবং সাধারণ সম্পাদক পদে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলকে বেছে নেওয়া হোক। বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা জানান, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের যে সিদ্ধান্ত দেবেন এবং যে কমিটি করে দেবেন তা মেনে নেব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন